Tuesday, September 27, 2022
হোম চিকিৎসাশ্বাস নিচ্ছেন, খাবার খেতে পারছেন আবু হেনা রনি

শ্বাস নিচ্ছেন, খাবার খেতে পারছেন আবু হেনা রনি

Published on

সাম্প্রতিক সংবাদ

সামাজিক মাধ্যম ব্যবহারে প্রাথমিক শিক্ষকদের যা অনুসরণ করতে হবে

বার্তাকক্ষ জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে জারি করা ‘সরকারি প্রতিষ্ঠানে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার নির্দেশিকা’ অনুসরণের জন্য...

শিক্ষা কার্যক্রমের জন্য নীতিমালা করছে ইউজিসি

বার্তাকক্ষ দেশে নতুন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের পর অনুমোদন ছাড়া শিক্ষা কার্যক্রম শুরু করার বিষয়ে একটি...

সামাজিক মাধ্যম ব্যবহারে প্রাথমিক শিক্ষকদের জন্য ৮ নির্দেশনা

বার্তাকক্ষ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারে প্রাথমিকের সব কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং শিক্ষকদের সতর্ক করেছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর (ডিপিই)।...

শাওমি এবার বর্ষসেরা উদ্ভাবনী কোম্পানির তালিকায়

বার্তাকক্ষ শাওমি এবার বছরের সেরা ৫০ উদ্ভাবনী কোম্পানির তালিকায় স্থান পেয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের বোস্টন কনসালটিং গ্রুপ...

বার্তাকক্ষ
স্বাভাবিকভাবে শ্বাস-প্রশ্বাস নিতে পারছেন গাজীপুরে গ্যাস বেলুন বিস্ফোরণে গুরুতর আহত কৌতুক অভিনেতা আবু হেনা রনি। তিনি স্বাভাবিক খাবারও খেতে পারছেন, কথা বলতে পারছেন। এ ছাড়া আহত দগ্ধ পুলিশ কনস্টেবল মো. জিল্লুর রহমানের অবস্থাও আগের চেয়ে ভালো।
বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) সকালে এসব কথা জানিয়েছেন শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের জাতীয় সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন। দুজনকে কেবিনে স্থানান্তর করা হবে কিনা, সেই সিদ্ধান্ত শনিবার নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।ডা. সামন্ত লাল বলেন, ‘আজ সকালে দেখে এসেছি। তারা ভালো আছে। আগের থেকে অনেক ইমপ্রুভ করেছে। আমরা শনিবার আরেকটি ড্রেসিং খুলবো। তারপর সিদ্ধান্ত নেবো কেবিনে স্থানান্তর করার।
তিনি আরও বলেন, ‘তার (আবু হেনা রনি) শ্বাসনালির যথেষ্ট ইমপ্রুভ হয়েছে। সকালে দেখলাম ভালোই কথা বলতে পারছে।’
প্রসঙ্গত, গত ১৬ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের চতুর্থ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান চলাকালে বেলুন বিস্ফোরণ হয়ে পাঁচ জন দগ্ধ হয়। এ সময় দগ্ধ হন কৌতুক অভিনেতা আবু হেনা রনি, গাজীপুর জেলা পুলিশের কনস্টেবল মোশাররফ হোসেন, গাছা থানার কনস্টেবল রুবেল মিয়া, টঙ্গী পূর্ব থানার কনস্টেবল জিল্লুর রহমান এবং গাছা থানার আরেক কনস্টেবল মো. ইমরান হোসেন। ঘটনার পরপরই দগ্ধদের চিকিৎসার জন্য স্থানীয় শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।
পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য আবু হেনা রনি ও কনস্টেবল জিল্লুর রহমানকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে পাঠানো হয়। তবে রনির শরীরের ২৫-৩০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক।
এ ঘটনার প্রকৃত কারণ অনুসন্ধানে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ ক্রাইম উত্তর উপকমিশনারকে সভাপতি করে চার সদসের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিকে তিন কার্যদিবসের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন দেওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়।

spot_img
spot_img

এধরণের সংবাদ আরো পড়ুন

শার্শায় সারের ব্যাগে মিলল ১০ পিস স্বর্ণের বার

বিশেষ প্রতিবেদক যশোরের শার্শার সীমান্তের গোগা এলাকায় সারের ব্যাগে পাওয়া গেল ১০ পিস স্বর্ণের বার।...

একের পর এক ভেসে উঠছে লাশ

বার্তাকক্ষ পঞ্চগ‌ড়ের বোদা উপজেলায় কর‌তোয়া নদী‌তে নৌকাডু‌বির ঘটনায় একের পর এক লাশ ভেসে উঠছে। মঙ্গলবার...

২০৩৫ সাল নাগাদ বাংলাদেশের জিডিপি ৪ শতাংশের নিচে নেমে আসতে পারে

বার্তাকক্ষ যদি কোনো অর্থনৈতিক সংস্কার বাস্তবায়িত না হয়, তাহলে ২০৩৫ সাল নাগাদ বাংলাদেশের জিডিপি ৪...