Friday, October 7, 2022
হোম আজকের পত্রিকাঅভিনব পদ্ধতিতে কাটা হচ্ছে পাকা সড়কের মূল্যবান গাছ

অভিনব পদ্ধতিতে কাটা হচ্ছে পাকা সড়কের মূল্যবান গাছ

Published on

সাম্প্রতিক সংবাদ

পদ্মা সেতু পার হতে ১৭ গাড়ির টোল দিলেন শেখ রেহানা

বার্তাকক্ষ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানাতে গোপালগঞ্জ যাত্রায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার...

স্মার্ট টিভি ব্যবহারে যেসব সতর্কতা মানতে হবে

বার্তাকক্ষ মাঝে মাঝেই বিভিন্ন জায়গায় স্মার্টফোন, হেডফোন এমনকি টিভি বিস্ফোরণের খবরও শোনা যায়। অনেক সময়...

ফিটনেসবিহীন গাড়ি: বিআরটিএ’র অভিযান নিয়ে প্রশ্ন

বার্তাকক্ষ দেশের এখন ফিটনেসবিহীন গাড়ির সংখ্যা কত এর সঠিক কোনও সংখ্যা নেই সরকারের হাতে। কয়েকটি...

খুব শিগগির বাজারে আসবে অদৃশ্য হওয়ার জ্যাকেট

বার্তাকক্ষ হ্যারি পটার থেকে শুরু করে স্টার টেক। কিংবা প্রাচীন রূপকথার সেই ডাইনির অদৃশ্য হওয়ার...

