Thursday, October 6, 2022
হোম আজকের পত্রিকাডুমুরিয়ায় মাছের ঘেরের দখল রক্ষায় সংবাদ সম্মেলন

ডুমুরিয়ায় মাছের ঘেরের দখল রক্ষায় সংবাদ সম্মেলন

Published on

সাম্প্রতিক সংবাদ

সংশ্লিষ্টদের দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিতে হবে

কিছু উন্নয়ন প্রকল্প ধীর গতির কারণে জনভোগান্তি চরমে উঠেছে। এছাড়া অপরিকল্পিত খোঁড়াখুঁড়ি তো চলছে।...

কেশবপুরে কৃষকলীগের পূজা মণ্ডপ পরিদর্শন

সোহেল পারভেজ, কেশবপুর কেশবপুর উপজেলার বিভিন্ন পূজা ম-প পরিদর্শন করেছেন কৃষকলীগে নেতৃবৃন্দ। মঙ্গলবার সংগঠনের উপজেলা,...

দেবহাটায় জাতীয় কন্যা শিশু দিবস উদ্যাপন

দেবহাটা প্রতিনিধি : ‘সময়ের অঙ্গীকার কন্যা শিশুর অধিকার’ প্রতিপ্রাদ্য নিয়ে দেবহাটায় জাতীয় কন্যাশিশু দিবস উদ্যাপন...

শার্শায় ভুল মানুষের দ্বারা রাজনীতি পরিচালিত হওয়ায় প্রকৃত নেতাকর্মীরা অত্যাচার জুলুম নির্যাতনের শিকার : আশরাফুল আলম লিটন

বেনাপোল প্রতিনিধি : যশোর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বেনাপোল পৌরসভার সাবেক মেয়র আশরাফুল...

ডুমুরিয়া (খুলনা) প্রতিনিধি

খুলনার ডুমুরিয়ায় মাছের ঘেরের দখল রক্ষায় সংবাদ সম্মেলন করেছেন আরশনগর গ্রামের আমজাদ হোসেন নামে এক ব্যক্তি।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, উপজেলার চন্ডিপুর মৌজার ১৯জন জমির মালিকের কাছ থেকে ২০২৫ সাল পর্যন্ত ১০ বছরের জন্য ১৩ একর জমি লীজ নিয়ে হামারের বিলে মাছের ব্যবসা করছেন। নিয়মিত জমির মালিকদের লিজের টাকাও টাকা পরিশোধ করে আসছেন। কিন্তু এরমধ্যে আরশনগর গ্রামের আলমগীর হোসেন জমির মালিকদেরকে বেশি টাকা দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে তার ঘের লীজ নেয়ার চুক্তিপত্র করেছেন। এরপর তাকে ঘের থেকে উচ্ছেদ করার পাঁয়তারা চালাচ্ছে। কিন্তু তার সাথে করা জমির মালিকদের চুক্তিপত্র মোতাবেক তিনি এখনও ৩বছর ৬মাস ঘেরের বৈধ মালিক। কিন্তু আলমগীর হোসেন অবৈধভাবে তার মৎস্য ঘেরটি চুক্তিপত্র করে নিয়ে তাকে উচ্ছেদের পাঁয়তারা চালাচ্ছেন। তিনি ওই মৎস্য ঘেরে বেড়িবাঁধ নির্মাণ, বিভিন্ন জাতের মাছের পোনা ছাড়াসহ অনেক টাকা বিনিয়োগ করেছেন। এখন তাকে ঘের থেকে উচ্ছেদ করা হলে একদিকে তিনি আর্থিকভাবে যেমন ক্ষতিগ্রস্থ হবেন। এব্যাপারে আইনগত প্রতিকার পেতে ইতোমধ্যে তিনি খুলনা বিভাগীয় কমিশনার, খুলনা রেঞ্জ ডিআইজি, জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন।
সংবাদ সম্মেলনে তিনি চুক্তিপত্রের মেয়াদ অর্থাৎ ২০২৫ সালের ৩০শে ডিসেম্বর পর্যন্ত মৎস্য ঘেরটি পরিচালনা করার সুযোগ দেয়ার দাবি জানান।
সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ২০২১ সাল পর্যন্ত হারির টাকা পরিশোধ আছে। উপরন্তু কয়েকজন জমির মালিক মালিক ২০২৫ সালের হারির টাকা অগ্রীম নিয়েছেন। মৎস্য ঘের বাবদ ২০২৫ সাল পর্যন্ত মাগুরাঘোনা ইউনিয়ন পরিষদের ট্যাক্সও পরিশোধ করা আছে।
এব্যাপারে আলমগীর হোসেন বলেন, আমজাদ হোসেনের সাথে আমার কোন বিরোধ নেই। জমির মালিকরা তাকে জমি লীজ চুক্তিপত্র করে দিয়েছেন। একারণে তিনি ঘেরটি করছেন।

spot_img
spot_img

এধরণের সংবাদ আরো পড়ুন

কেশবপুরে কৃষকলীগের পূজা মণ্ডপ পরিদর্শন

সোহেল পারভেজ, কেশবপুর কেশবপুর উপজেলার বিভিন্ন পূজা ম-প পরিদর্শন করেছেন কৃষকলীগে নেতৃবৃন্দ। মঙ্গলবার সংগঠনের উপজেলা,...

দেবহাটায় জাতীয় কন্যা শিশু দিবস উদ্যাপন

দেবহাটা প্রতিনিধি : ‘সময়ের অঙ্গীকার কন্যা শিশুর অধিকার’ প্রতিপ্রাদ্য নিয়ে দেবহাটায় জাতীয় কন্যাশিশু দিবস উদ্যাপন...

শার্শায় ভুল মানুষের দ্বারা রাজনীতি পরিচালিত হওয়ায় প্রকৃত নেতাকর্মীরা অত্যাচার জুলুম নির্যাতনের শিকার : আশরাফুল আলম লিটন

বেনাপোল প্রতিনিধি : যশোর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বেনাপোল পৌরসভার সাবেক মেয়র আশরাফুল...