Friday, December 9, 2022
হোম শিক্ষানিকটবর্তী প্রাথমিক বিদ্যালয় একীভূত করা হবে: সচিব

নিকটবর্তী প্রাথমিক বিদ্যালয় একীভূত করা হবে: সচিব

Published on

সাম্প্রতিক সংবাদ

সমাবেশ ঘিরে ঢাকায় ৭ লাখ মানুষ এসেছে কি না খোঁজ চলছে: ডিবি

বার্তাকক্ষ বিএনপিকে রাজধানীর গোলাপবাগ মাঠে শনিবার (১০ ডিসেম্বর) সমাবেশ করার অনুমতি দিয়েছে ঢাকা মহানগর...

মার্কিন রাষ্ট্রদূতকে কৃষিমন্ত্রী এ ধরনের বিবৃতি ভবিষ্যতে আর দেবেন না

বার্তাকক্ষ গত ৭ ডিসেম্বর নয়াপল্টনের ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিবৃতি দেওয়ায় ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূতকে...

ঢাবিতে বিশ্বকাপ খেলা দেখানো ১২ ডিসেম্বর পর্যন্ত স্থগিত

বার্তাকক্ষ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়(ঢাবি) ক্যাম্পাসের তিনটি স্থানে বড় পর্দায় খেলা দেখানো স্থগিত করেছে আয়োজক প্রতিষ্ঠান...

শুরু থেকেই মাঠে নামতে পারেন ডি মারিয়া, বাদ পড়বেন কে?

বার্তাকক্ষ কাতার বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিতর আর্জেন্টিনা শিবিরে গেলে সংবাদমাধ্যমের এখন একটাই জিজ্ঞাসা, স্কালোনি কি নেদারল্যান্ডসের...

বার্তাকক্ষ
ঢাকা: ছাত্র ও শিক্ষক সংখ্যায় ভারসাম্যহীনতা, দূরত্ব, সিফট ইত্যাদি বিবেচনায় কিছু সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় একীভূত করা হবে বলে জানিয়েছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. আমিনুল ইসলাম খান। আন্তর্জাতিক স্বাক্ষরতা দিবস উপলক্ষে বুধবার (০৭ সেপ্টেম্বর) সচিবালয়ে মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা জানান। অনেক স্কুল আছে যেখানে অবকাঠামো এবং শিক্ষকও আছে কিন্তু শিক্ষার্থী অনেক কম- এ বিষয়ে সিনিয়র সচিব বলেন, ছাত্র কম শিক্ষক বেশি, শিক্ষক কম ছাত্র বেশি- এরকম ভারসম্যহীনতা কোথাও কোথাও রয়েছে। আমরা আমাদের পরিসংখ্যানে সেটা দেখছি। আমরা স্কুলভিত্তিক হিসেব করছি। সেক্ষেত্রে শিক্ষার্থী বেশি সেখানে সিফট চালু করতে হচ্ছে, সিফট মার্জ (একীভূত) করে দিয়েছি। এখন সেই স্কুলগুলোতে সিফট নেই। আমিনুল ইসলাম খান বলেন, এখন আমরা আবার ভাবছি- স্কুল মার্জ। নিকটবর্তী স্কুলে যদি মার্জ করি তাহলে ছাত্রদের শিখন ঘণ্টাও বেশি হবে। যেখানে দুই সিফট সেখানে শিখন ঘণ্টা কম। ‘আমরা মোট পরিসংখ্যানের ওপরে কাজ করছি যে ছাত্র সংখ্যা ও শিক্ষক সংখ্যা এবং সংযুক্ত (অ্যাটাচ) থাকা শিক্ষক সংখ্যা। নতুন শিক্ষক নিয়োগ দেওয়ার ক্ষেত্রে আমাদেরকে শূন্য পদ চিহ্নিত করতে হবে। কোন স্কুলে ছাত্রের বিপরীতে কতজন শিক্ষক আছেন। কারণ আমরা অনুমানভিত্তিক নিয়োগ দিতে পারি না। সেই কাজ আমরা শুরু করেছি। ’ সিনিয়র সচিব জানান, আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে অনলাইনে শিক্ষক বদলি চালু করব। এটা চালু না হলে আমরা সঠিক সংখ্যায়ও যেতে পারব না। এই সংখ্যা কত তা এখনই জানা যাচ্ছে না। কোন পদ্ধতিতে মার্জ (একীভূত) হবে- জানতে চাইলে সিনিয়র সচিব বলেন, ভৌগোলিক দূরত্বসহ সব বিবেচনা করা হবে।গাইবান্ধায় চরে অনলাইনে একটি স্কুলে কথা বলেছেন জানিয়ে তিনি বলেন, সেখানে ৪০-৫০ জন শিক্ষার্থী নিয়ে চলছে। আবার পার্বত্য অঞ্চলে দূরত্ব কম হতে পারে কিন্তু হাঁটার দূরত্ব অনেক বেশি। সেজন্য আমরা ভৌগোলিক দূরত্ব, হাওর, চর, বিল, ছাত্র সংখ্যা (যেখানে ছাত্র সংখ্যা বেশি সেখানে আরেক বিষয়) সমস্ত কিছু বিবেচনা করে আগামী ৫-৬ সপ্তাহের মধ্যে হয়তো প্রাথমিক সিদ্ধান্ত নিতে পারব।

spot_img
spot_img

এধরণের সংবাদ আরো পড়ুন

ঢাবিতে বিশ্বকাপ খেলা দেখানো ১২ ডিসেম্বর পর্যন্ত স্থগিত

বার্তাকক্ষ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়(ঢাবি) ক্যাম্পাসের তিনটি স্থানে বড় পর্দায় খেলা দেখানো স্থগিত করেছে আয়োজক প্রতিষ্ঠান...

মানবাধিকার কমিশনের অবৈতনিক সদস্য হলেন অধ্যাপক ড. বিশ্বজিৎ

বার্তাকক্ষ জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের অবৈতনিক সদস্য হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) সদস্য...

একাদশে ভর্তি: ঘণ্টায় ২০ হাজার আবেদন

বার্তাকক্ষ একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন কার্যক্রম বৃহস্পতিবার (৮ ডিসেম্বর) শুরু হয়েছে। প্রথমদিন সাড়ে ৯...