Friday, October 7, 2022
হোম আন্তর্জাতিকপ্রেমিকাকে খুশি করতে ৭ কোটি টাকা ‘চুরি’

প্রেমিকাকে খুশি করতে ৭ কোটি টাকা ‘চুরি’

Published on

সাম্প্রতিক সংবাদ

টুইটে একাধিক মিডিয়া ফাইল যুক্ত করার সুবিধা চালু

বার্তাকক্ষ টুইট বার্তায় একত্রে ছবি, ভিডিও ও গ্রাফিকস ইন্টারচেঞ্জ ফরম্যাট (জিআইএফ) যুক্তের সুবিধা চালুর বিষয়ে...

ব্যবহারকারীদের ফিড পোস্ট নিয়ন্ত্রণের সুবিধা দিচ্ছে ফেসবুক

বার্তাকক্ষ বিভিন্ন সংকট, ব্যবহারকারীদের আগ্রহ হারিয়ে ফেলাসহ তুমুল প্রতিযোগিতার মুখে ক্রমাগত মুনাফা হারাচ্ছে মেটা মালিকানাধীন...

গ্লো ভিডিও ডিভাইস বাজারজাত বন্ধ করছে অ্যামাজন

বার্তাকক্ষ এক বছর আগে শিশুদের সহজে ভিডিও কলিংয়ের সুবিধা প্রদানে গ্লো নামের ডিভাইস বাজারজাত করেছিল...

চিনির দাম বাড়লেও কমেনি তেলের

বার্তাকক্ষ চিনিতে ৬ টাকা বাড়িয়ে ও পাম তেলে ৮ টাকা কমিয়ে নতুন দর নির্ধারণ করে...

বার্তাকক্ষ
কথায় বলে, ভালোবাসা অন্ধ। কিন্তু অন্ধপ্রেম যে কত বড় বিপদ ডেকে আনতে পারে, তা হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছেন ভারতের এক ব্যাংক ম্যানেজার। প্রেমিকার জন্য বিরাট অংকের আর্থিক অনিয়মের অভিযোগে জেলে রয়েছেন তিনি। পুলিশের বরাতে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, অভিযুক্তের নাম হরি শংকর। বেঙ্গালুরুর হনুমন্তনগরের একটি রাষ্ট্রায়ত্ত্ব ব্যাংকের ম্যানেজার তিনি। সম্প্রতি ডেটিং অ্যাপে এক তরুণীর সঙ্গে আলাপ হয়েছিল শংকরের। ধীরে ধীরে তাদের সম্পর্ক গভীর হয়। আর তারপরই ব্যাংক থেকে মোটা টাকা হাতিয়ে প্রেমিকার সামনে ‘হিরো’ হওয়ার চেষ্টা করেন সেই ব্যক্তি। ওই ব্যাংকের জোনাল ম্যানেজারের অভিযোগ, আর্থিক অনিয়মের মাধ্যমে ৫ কোটি ৭০ লাখ রুপি (৬ কোটি ৭৬ লাখ টাকা প্রায়) তুলে নিয়েছেন ব্যাংক ম্যানেজার শংকর। ঘটনাটি ঘটেছে গত ১৩ থেকে ১৯ মে’র মধ্যে। এতে শংকর একা নয়, সাহায্য করেছেন ব্যাংকের দুই সহকর্মী কৌশল্যা এবং মুনিরাজুও। ব্যাংক থেকে অর্থ লোপাটের অভিযোগে এরই মধ্যে গ্রেফতার করা হয়েছে শংকরকে। আপাতত ১০ দিনের জন্য পুলিশি হেফাজতে রয়েছেন অভিযুক্ত। জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে তার দুই সহকর্মীকেও। পুলিশ জানিয়েছে, এক নারী গ্রাহক ওই ব্যাংকে ১ কোটি ৩০ লাখ রুপি ফিক্সড ডিপোজিট করেছিলেন, যা দেখিয়ে ৭৫ লাখ রুপি লোন নেন। এর জন্য প্রয়োজনীয় সব কাগজপত্র ব্যাংকে জমা দিয়েছিলেন তিনি। অভিযোগ, সেই কাগজপত্র এবং ফিক্সড ডিপোজিটকে কাজে লাগিয়েই প্রতারণার ছক কষেন শংকর। গ্রাহকের ওই অর্থকে সিকিউরিটি হিসেবে রেখে ৫ কোটি ৭০ লাখ রুপি তুলে নেওয়া হয় ওই ব্যাংক থেকে। এই অর্থ কয়েক ভাগে ভাগ করে পশ্চিমবঙ্গ-কর্ণাটকের বিভিন্ন শহরের মোট ২৮টি আলাদা আলাদা ব্যাংক অ্যাকাউন্টে রেখে দেওয়া হয়। পুলিশ জানতে পেরেছে, এই বিপুল অর্থ সরাতে মোট ১৩৬ বার ব্যাংক লেনদেন করা হয়েছিল। আর সেই কাজে শংকরকে সাহায্য করেন ওই দুই সহকর্মী। তবে তাদের জোর করে এ কাজ করানো হয়েছে কি না, তা জানতে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। যদিও নিজের বিরুদ্ধে ওঠা সব অভিযোগই অস্বীকার করেছেন শংকর। তার দাবি, ডেটিং অ্যাপে তরুণীর সঙ্গে আলাপের লোভ দেখিয়ে তার থেকে এই বিরাট অংকের অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে সাইবার অপরাধীরা। অভিযুক্তের এই বয়ানও খতিয়ে দেখছে পুলিশ।
সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

spot_img
spot_img

এধরণের সংবাদ আরো পড়ুন

স্নায়ুযুদ্ধের পর প্রথমবার পারমাণবিক বিপর্যয়ের ঝুঁকিতে বিশ্ব: বাইডেন

বার্তাকক্ষ ইউক্রেনে পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার নিয়ে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ‘তামাশা’ করছেন না বলে সতর্ক...

জাপানি চলচ্চিত্র নির্মাতাকে ১০ বছরের কারাদণ্ড মিয়ানমারের

বার্তাকক্ষ কুবোতার মুক্তির আহ্বান জাপানি নাগরিকদের জান্তা শাসিত মিয়ানমারের আদালত জাপানের এক চলচ্চিত্র নির্মাতাকে ১০...

থাইল্যান্ডে ডে কেয়ার সেন্টারে গুলি, শিশুসহ নিহত ৩৪

বার্তাকক্ষ থাইল্যান্ডের একটি ডে কেয়ার সেন্টারে (শিশু দিবাযত্ন কেন্দ্র) সাবেক এক পুলিশ কর্মকর্তার এলোপাতাড়ি গুলিতে...