Wednesday, December 7, 2022
হোম খেলাএক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জিতলো নিউজিল্যান্ড

এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জিতলো নিউজিল্যান্ড

Published on

সাম্প্রতিক সংবাদ

সময়োপযোগী পদক্ষেপ নেয়া প্রয়োজন

বায়ুদূষণ পরিবেশ ও মানব স্বাস্থ্যের জন্য হুমকি হয়ে দাঁড়িয়েছে। বায়ুদূষণের অন্যতম উৎস হচ্ছে ধুলাবালি।...

মৈত্রী দিবসের আলোচনায় প্রণয় ভার্মা বাংলাদেশের সঙ্গে মৈত্রীতে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেয় ভারত

বার্তাকক্ষ বাংলাদেশের সঙ্গে মৈত্রীর ক্ষেত্রে ভারত সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিয়ে থাকে বলে জানিয়েছেন ঢাকায় নিযুক্ত...

স্কুলে ভর্তি: সরকারিতে এক আসনে ছয় আবেদন, বেসরকারির অধিকাংশ ফাঁকা

বার্তাকক্ষ সরকারি-বেসরকারি স্কুল ভর্তির আবেদন শেষ হয়েছে। সরকারি স্কুলে আসন প্রতি প্রায় ছয়জন করে...

আফগানিস্তানে বোমা বিস্ফোরণে নিহত ৭

বার্তাকক্ষ উত্তর আফগানিস্তানের সবচেয়ে বড় শহরে রাস্তার পাশে পুঁতে রাখা বোমা বিস্ফোরণে অন্তত সাত...

বার্তাকক্ষ
প্রথম ম্যাচটা বেশ কঠিনই ছিল নিউজিল্যান্ডের জন্য। আইরিশদের করা ৩০০ রানের জবাবে শেষ মুহূর্তে ব্রেসওয়েল যদি রুখে না দাঁড়াতেন, তাহলে নিশ্চিত পরাজয়ই লেখা হতো তাদের। শেষ পর্যন্ত ১ বল হাতে রেখে ১ উইকেটের জয়ে স্বস্তি নিয়ে মাঠ ছেড়েছিল তারা। সে তুলনায় মঙ্গলবার দ্বিতীয় ম্যাচটা ছিল সহজ। আইরিশদের করা ২১৬ রানের জবাবে ৩৮.১ ওভারেই জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যায়। তবে মাত্র ৩ উইকেটের ব্যবধানে। অর্থ্যাৎ, ২১৬ রান পাড়ি দিতেও কিউইদের ৭টি উইকেট পড়ে গিয়েছিল। ডাবলিনের মালাহাইডে টস হেরে ব্যাট করতে নামে আয়ারল্যান্ড। শুরুতেই বিপদে পড়ে তারা। ৫ রানে হারায় দুই ওপেনারকে। ৩২ রানে হারায় তৃতীয় উইকেট।
তবে মিডল অর্ডারে জর্জ ডকরেলের দৃঢ়তায় দলীয় স্কোর ২০০ পার করে স্বাগতিকরা। ডকরেল ৬১ বলে খেলেন ৭৪ রানের দারুণ এক ইনিংস। অ্যান্ডি ম্যাকব্রাইন ৪৮ বল খেলে করেন ২৮ রান। মার্ক অ্যাডিয়ার ১৫ বলে ২৭ রান করে অপরাজিত থাকেন। ৫৬ বলে ২৫ রান করেন কার্টিস ক্যাম্পার। লোরকান টাকার করেন ১৯ রান, সিমি সিং আউট হন ১৬ রান করে। শেষ পর্যন্ত ৪৮ ওভারে ২১৬ রান করে অলআউট হয়ে যায় আয়ারল্যান্ড। কিউই বোলারদের মধ্যে ম্যাট হেনরি, মিচেল ব্রেসওয়েল এবং মিচেল সান্তনার নেন ২টি করে উইকেট। জ্যাকব ডাফি এবং গ্লেন ফিলিপস নেন ১টি করে উইকেট। জবাব দিতে নেমে শুরুতেই মহা বিপদে পড়ে নিউজিল্যান্ড। কোনো রান যোগ করার আগেই ইনিংসের একেবারে প্রথম দুই বলেই দুই উইকেট হারায় কিউইরা। মার্ক অ্যাডিয়ের তো ইনিংসের একেবারে শুরুতেই হ্যাটট্রিকের দারুণ সম্ভাবনা জাগিয়ে তোলেন। কিন্তু সেই সম্ভাবনা নষ্ট করে দেন টম ল্যাথাম। তৃতীয় উইকেট জুটিতে ঘুরে দাঁড়ায় নিউজিল্যান্ড। ফিন অ্যালেন এবং টম ল্যাথাম মিলে গড়ে তোলেন ১০১ রানের জুটি। ফিন অ্যালেন এ সময় ৫৮ বলে আউট হন ৬০ রান করে। টম ল্যাথাম করেন ৭৩ বলে ৫৫ রান। হেনরি নিকোলস ১৭, গ্লেন ফিলিপস ১৬ রান করেন। মিচেল ব্রেসওয়েল অপরাজিত থেকে ৪২ রান করে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন। মোটকথা প্রথম ম্যাচের মত দ্বিতীয় ম্যাচেও নিউজিল্যান্ডের শেষের রক্ষাকর্তা ছিলেন ব্রেসওয়েল। মিচেল সান্তনার ৬ রানে আউট হন। ৩ রান করেন ম্যাট হেনরি।

spot_img
spot_img

এধরণের সংবাদ আরো পড়ুন

বিশ্বকাপে সুযোগ পাচ্ছে আরও ১৬ দল

বার্তাকক্ষ: ফুটবল বিশ্বকাপের আগামী আসরে আরও ১৬টি দল বাড়ছে। কাতারে চলমান বিশ্বকাপে ৩২টি দল অংশ...

নেইমার ভেবেছিলেন তার বিশ্বকাপ শেষ!

বার্তাকক্ষ: নেইমারের উপস্থিতি মাঠে কতটা প্রভাব ফেলে তার প্রমাণ তো দেখা গেছে। সাম্বার ছন্দে শেষ...

ব্রাজিলের কাছে হারের পর সরে দাঁড়ালেন দ. কোরিয়া কোচ

বার্তাকক্ষ: অপ্রতিরোধ্য ব্রাজিলের কাছে শেষ ষোলোয় আর পাত্তা পায়নি দক্ষিণ কোরিয়া। ৪-১ গোলে হেরে কাতার...