এহসান জামিল, চৌগাছা

যশোরের চৌগাছায় গাছখেকোদের কোনক্রমেই থামানো যাচ্ছেনা। বিভিন্ন পাকা সড়কে কৌশলে গাছ কাটা অব্যহত রেখেছে। প্রশাসন ও আইন শৃংখলা বাহিনীর চোখ ফাঁকি দিয়ে গাছ কাটার চালানো হচ্ছে। নির্বিচারে গাছ নিধনের ফলে পুলিশ বাহিনী, বনবিভাগ ও প্রশাসনের আশু দৃষ্টি কামনা করেছেন এলাকার সচেতন মানুষ। জানা গেছে, চৌগাছা-কোটচাঁদপুর, চৌগাছা-যশোর, চৌগাছা-ঝিকরগাছা, চৌগাছা-মহেশপুর পাকা রাস্তার দু’পাশে এক দেড় দশক আগে জেলা পরিষদের কয়েক হাজার বিভিন্ন প্রজাতির বনজ গাছ রোপন করা হয়। গাছগুলো এখন অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। অধিকাংশ গাছের মূল্য প্রায় ২০ হাজার থেকে দেড় লাখ টাকা পর্যন্ত। কিন্তু স্থানীয় কতিপয় দুর্বৃত্ত গাছখেকোরা সঙ্ঘবদ্ধ হয়ে রাতে গাছের বাঁকল চারিপাশ গোলাকৃতিভাবে কেটে দিচ্ছে। গাছের গোড়া থেকে দেড় থেকে দুই হাত উপরে এমনটি করা হচ্ছে। এমনকি গাছের গোড়ায় রাসায়নিক সার অতিমাত্রায় ব্যবহার করা হচ্ছে। সেই সাথে দেয়া হচ্ছে লবন। এসব পদ্ধতির ফলে ধীরেধীরে কিছুদিনের মধ্যে গাছ শুকিয়ে মারা যায়। পরবর্তীতে ওই গাছ রাতে মেরে বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করা হয় বলে একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে।
সরজমিন গাছ পরিদর্শনে গেলে দুর্বৃত্তদের নিষ্ঠুরতার প্রমান পাওয়া যায়। চৌগাছা-মহেশপুর পাকা সড়কের চাঁদপাড়া বাজার থেকে ফাঁসতলা পর্যন্ত প্রায় দুই কিলোমিটার এলাকায় কমপক্ষে ১৫টি রেইনটি কড়াই গাছ কাটা হয়েছে। প্রতিটি গাছ প্রায় ৩০ হাজার থেকে লক্ষাধিক টাকার মূল্য রয়েছে। দেখা গেছে, দুর্বত্তরা কিছুকিছু গাছের নিচের অংশে ১/২ ফিট উপরে গোলাকৃতিভাবে গাছের বাকল কেটে ফেলেছে। গাছের ডালপালাও কেটে ফেলা হচ্ছে। এখানে ৪টি গাছ গোড়া থেকে কেটে নেয়া হয়েছে। স্থানীয়রা অভিযোগ করেন, রাস্তার পাশের জমির মালিকরা স্থানীয় গাছকাটা চক্রের মাধ্যমে এই গাছ পরিকল্পিতভাবে কাটছে। রাতের আঁধারে কৌশলে তারা গাছ কাটার সাথে যুক্ত। শুধু তাই না, এ সড়কের পৌর এলাকার ঋষিপাড়ার পাশেই একটি বড় কড়াই গাছের চারপাশের বাঁকল এমনকি গাছের কান্ড নিখুঁত ভাবে কাটা হয়। এছাড়া চৌগাছা-ঝিকরগাছা পাকা সড়কের আমজামতলা বাজারের সন্নিকটে সড়কের দু’ধারে ইতোপূর্বে ১০টি কড়াই ও সেগুন গাছ সাবাড় করে গাছখেকোরা। নাম প্রকাশের অনিচ্ছুক কয়েকজন বলেন, বাইরের লোকজন এ কাজ করতে আসিনি। স্থানীয় দুর্বৃত্তরা বিভিন্ন কৌশলে এ কাজ করছে। রাতেই সংঘবদ্ধরা দ্রুত গাছ কেটে মাঠের মধ্যে বিভিন্ন ফসলি জমিতে নিয়ে রাখে। পরবর্তীতে সুযোগ বুঝে তা বিক্রি করে। এদিকে নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায়, রাস্তার মূল্যবান গাছ কাটার জন্য রাস্তার ধারের জমির মালিকরা বেশী দায়ী। তারা এই গাছকে বিষফোঁড়া মনে করে সঙ্গবদ্ধ চক্রের সাথে আতাতের মাধ্যমে গাছ নিধন করছে। এর সাথে মিল মালিক বা কাঠ ব্যবসায়ীদের যোগাযোগ আছে বলেও অনেকে জানান। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইরুফা সুলতানার কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, রাস্তার পাশের সরকারী গাছ কেটে নেওয়া হচ্ছে বিষয়টি আমি জেনেছি। গাছগুলো সার্বক্ষণিক তত্বাবধায়নে রাখা সম্ভব হয়না। কে বা কারা এধরনের কর্মকান্ডের সাথে জড়িত বিষয়টি খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

spot_img
spot_img

এধরণের সংবাদ আরো পড়ুন

কেশবপুরে কৃষকলীগের পূজা মণ্ডপ পরিদর্শন

সোহেল পারভেজ, কেশবপুর কেশবপুর উপজেলার বিভিন্ন পূজা ম-প পরিদর্শন করেছেন কৃষকলীগে নেতৃবৃন্দ। মঙ্গলবার সংগঠনের উপজেলা,...

দেবহাটায় জাতীয় কন্যা শিশু দিবস উদ্যাপন

দেবহাটা প্রতিনিধি : ‘সময়ের অঙ্গীকার কন্যা শিশুর অধিকার’ প্রতিপ্রাদ্য নিয়ে দেবহাটায় জাতীয় কন্যাশিশু দিবস উদ্যাপন...

শার্শায় ভুল মানুষের দ্বারা রাজনীতি পরিচালিত হওয়ায় প্রকৃত নেতাকর্মীরা অত্যাচার জুলুম নির্যাতনের শিকার : আশরাফুল আলম লিটন

বেনাপোল প্রতিনিধি : যশোর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বেনাপোল পৌরসভার সাবেক মেয়র আশরাফুল...