Saturday, December 3, 2022
হোম জাতীয়হতাশা থেকে সাংবাদিক তুলির আত্মহত্যা: পুলিশ

হতাশা থেকে সাংবাদিক তুলির আত্মহত্যা: পুলিশ

Published on

সাম্প্রতিক সংবাদ

গাড়ির নিচে নারীকে টেনে নেওয়া: ঢাবির সাবেক শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা

বার্তাকক্ষ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) চাকরিচ্যুত শিক্ষকের প্রাইভেটকারে টেনে নেওয়া রুবিনা আক্তারের মৃত্যুর ঘটনায় শাহবাগ...

পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূল নেতার বাড়িতে বিস্ফোরণ, নিহত ৩

বার্তাকক্ষ ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কাঁথিতে এক তৃণমূল নেতার বাড়িতে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার রাতের এ...

বাংলাদেশ কৃষক সংগ্রাম সমিতির নেতার মৃত্যুতে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ

নিজস্ব প্রতিবেদক ৩ ডিসেম্বর বাংলাদেশ কৃষক সংগ্রাম সমিতি অভয়নগর থানার একতারপুর গ্রামতলা কমিটির সাবেক সভাপতি...

কোভিডের নতুন ভ্যারিয়েন্টের ঝুঁকি নিয়ে সতর্কতা ডব্লিউএইচওর

বার্তাকক্ষ কোভিড মোকাবিলায় মানুষের সতর্কতা কমে যাওয়া এই ভাইরাসের মারাত্মক নতুন ভ্যারিয়েন্ট তৈরি করতে...

বার্তাকক্ষ
মানসিক হতাশা থেকে সাংবাদিক সোহানা তুলি আত্মহত্যা করেছেন। চাকরি বা ব্যবসায় আশানুরূপ সফল না পাওয়ায় তার ভেতর মানসিক হতাশা কাজ করছিল। মূলত এ কারণেই তিনি আত্মহত্যার পথ বেছে নেন বলে পুলিশ প্রাথমিক তদন্তে ধারণা করছে।
বৃহস্পতিবার (১৪ জুলাই) দুপুরে হাজারীবাগ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোক্তারুজ্জামান বলেন, ঘটনার পর আমরা সোহানা তুলির স্বজনদের সঙ্গে কথা বলেছি। তুলি মারা যাওয়ার আগে তার মানসিক হতাশার কথা ছোট ভাই মোহাইমিনুলকে জানিয়েছিলেন। বিশেষ করে চাকরি এবং ব্যবসার অবস্থা নিয়ে এ হতাশা কাজ করছিল। এ কারণেই আমরা প্রাথমিকভাবে ধরে নিচ্ছি যে তুলি আত্মহত্যা করেছেন। তার শরীরের কোথাও জখমের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। পাশাপাশি যে বাসা থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়, সেই বাসার জানালা ভেঙে কেউ ভেতরে প্রবেশ করেছে তেমন কিছু পাওয়া যায়নি। তারপরও ময়নাতদন্ত হচ্ছে। ময়নাতদন্তের পরই তার মৃত্যুর প্রকৃত কারণ আমরা জানতে পারবো বলে ধারণা করছি।
মোহাইমিনুল ইসলাম বলেন, আমি যশোর থাকি। আপুর ঘটনা শুনে ঢাকায় এসেছি। মৃত্যুর আগে তার সঙ্গে নানা বিষয় নিয়ে কথা হয়েছে। কিন্তু তিনি এভাবে সিদ্ধান্ত নেবেন তা বুঝতেও পারিনি। তাহলে আমরা আগে থেকেই ব্যবস্থা নিতাম।
পুলিশ ও নিহতের স্বজনদের সঙ্গে আলাপে জানা গেছে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ থেকে পড়াশোনা শেষ করেন তুলি। এরপর দৈনিক আমাদের সময়, কালেরকণ্ঠ এবং সর্বশেষ তিনি বাংলা ট্রিবিউনে সহ-সম্পাদক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। এরপর তিনি ট্রিবিউন থেকে চাকরি ছেড়ে দেন। এর কিছুদিন পর একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেন। সম্প্রতি একটি অনলাইন শপ খুলে নারী উদ্যোক্তা হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন তিনি।
বুধবার (১৩ জুলাই) হাজারীবাগ থানার রায়েরবাজার এলাকার একটি বাসা থেকে তুলির মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ওই বাসায় তিনি এক বান্ধবীর সঙ্গে থাকতেন।

spot_img
spot_img

এধরণের সংবাদ আরো পড়ুন

কোভিডের নতুন ভ্যারিয়েন্টের ঝুঁকি নিয়ে সতর্কতা ডব্লিউএইচওর

বার্তাকক্ষ কোভিড মোকাবিলায় মানুষের সতর্কতা কমে যাওয়া এই ভাইরাসের মারাত্মক নতুন ভ্যারিয়েন্ট তৈরি করতে...

কমতে পারে তাপমাত্রা, সাগরে লঘুচাপের আভাস

বার্তাকক্ষ আগামী ২৪ ঘণ্টায় দিন ও রাতের তাপমাত্রা কমতে পারে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ আবহাওয়া...

বিশ্ববাজারে বেড়েছে সোনার দাম

বার্তাকক্ষ গেল সপ্তাহে বিশ্বাবাজারে সোনার দামে বড় উত্থান হয়েছে। এক সপ্তাহেই প্রতি আউন্স সোনার...