Tuesday, September 27, 2022
হোম লাইফ স্টাইলসাধারণ পেটব্যথা নাকি আলসার বুঝবেন যেভাবে

সাধারণ পেটব্যথা নাকি আলসার বুঝবেন যেভাবে

Published on

সাম্প্রতিক সংবাদ

নতুন সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষা কার্যক্রমে নীতিমালা করছে ইউজিসি

বার্তাকক্ষ দেশে নতুন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের পর শিক্ষা কার্যক্রম শুরুর বিষয়ে নীতিমালা করছে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয়...

সামাজিক মাধ্যম ব্যবহারে প্রাথমিক শিক্ষকদের যা অনুসরণ করতে হবে

বার্তাকক্ষ জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে জারি করা ‘সরকারি প্রতিষ্ঠানে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার নির্দেশিকা’ অনুসরণের জন্য...

শিক্ষা কার্যক্রমের জন্য নীতিমালা করছে ইউজিসি

বার্তাকক্ষ দেশে নতুন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের পর অনুমোদন ছাড়া শিক্ষা কার্যক্রম শুরু করার বিষয়ে একটি...

সামাজিক মাধ্যম ব্যবহারে প্রাথমিক শিক্ষকদের জন্য ৮ নির্দেশনা

বার্তাকক্ষ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারে প্রাথমিকের সব কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং শিক্ষকদের সতর্ক করেছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর (ডিপিই)।...

বার্তাকক্ষ
আলসার খুবই জটিল এক রোগ। এই সমস্যা একবার হলে তা পুরোপুরি সারানো বেশ কঠিন। মূলত খাদ্যাভ্যাসের ভুল কয়েকগুণ বাড়িয়ে দিচ্ছে এই রোগের ঝুঁকি।
ছোট থেকে বড় অনেকেই এখন ভুগছেন আলসারে। তবে আলসারের সমস্যাকে প্রাথমিক অবস্থায় সবাই সাধারণ পেটে ব্যথা মনে করে এড়িয়ে যান। ফলে রোগটি আরও বিপজ্জনক হয়ে ওঠে।
এই রোগ প্রসঙ্গে কলকাতার আমরি হাসপাতালের বিশিষ্ট মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডা. রুদ্রজিৎ পাল জানান, আলসার সম্পর্কে অনেকেরই হয়তো সঠিক ধারণা নেই।
অ্যাসিড ও পেপসিন এনজাইমের কারণে পাকস্থলী বা ডিওডিনামে তৈরি হতে পারে ক্ষত। আর ওই ক্ষতই হলো স্টমাক আলসার।
বিশেষজ্ঞের মতে, আলসার রোগ থেকে অনেক সমস্যাই হতে পারে। এক্ষেত্রে পেটের ভেতরে রক্তপাত ঘটতে পারে। এ কারণে অনেকেই ভুগতে পারেন অ্যানিমিয়ায়।
আলসারের সঠিক টিকিৎসা না করলে পাকস্থলীতে ছিদ্র হতে পারে। দীর্ঘদিন এই অবস্থায় থাকলে আলসার ক্যানসারে পরিণত হতে পারে।
আলসারের লক্ষণ কী কী?
এ বিষয়ে ডা. পাল জানান, এই রোগের লক্ষণ হলো পেটে ব্যথা। সাধারণত আলসারের ক্ষেত্রে পেটের উপরের দিকে ও বুকের ঠিক নীচে ব্যথা হয়। প্রথমে কম থাকলেও ধীরে ধীরে বাড়ে ব্যথা।
এক সময় মনে হতে পারে যেন পেটের ভেতরে পুড়ে যাচ্ছে। অনেকে আবার ব্যথার বদলে পেটের জ্বালাপোড়ায় ভোগেন। এছাড়া ক্ষুধামন্দা ও বমি বমি ভাব থাকে।
এসব লক্ষণ দেখলেই দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। রোগের উপসর্গ জেনে এন্ডোস্কোপি করার পরামর্শ দেন চিকিৎসকরা।
আলসারের চিকিৎসা কী?
আলসারের চিকিৎসায় প্রোটিন পাম্প ইনহিবিটর জাতীয় ওষুধ দেওয়া হয়। এই ওষুধ অত্যন্ত কার্যকরী। এই ওষুধের মাধ্যমে সমস্যা দ্রুত কমিয়ে ফেলে যায়। ওষুধটির মাধ্যমে পেটে অ্যাসিড বের হওয়া বন্ধ হয়।
তবে অনেক ক্ষেত্রে এইচ.পাইলোরি নামক ব্যাকটেরিয়া এই সমস্যার কারণ হয়ে থাকে। ওই অবস্থায় চিকিৎসকরা অ্যান্টিবায়োটিক সাজেস্ট করেন।
কী খাবেন, কী খাবেন না?
বিশেষজ্ঞের পরামর্শ অনুযায়ী, আলসারের রোগহীদের ধূমপান ও মদ্যপান করা যাবে না। এছাড়া দূরে থাকতে হবে ঝাল খাবার থেকে। শুকনো ও কাঁচা মরিচের ঝাল থেকেও সমস্যা বাড়তে পারে।
তাই এসব খাবার থেকে যতটা সম্ভব দূরত্ব রাখুন। সব সময় পাতে হালকা খাবার রাখার ও প্রচুর পানি পান করতে হবে এমন রোগীদের।

spot_img
spot_img

এধরণের সংবাদ আরো পড়ুন

যেভাবে বানাবেন চুলের জট ছাড়ানোর স্প্রে

বার্তাকক্ষ জট ছাড়ানোর ভয়ে চুলে চিরুনি দিতেই ভয় পাচ্ছেন? চটজলদি জট ছাড়াতে খুব সহজে ঘরেই...

চোখ ওঠার সংক্রমণ এড়াবেন যেভাবে

বার্তাকক্ষ বর্তমানে চোখ ওঠা বা কনজেক্টিভাইটিসে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। পরিবারের কোনো এক সদস্যের চোখে এই...

বেগুনের কোফতা রাঁধবেন যেভাবে

বার্তাকক্ষ বেগুন সারাবছরই পাওয়া যায় বাজারে। বেগুন ভাজা থেকে শুরু করে এর তরকারি কিংবা ভর্তা...