Thursday, October 6, 2022
হোম আজকের পত্রিকাপ্রমত্তা পদ্মায় সেতু করাটাই ইতিহাস: প্রধানমন্ত্রী

প্রমত্তা পদ্মায় সেতু করাটাই ইতিহাস: প্রধানমন্ত্রী

Published on

সাম্প্রতিক সংবাদ

সংশ্লিষ্টদের দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিতে হবে

কিছু উন্নয়ন প্রকল্প ধীর গতির কারণে জনভোগান্তি চরমে উঠেছে। এছাড়া অপরিকল্পিত খোঁড়াখুঁড়ি তো চলছে।...

কেশবপুরে কৃষকলীগের পূজা মণ্ডপ পরিদর্শন

সোহেল পারভেজ, কেশবপুর কেশবপুর উপজেলার বিভিন্ন পূজা ম-প পরিদর্শন করেছেন কৃষকলীগে নেতৃবৃন্দ। মঙ্গলবার সংগঠনের উপজেলা,...

দেবহাটায় জাতীয় কন্যা শিশু দিবস উদ্যাপন

দেবহাটা প্রতিনিধি : ‘সময়ের অঙ্গীকার কন্যা শিশুর অধিকার’ প্রতিপ্রাদ্য নিয়ে দেবহাটায় জাতীয় কন্যাশিশু দিবস উদ্যাপন...

শার্শায় ভুল মানুষের দ্বারা রাজনীতি পরিচালিত হওয়ায় প্রকৃত নেতাকর্মীরা অত্যাচার জুলুম নির্যাতনের শিকার : আশরাফুল আলম লিটন

বেনাপোল প্রতিনিধি : যশোর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বেনাপোল পৌরসভার সাবেক মেয়র আশরাফুল...

বার্তাকক্ষ

পৃথিবীর অন্যতম খরস্রোতা নদী পদ্মায় নানা প্রতিকূলতার মধ্য দিয়ে সেতু নির্মাণকে একটি ‘ঐতিহাসিক ঘটনা’ হিসেবে বর্ণনা করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রোববার সচিবালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠকে তিনি এ কথা বলেন। গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে এ বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী বলেন, “এই প্রমত্তা পদ্মার বুকে সেতু তৈরি করাটাই একটি ইতিহাস। সেক্ষেত্রে অর্থমন্ত্রী এবং সচিব যারা ছিলেন, অর্থ বরাদ্দে এতটুকু কার্পণ্য করেননি; বরং কীভাবে আমরা নিজেদের টাকায় করতে পারি, সে জিনিসটি আরও সহজ করে দিয়েছেন।” সে জন্য অর্থমন্ত্রণালয়সহ মন্ত্রিপরিষদের সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে সরকারপ্রধান বলেন, ২০১২ সাল থেকেই তো এই যুদ্ধ শুরু। কত অপবাদ, ষড়যন্ত্র এর জন্য মোকাবিলা করতে হয়েছে। আর সবথেকে দুঃখজনক যে আরও আগে সেতুর কাজ শুরু করা গেলে আরও আগেই শেষ করা সম্ভব হত। “আরেকটি বিষয় আমার কাছে অবাক লাগে- আমাদের কিছু অর্থনীতিবিদ এবং জ্ঞানী-গুণীরা যে বলেছিল, এটা ভায়াবল হবে না, কে এখান থেকে চলবে, কোনো টাকা উঠবে না। কিন্তু এখন কী দেখা যাচ্ছে?” পদ্মা সেতু হওয়ায় মানুষের জীবন ও জীবিকার আমূল পরিবর্তন ঘটবে মন্তব্য করে তিনি বলেন, “বঙ্গবন্ধু যমুনা সেতু তৈরির আগে প্রতিবছরই উত্তরবঙ্গে মঙ্গা দেখা দিত, অথচ এই একটি সেতু নির্মাণের পর সেখানের মঙ্গা আর নেই। “সেখানে পদ্মা সেতুর দক্ষিণাঞ্চলের সঙ্গে সরাসরি সাপ্লাই চেইন স্থাপনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। ইলিশের মওসুম এসে যাওয়ায় রাজধানীতে বসেই তাজা ইলিশ প্রাপ্তিও সম্ভব হবে, অন্যদিকে জেলেরাও লাভবান হবে।” প্রধানমন্ত্রী নিজে গত ২৫ জুন দক্ষিণ জনপদের মানুষের স্বপ্নের পদ্মা সেতুর উদ্বোধন করেন। রোববার মন্ত্রিসভার বৈঠকে তিনি এ সেতুকে ‘দেশের জনগণের ভাগ্য পরিবর্তনের মাইলফলক’ হিসেবে বর্ণনা করেন। সেতু নির্মাণের শুরুতে বিশ্ব ব্যাংকের দুর্নীতির অভিযোগের প্রসঙ্গ টেনে সরকারপ্রধান বলেন, “এটা কখনোই গ্রহণযোগ্য ছিল না এবং এরপরেই ঘোষণা দিলাম, নিজের টাকাতেই পদ্মা সেতু করব, অন্যের টাকা নেব না।” বৈঠকের শুরুতে প্রধানমন্ত্রী সকলকে শুভেচ্ছা জানান। মন্ত্রিপরিষদের সহকর্মী এবং কর্মকর্তাদের শুভেচ্ছার উত্তরে শেখ হাসিনা বলেন, এই শুভেচ্ছা আমার দেশের জনগণের জন্য। আমার জন্য নয়, বাংলাদেশের মানুষের জন্য। পদ্মা সেতু নির্মাণে দেশবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে তিনি বলেন, “এর সব কৃতিত্ব বাংলাদেশের জনগণের। এভাবে আমার পাশে দাঁড়ানোর জন্য আমি বাংলাদেশের জনগণের কাছে সত্যিই কৃতজ্ঞ। তাদের শক্তি (আমার জন্য) সবচেয়ে বড় শক্তি।

spot_img
spot_img

এধরণের সংবাদ আরো পড়ুন

কেশবপুরে কৃষকলীগের পূজা মণ্ডপ পরিদর্শন

সোহেল পারভেজ, কেশবপুর কেশবপুর উপজেলার বিভিন্ন পূজা ম-প পরিদর্শন করেছেন কৃষকলীগে নেতৃবৃন্দ। মঙ্গলবার সংগঠনের উপজেলা,...

দেবহাটায় জাতীয় কন্যা শিশু দিবস উদ্যাপন

দেবহাটা প্রতিনিধি : ‘সময়ের অঙ্গীকার কন্যা শিশুর অধিকার’ প্রতিপ্রাদ্য নিয়ে দেবহাটায় জাতীয় কন্যাশিশু দিবস উদ্যাপন...

শার্শায় ভুল মানুষের দ্বারা রাজনীতি পরিচালিত হওয়ায় প্রকৃত নেতাকর্মীরা অত্যাচার জুলুম নির্যাতনের শিকার : আশরাফুল আলম লিটন

বেনাপোল প্রতিনিধি : যশোর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বেনাপোল পৌরসভার সাবেক মেয়র আশরাফুল...