Thursday, October 6, 2022
হোম আজকের পত্রিকাচাকরি দেয়ার নামে ৮ লাখ টাকা আত্মসাত : শ্বশুর ও ভাইরার নামে...

চাকরি দেয়ার নামে ৮ লাখ টাকা আত্মসাত : শ্বশুর ও ভাইরার নামে মামলা

Published on

সাম্প্রতিক সংবাদ

সংশ্লিষ্টদের দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিতে হবে

কিছু উন্নয়ন প্রকল্প ধীর গতির কারণে জনভোগান্তি চরমে উঠেছে। এছাড়া অপরিকল্পিত খোঁড়াখুঁড়ি তো চলছে।...

কেশবপুরে কৃষকলীগের পূজা মণ্ডপ পরিদর্শন

সোহেল পারভেজ, কেশবপুর কেশবপুর উপজেলার বিভিন্ন পূজা ম-প পরিদর্শন করেছেন কৃষকলীগে নেতৃবৃন্দ। মঙ্গলবার সংগঠনের উপজেলা,...

দেবহাটায় জাতীয় কন্যা শিশু দিবস উদ্যাপন

দেবহাটা প্রতিনিধি : ‘সময়ের অঙ্গীকার কন্যা শিশুর অধিকার’ প্রতিপ্রাদ্য নিয়ে দেবহাটায় জাতীয় কন্যাশিশু দিবস উদ্যাপন...

শার্শায় ভুল মানুষের দ্বারা রাজনীতি পরিচালিত হওয়ায় প্রকৃত নেতাকর্মীরা অত্যাচার জুলুম নির্যাতনের শিকার : আশরাফুল আলম লিটন

বেনাপোল প্রতিনিধি : যশোর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বেনাপোল পৌরসভার সাবেক মেয়র আশরাফুল...

নিজস্ব প্রতিবেদক

মাদ্রাসায় সহকারি শিক্ষক পদে চাকরি দেয়ার নামে ৮ লাখ টাকা আত্মসতের অভিযোগে শ্বশুর ও ভাইরা ভাইয়ের নামে যশোর আদালতে মামলা করেছেন এক ব্যক্তি। রোববার সদরের হাটবিলা গ্রামের ইসরাইল হোসেনের ছেলে আজগর আলী এ মামলা করেন। সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মঞ্জুরুল ইসলাম অভিযোগের তদন্ত করে ডিবি পুলিশকে প্রতিবেদন জমা দেয়ার আদেশ দিয়েছেন। আসামিরা হলেন, সদরের সিরাজসিঙ্গা গ্রামের জহির উদ্দিন গাজীর ছেলে আব্দুল হালিম ও চৌগাছার আন্দারকোটা গ্রামের মঞ্জুরুল হকের ছেলে সাইদুর রহমান চয়ন।
জানা গেছে, আজগর আলীর শ্বশুর আসামি আব্দুল হালিম ও ভাইরা ভাই সাইদুর রহমান চয়ন। তিনি ডাচ বাংলা ব্যাংকের রাজারহাট এজেন্ট ব্যাংকে কর্মরত আছেন। শ্বশুর আব্দুল হালিম কুয়াদা দারুস সুন্নাহ ফালিজ মাদ্রসার সহসভাপতি নির্বচিত হয়েছেন। ভাইরা ভাই সাইদুর ও আব্দুল হালিম তার জামাই আজগর আলীকে তার মাদ্রাসায় সহকারি শিক্ষক পদে নিয়োগ দিবেন বলেন ৮ লাখ টাকা দাবি করেন। শ্বশুর ও ভাইরা ভাইয়ের প্রস্তাবে রাজি হয়ে আজগর আলী ২০২১ সালের ১৮ আগস্ট তাদের ৫ লাখ টাকা ও একটি দরখাস্তসহ বায়োডাটা দেন। ওই বছরের ৪ নভেম্বর আসামিরা তার বাড়িতে গিয়ে আরও ৩ লাখ টাকা নিয়ে আসেন এবং চলতি বছরের ২ জানুয়ারি মাদ্রাসায় যোগদান করবে বলে জানিয়ে আসেন। এদিন, মাদ্রসায় যোগদান করতে গিয়ে আজগর আলী জানতে পারেন এ মাদ্রাসায় কোন শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি দেয়া হয়নি। পরে তিনি শ্বশুর ও ভাইরা ভাইয়ের কাছে টাকা ফেরত চাইলে না দিয়ে ঘোরাতে থাকেন। গত ২৪ জুন আসামিদের শ্বশুর বাড়িতে গিয়ে টাকা ফেরত চাইলে দিতে অস্বীকার করে ভয়ভীতি দেখিয়ে তাড়িয়ে দেন। স্থানীয়ভাবে বিষয়টি মীমাংসায় ব্যর্থ হয়ে তিনি আদালতে এ মামলা করেছেন।

spot_img
spot_img

এধরণের সংবাদ আরো পড়ুন

কেশবপুরে কৃষকলীগের পূজা মণ্ডপ পরিদর্শন

সোহেল পারভেজ, কেশবপুর কেশবপুর উপজেলার বিভিন্ন পূজা ম-প পরিদর্শন করেছেন কৃষকলীগে নেতৃবৃন্দ। মঙ্গলবার সংগঠনের উপজেলা,...

দেবহাটায় জাতীয় কন্যা শিশু দিবস উদ্যাপন

দেবহাটা প্রতিনিধি : ‘সময়ের অঙ্গীকার কন্যা শিশুর অধিকার’ প্রতিপ্রাদ্য নিয়ে দেবহাটায় জাতীয় কন্যাশিশু দিবস উদ্যাপন...

শার্শায় ভুল মানুষের দ্বারা রাজনীতি পরিচালিত হওয়ায় প্রকৃত নেতাকর্মীরা অত্যাচার জুলুম নির্যাতনের শিকার : আশরাফুল আলম লিটন

বেনাপোল প্রতিনিধি : যশোর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বেনাপোল পৌরসভার সাবেক মেয়র আশরাফুল...