তরুণদের নিয়ে রিয়েলমির তিন পরিকল্পনা

0
18

বার্তাকক্ষ ,,বৈশ্বিকভাবে তরুণ প্রজন্মকে গুরুত্ব দিয়ে আসছে রিয়েলমি। বাংলাদেশও এর ব্যতিক্রম নয়। এই স্মার্টফোন ব্র্যান্ড আগামীতে এগিয়ে চলার প্রত্যয়ে তরুণ প্রজন্মের জন্য বিশেষ তিনটি পরিকল্পনা নিয়ে কাজ শুরু করেছে।
তরুণদের চাহিদা পূরণে সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ও উদ্ভাবনে জোর দিয়ে আসছে রিয়েলমি। এরই অংশ হিসেবে ডিজাইন, পারফরম্যান্স ও এক্সপেরিয়েন্সের পাশাপাশি তরুণদের জন্য তিনটি বিশেষ পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করছে প্রতিষ্ঠানটি। এগুলো হলো প্রথমত, ‘‌এনজয় ফিউচার’ পরিকল্পনার অধীনে শিক্ষার্থীদের জন্য বিশেষ ছাড় ও ক্রয়পরবর্তী সেবা নিশ্চিত করা হবে। বিশ্বের সব অঞ্চলের মতো বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরাও এ সুযোগ গ্রহণ করতে পারবেন।
দ্বিতীয়ত, ‘কো-ক্রিয়েট প্ল্যান’-এর মাধ্যমে বিশ্বের সব বাজার থেকে ফোন সম্পর্কে ব্যবহারকারীদের মতামত নেয়া হবে এবং তা মূল্যায়ন করা হবে। এর ফলে ব্র্যান্ড ও ব্যবহারকারী একত্রে স্মার্টফোনের প্রযুক্তি উন্নয়নে অবদান রাখার সুযোগ পাবেন। তৃতীয়ত, ‘নিউ পাওয়ার প্ল্যান’-এর মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা ব্র্যান্ডটিতে ইন্টার্নশিপ করার সুযোগ পাবেন। এর ফলে শিক্ষার্থীরা নিজেদের সমৃদ্ধ করার সুযোগ পাবেন। অন্যদিকে, ব্র্যান্ডটিও তরুণদের পছন্দ-অপছন্দ বোঝার ক্ষেত্রে আরো এক ধাপ এগিয়ে যাবে এবং ভবিষ্যৎ পথচলা আরো মসৃণ হবে।
বাংলাদেশের জনসংখ্যার প্রায় ২৭ শতাংশই বয়সে তরুণ, সংখ্যার হিসেবে যা প্রায় সাড়ে ৪ কোটি। স্মার্টফোন কেনার ক্ষেত্রে তরুণরা দাম, ফোনের পারফরম্যান্স, ডিজাইন, ব্যবহার উপযোগী কিনা, ইউজার ইন্টারফেস ভালো লাগছে কি না, এমন অনেক কিছুর ওপর গুরুত্ব দেয়। তরুণ প্রজন্ম ফোনে গেমস খেলতে ভালোবাসে। তাই ফোনে কতক্ষণ চার্জ থাকবে, কত দ্রুত ফোন চার্জ করা যাবে, এসব বিষয়ের দিকেও খেয়াল রাখে। তরুণ প্রজন্মের বিভিন্ন চাহিদাকে বিবেচনায় নিয়ে সাশ্রয়ী দামের ফোনে হাই-এন্ড ফিচার আনছে রিয়েলমি। সম্প্রতি স্মার্টফোন ব্যবহারের অভিজ্ঞতা আরো উন্নত করতে রিয়েলমি নিয়ে এসেছে ২৪০ ওয়াটের চার্জিং প্রযুক্তি