Saturday, September 23, 2023
Homeচিকিৎসালিঙ্গভিত্তিক সহিংসতায় ৫৫ শতাংশই দায়ী বন্ধু-সহপাঠী: গবেষণা

লিঙ্গভিত্তিক সহিংসতায় ৫৫ শতাংশই দায়ী বন্ধু-সহপাঠী: গবেষণা

Published on

সাম্প্রতিক সংবাদ

উদ্যোগ নেয়া হোক কার্যকরী

বাংলাদেশ এখনো রোহিঙ্গা সংকটের একটি স্থায়ী সমাধানের আশা রাখছে। রোহিঙ্গাদের দীর্ঘদিন বহন করার মতো...

নির্বাচন বাধাগ্রস্তকারী বাংলাদেশিদের ওপর ভিসা নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র

প্রতিদিনের ডেস্ক ধারণা করা হচ্ছিল, আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন পর্যন্ত অপেক্ষা করবে যুক্তরাষ্ট্র। কিন্তু...

ধানক্ষেতে পোকার আক্রমণ: যা বিষেও মরছে না, দিশেহারা কৃষক

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি আমন ধান পরিচর্যায় ব্যস্ত সময় পার করছেন কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার কৃষকরা। তবে এবার...

চৌগাছায় ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় দ্বিতল ভবন, দূর্ঘটনার আশংকা

চৌগাছা সংবাদদাতা যশোরের চৌগাছা বাজারে জরাজীর্ণ একটি দ্বিতল ভবন চরম ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে। পৌর কর্তৃপক্ষ...

প্রতিদিনের ডেস্ক॥ দেশে লিঙ্গভিত্তিক সহিংসতা দিন দিন ভয়াবহ আকারে বাড়ছে। আর এ লিঙ্গভিত্তিক সহিংসতার জন্য নির্যাতনের শিকার শতকরা ৫৫ দশমিক ২০ ভাগই বন্ধু বা সহপাঠীকে দায়ী করেন। গবেষণায় দেখা গেছে, সমাজে শতকরা ৩৯ ভাগ কিশোরী মানসিক নির্যাতনের শিকার হচ্ছে, এছাড়াও ৩২ ভাগ শারীরিক নির্যাতন, ১৪ ভাগ যথাক্রমে যৌন এবং অর্থনৈতিক নির্যাতনের শিকার হচ্ছে।
সোমবার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর হোটেল সিক্স সিজনে এডুকো বাংলাদেশ আয়োজিত ‘বাংলাদেশে কিশোরীদের ওপর জেন্ডারভিত্তিক সহিংসতা এবং তার প্রভাব’ শীর্ষক গবেষণা ফলাফল উপস্থাপন অনুষ্ঠানে এসব তথ্য জানানো হয়। অনুষ্ঠানে প্যানেল আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় কন্যাশিশু অ্যাডভোকেসি ফোরামের সেক্রেটারি নাছিমা আক্তার জলি, জেন্ডার এক্সপার্ট শীপা হাফিজা, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সোশ্যাল ওয়ার্ক বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেন।
অনুষ্ঠানে জানানো হয়, কিশোরীদের ওপর জেন্ডারভিত্তিক সহিংসতা নিয়ে ঢাকা শহর, ময়মনসিংহ ও ঠাকুরগাঁও জেলায় এ গবেষণা পরিচালনা করে অ্যাডুকো বাংলাদেশ।
গবেষণায় দেখা গেছে, শতকরা ৫৪ দশমিক ৯ ভাগ উত্তর দাতারা মনে করে বাল্যবিয়ে হলো সবচেয়ে ভয়াবহ প্রকারের জেন্ডারভিত্তিক সহিংসতা। শতকরা ৫৫ দশমিক ২০ ভাগ উত্তরদাতা বন্ধু বা সহপাঠীকে, ৪১ দশমিক ৮০ ভাগ উত্তরদাতা প্রতিবেশীকে এবং ২৯ দশমিক ৭০ ভাগ উত্তরদাতা নিকটতম আত্মীয়কে জেন্ডারভিত্তিক সহিংসতার জন্য দায়ী করে।
এসময় এডুকো বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর আব্দুল হামিদ বলেন, জেন্ডারভিত্তিক সহিংসতা আমাদের কিশোরীদের ওপর শারীরিক ও মানসিকভাবে মারাত্মক নেতিবাচক প্রভাব ফেলে। যার ফলে কোনো কোনো ক্ষেত্রে তাদের ভবিষ্যৎ অনিশ্চয়তার দিকে ধাবিত হয়। এডুকো বাংলাদেশ তাদের বিভিন্ন কার্যক্রমের মাধ্যমে এ সব কিশোরীদের দক্ষতা ও ক্ষমতায়নে জন্য মাঠ পর্যায়ে কাজ করছে।
জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান ড. কামাল উদ্দিন আহমেদ বলেন, শিশুর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের পাশাপাশি অনলাইন নির্যাতনও বেড়ে যাচ্ছে অনেক। তার কারণ হিসেবে অধিক পরিমাণ ডিভাইসের ব্যবহার দায়ী।
অনুষ্ঠানে এডুকোর কিশোর-কিশোরী ক্লাবের প্রেসিডেন্ট আনিকা বলেন, আমার বিয়ে আমিই প্রতিরোধ করেছি ১০৯৮ এ কল করার মাধ্যমে। আমি এখন ব্যবসা করে আয় করি এবং পরিবারের পাশে দাঁড়াতে পারছি। এখন আমার পরিবারে আমার মতামত গুরুত্ব দেন এবং ভবিষ্যতে আমি আরও ভালো করতে পারবো বলে আমার পরিবার বিশ্বাস করে। আমি চাই আমার মতো সব মেয়ে বাল্যবিবাহ থেকে মুক্তি পেয়ে একটি সুন্দর জীবন গড়ার সুযোগ পাক।
সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ও জাতীয় উন্নয়ন সংস্থার বিশেষজ্ঞ ব্যক্তি, গবেষক, গবেষণায় অংশগ্রহণকারী কিশোরী এবং বিভিন্ন মিডিয়ার প্রতিনিধি। অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথিরা এডুকো বাংলাদেশের শিশুদের উন্নয়ন ও বিকাশে কর্যক্রমসমূহ নিয়ে তাদের মূল্যবান মতামত ও ভবিষ্যৎ দিকনির্দেশনা দেন।

spot_img
spot_img

এধরণের সংবাদ আরো পড়ুন

খুলনায় একদিনে হাসপাতালে ৩৭১ ডেঙ্গু রোগী

খুলনা প্রতিনিধি খুলনা বিভাগে বেড়েই চলেছে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে...

ডেঙ্গুতে আরও ১৭ মৃত্যু, হাসপাতালে ভর্তি ৩০৮৪

প্রতিদিনের ডেস্ক॥ ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে।...

ডেঙ্গুতে একদিনে আরও ১৭ জনের মৃত্যু

প্রতিদিনের ডেস্ক॥ ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে...