Sunday, September 25, 2022
হোম আজকের পত্রিকানওয়াপাড়ায় সরকার গ্রুপ : ঘাটের অফিস কক্ষে নৈশ প্রহরীর রক্তাক্ত মরদেহ

নওয়াপাড়ায় সরকার গ্রুপ : ঘাটের অফিস কক্ষে নৈশ প্রহরীর রক্তাক্ত মরদেহ

Published on

সাম্প্রতিক সংবাদ

আফিফের দুর্দান্ত হাফ সেঞ্চুরি, লড়াকু স্কোরের পথে বাংলাদেশ

বার্তাকক্ষ টি-টোয়েন্টি তরুণদের খেলা। প্রায় প্রতিটি দলই তারুণ্যের জয়োগান দিয়ে বিশ্বকাপের জন্য দল ঘোষণা করেছে।...

দোয়েল ল্যাপটপ তৈরির সঙ্গে জড়িতদের শাস্তি চান মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী

বার্তাকক্ষ দোয়েল ল্যাপটপ তৈরির প্রকল্প ব্যর্থ হয়েছে। এ কারণে এর সঙ্গে জড়িতদের শাস্তি চেয়েছেন ডাক...

শেয়ারবাজারে ‘মার্কেট মেকার’ সনদ চায় সাকিবের মোনার্ক হোল্ডিংস

বার্তাকক্ষ শেয়ারবাজারকে সাপোর্ট দিতে বাজার সৃষ্টিকারী বা মার্কেট মেকার হতে চায় বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল...

নির্ধারিত দামে মিলছে না তেল-চিনি

বার্তাকক্ষ রোববার থেকে সরকার নির্ধারিত দামে বিক্রি হওয়ার কথা পাম তেল ও চিনি। কিন্তু বাস্তবে...

নিজস্ব প্রতিবেদক, অভয়নগর :

যশোরের অভয়নগর উপজেলার নওয়াপাড়ায় গলায় গামছা পেঁচানো রক্তাক্ত অবস্থায় মিন্টু তরফদার (৬০) নামের এক নৈশপ্রহরীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার দুপুরে উপজেলার তালতলা এলাকায় আকিজ জুট মিলের সামনে সরকার গ্রুপের ঘাটের অফিসের ভেতর থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। রক্তাক্ত মরদেহটি অফিস কক্ষের ভেতর গলায় গামছা প্যাচানো অবস্থায় উপুড় হয়ে পড়ে ছিলো।
নিহত মিন্টু তরফদার উপজেলার চেঙ্গুটিয়া বুড়োর দোকান এলাকার মৃত- মুসা তরফদারের ছেলে। গত ৪ বছর আগে তিনি বেঙ্গল টেক্সটাইল মিল সংলগ্ন মডেল কলেজের পার্শ্বে বাড়ি করে বসবাস করছিলেন। তিনি সরকার গ্রুপের ওই ঘাটে নৈশপ্রহরী হিসেবে কর্মরত ছিলেন।
ঘাটের ম্যানেজার হাবিবুল্লাহ হাবিবের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, প্রায় এক বছর আগে নৈশপ্রহরী পদে মিন্টু তরফদার সরকার গ্রুপের ওই ঘাটে যোগ দেন। শনিবার সকাল ৯টার সময় অফিসে হাবিবুল্লাহ অফিস আসেন । তখন কক্ষের দরজা খোলা ও ঘাটের সব বাতি জ্বলতে দেখেন এবং অফিসের মেঝেতে গলায় গামছা পেঁচানো রক্তাক্ত অবস্থায় মিন্টু তরফদারের দেহ দেখতে পান। পরে তিনি ঘটনাটি অভয়নগর থানা-পুলিশকে জানালে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহটি উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়। তবে কে বা কারা কী কারণে তাকে হত্যা করেছে তাৎক্ষনিকভাবে পুলিশ সেটি জানাতে পারেনি।
এদিকে সকালেই অভয়নগর থানা-পুলিশের পাশাপাশি জেলা পুলিশের উর্দ্ধতন কর্মকর্তা, জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) ও পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তারা পৃথক ভাবে হত্যাকা-ের মোটিভ উদ্ঘাটনে মাঠে নেমেছে। নিহতের স্ত্রী, ছেলেসহ বেশ কয়েকজনকে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করেছে। পুলিশের একাধিক সূত্রে জানা গেছে।
নিহতের ছেলে ইনামুল জানান, প্রায় পাঁচ বছর ধরে তিনি সরকার গ্রুপে মোটর মেকানিক হিসেবে কাজ করছেন। কী কারণে খুন করা হয়েছে বা তার বাবার কোনো শত্রু ছিলো কী না এমন প্রশ্নে তিনি ময়নাতদন্ত ও সংবাদ প্রকাশ না করতে সাংবাদিকদের নিষেধ করেন।
নিহতের স্ত্রী জুলেখা বেগম ও তার পুত্রবধূ দাবি করেন, গত এক সপ্তাহ আগে সরকার গ্রুপের ওই ঘাটের ম্যানেজার হাবিবুল্লাহ হাবিবের সাথে নৈশ প্রহরী মিন্টু তরফদারের চেয়ার টেবিল মোছা নিয়ে তর্কবিতর্ক ও কথাকাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে ম্যানেজার হাবিবুল্লাহ মিন্টু তরফদারকে দেখে নেয়ার হুমকি দেয়। এক প্রশ্নের জবাবে জুলেখা বেগম সাংবাদিকদের কাছে এ নিয়ে সংবাদ প্রকাশ না করতে অনুরোধ করেন। তিনি আশংকা প্রকাশ করে বলেন, এ ঘটনা নিয়ে বেশি বাড়াবাড়ি করলে হত্যাকারীরা তার একমাত্র সন্তান ইনামুল তরফদারকেও খুন করে ফেলতে পারে।
ঘাটের ম্যানেজার হাবিবুল্লাহ হাবিবের সাথে কথা বলতে তার ব্যবহৃত মুঠোফোর নম্বরে একাধিকবার কল করা হলেও ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। এ ব্যাপারে অভয়নগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম শামীম হাসান বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যাই। সরকার গ্রুপের ঘাটের অফিসে পাওয়া নৈশপ্রহরীর মুখম-ল রক্তাক্ত ও গলায় হলুদ রঙের একটি গামছা পেঁচানো ছিল। সন্দেহজনক মৃত্যু হওয়ায় মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য যশোর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

spot_img
spot_img

এধরণের সংবাদ আরো পড়ুন

ঝিনাইদহে ন্যাপের জেলা প্রতিনিধি সম্মেলন , বিধান সভাপতি ও পাভেল সাধারণ সম্পাদক

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি : ঝিনাইদহে ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (ন্যাপ)’র প্রতিনিধি সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে । ‘ধর্ম কর্ম...

শ্যামনগরে গলায় দড়ি দিয়ে ৩ সন্তানের জনকের আত্মহত্যা

আলমগীর হায়দার, শ্যামনগর : সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার রমজাননগর ইউনিয়নের মানিকখালী গ্রামে পরিমল মন্ডল (৩২) নামের...

সরকার সব ধর্মের চেতনা ও মূল্যবোধ সমুন্নত রাখতে বদ্ধপরিকর: এমপি রণজিৎ রায়

বাঘারপাড়া প্রতিনিধি : যশোর-৪ আসনের সংসদ সদস্য রণজিৎ কুমার রায় বলেছেন, বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ।...