Friday, October 7, 2022
হোম জাতীয়জাতীয় পরিচয়পত্রে কোটি কোটি ভুল: সিইসি

জাতীয় পরিচয়পত্রে কোটি কোটি ভুল: সিইসি

Published on

সাম্প্রতিক সংবাদ

হাসলেই কমবে ব্যথা, বাড়বে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা

বার্তাকক্ষ হাসলে মন ভালো থাকে, এ কথা সবারই জানা। তবে জানলে অবাক হবেন, হাসলে শুধু...

হেঁটেই হার্ট অ্যাটাক-ক্যানসারের ঝুঁকি কমাবেন যেভাবে

বার্তাকক্ষ শারীরিকি বিভিন্ন জটিল রোগের মধ্যে হার্ট অ্যাটাক, ক্যানসার কিংবা ডিমনেশিয়া অন্যতম। যদিও ভুল জীবনধারার...

স্মার্ট টিভি ব্যবহারে যেসব সতর্কতা মানতে হবে

বার্তাকক্ষ মাঝে মাঝেই বিভিন্ন জায়গায় স্মার্টফোন, হেডফোন এমনকি টিভি বিস্ফোরণের খবরও শোনা যায়। অনেক সময়...

র‍্যানসমওয়্যার আক্রমণের আকর্ষণীয় মাধ্যম রিমোট সার্ভিস

বার্তাকক্ষ ক্রেডেনশিয়াল বা ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্য হাতিয়ে নেয়ার মাধ্যমে কোনো প্রতিষ্ঠানের নেটওয়ার্কে র‍্যানসমওয়্যার হামলা চালানো...

বার্তাকক্ষ
জাতীয় পরিচয়পত্র-এনআইডিতে প্রচুর ভুল থাকার কথা স্বীকার করে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেছেন, আমার মনে হয় জাতীয় পরিচয়পত্রে (এনআইডি) কোটি কোটি ভুল। তবে আমরা সংশোধনের চেষ্টা করছি।
মঙ্গলবার (১৯ জুলাই) বিকালে বাংলাদেশ সাম্যবাদী দলের সঙ্গে আয়োজিত সংলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।
দলটির সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া তার বক্তব্যে এনআইডি সংশোধনে হয়রানির প্রসঙ্গ তোলেন। জবাবে সিইসি বলেন, ‘ভুলের পরিমাণটা এত বেশি গেছে, আমার মনে হয় কোটি কোটি ভুল। আ-কার, ই-কার, ঈ-কার নিয়ে ওখানে বিপদে পড়ছে, এয়ারপোর্টে বিপদে পড়ছে, ওর সঙ্গে মিলছে না। আমি নিজেও ব্যক্তিগতভাবে আমার বন্ধুবান্ধব যারা আছেন, ৪০-৫০টা আমি নিজেও করে দিয়েছি। হ্যাঁ, এটা সত্য বিলম্ব হচ্ছে। কেন দুই বছর, চার বছর বিলম্ব হচ্ছে, কারণটা হচ্ছে— বছর দুয়েক করোনা ছিল। তখন কার্যক্রমটা কমে ছিল। ভুলের সংখ্যাও কিন্তু হাজার হাজার লাখ লাখ নয়। মায়ের নাম, বাবার নাম, অনেকে হঠাৎ করেই নামে থেকে মোহাম্মদ বাদ দিতে চাচ্ছেন, মোহাম্মদ ছোট না বড় হবে, এত সব দাবি।’
তিনি বলেন, ‘আমাদের তরফ থেকে সেভাবে, যেহেতু আমাদের কতগুলো কাজ, আমরা নির্বাচনের কাজ করি। আবার রাজনৈতিক দল নিবন্ধনের কাজ আমাদের ওপর পড়ে গেছে। সাংবিধানিকভাবে এটা কিন্তু আমাদের নয়, আইনের ভিত্তিতে দেওয়া হয়েছে। তারপর এনআইডি যেটা এটা বিশাল একটা কর্মযজ্ঞ। এখন আবার ওরা ভোটার তালিকা হালনাগাদ নিয়ে কাজ করছে।’
এ সময় এনআইডি মহাপরিচালক একেএম হুমায়ুন কবীর বলেন, ‘অনেক ইচ্ছাকৃত ভুল হয়েছে। আবার অনিচ্ছাকৃত ভুল হয়েছে। সবার শিক্ষা সনদ থাকলে সুবিধা হতো। আমরা মানুষকে সন্তুষ্ট করার চেষ্টা করছি। আমাদের ভুল হচ্ছে। তবে কমিশনের নির্দেশ আমরা প্রতিপালন করার চেষ্টা করছি।’
তিনি আরও বলেন, ‘২০০৭ সালে যখন এনআইডি করা হয়েছিল, তখন ভেবেছিল এটা দিয়ে আর কী হবে। এখন যে এটাই গলার কাঁটা হয়ে দাঁড়াবে, কেউ ভাবেনি। আমরা সবাই চেষ্টা করছি।’
সংলাপে দলটির অন্যান্য নেতার সঙ্গে প্রধান নির্বাচন কমিশনার, চার নির্বাচন কমিশনারসহ ইসির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

spot_img
spot_img

এধরণের সংবাদ আরো পড়ুন

চিনির দাম বাড়লেও কমেনি তেলের

বার্তাকক্ষ চিনিতে ৬ টাকা বাড়িয়ে ও পাম তেলে ৮ টাকা কমিয়ে নতুন দর নির্ধারণ করে...

ফিটনেসবিহীন গাড়ি: বিআরটিএ’র অভিযান নিয়ে প্রশ্ন

বার্তাকক্ষ দেশের এখন ফিটনেসবিহীন গাড়ির সংখ্যা কত এর সঠিক কোনও সংখ্যা নেই সরকারের হাতে। কয়েকটি...

স্নায়ুযুদ্ধের পর প্রথমবার পারমাণবিক বিপর্যয়ের ঝুঁকিতে বিশ্ব: বাইডেন

বার্তাকক্ষ ইউক্রেনে পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার নিয়ে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ‘তামাশা’ করছেন না বলে সতর্ক...