Saturday, December 10, 2022
হোম চিত্র বিচিত্রপানি পান করেই বেঁচে আছেন ৪১ বছর

পানি পান করেই বেঁচে আছেন ৪১ বছর

Published on

সাম্প্রতিক সংবাদ

অভিনন্দন বাংলাদেশ ক্রিকেট দল

সাত বছর পর আবারো ভারতের বিপক্ষে সিরিজ জিতল বাংলাদেশ। ২০১৫ সালে ভারতের বিপক্ষে ঘরের...

জাপানির কাণ্ড! ৯ দিনে পুলিশকে দুই হাজারবার ফোন, অতঃপর…

এক বয়স্ক জাপানি ঘটিয়েছেন এক আজব কাণ্ড! ৯ দিনে ৯ বার না ২০৬০ বার...

ডেঙ্গুতে মৃত্যু নেই, হাসপাতালে ১১৮ রোগী

বার্তাকক্ষ গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ডেঙ্গু আক্রান্ত কোনো রোগী মারা যায়নি। তবে এ সময়...

তদন্তের মুখে ইলোন মাস্কের নিউরোলিংক

বার্তাকক্ষ মানবদেহে ব্রেইন চিপ পরীক্ষার অনুমোদন পাওয়ার আগে প্রাণীদেহে পরীক্ষা চালিয়েছে নিউরোলিংক। এ পরীক্ষার...

প্রাণির সুস্থভাবে বেঁচে থাকার জন্য খাবার অপরিহার্য। চিকিৎসক এবং পুষ্টিবিজ্ঞানীরা বলছেন, শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা শক্তিশালী না হলে অল্প অসুস্থতাতেও মানুষ খুব সহজে দুর্বল হয়ে পড়ে এবং রোগের আক্রমণও জোরালো হয়। এক্ষেত্রে খাদ্যাভ্যাস খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।
মানুষ সচরাচর যে ধরনের খাবার খায়, সেগুলো হচ্ছে-শর্করা, প্রোটিন এবং ফ্যাট বা চর্বি জাতীয় খাবার। এ ধরনের খাবার শরীরের জন্য অবশ্যই প্রয়োজন। মানুষের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা নির্ভর করে ভিটামিন এবং মাইক্রোনিউট্রিয়েন্টের উপর। তবে খাবার না খেয়ে মানুষ কতদিন বাঁচতে পারবেন। খুব বেশি হলে ৩ থেকে ৭ দিন। কারণ নিউট্রিশনের অভাবে তিনি মারা যাবেন।
তবে ৬৩ বছরের এনগন ৪১ বছর পানি ছাড়া কোনো খাবারই খাননি। এমনটাই দাবি করছেন তিনি। একেবারেই সুস্থ আছেন। এই বয়সে তিনি যেসব যোগ ব্যায়াম বা পরিশ্রম করেন তা অনেক কমবয়সী মানুষও করতে পারেন না। এনগন বাস করেন ভিয়েতনামের লং আন প্রদেশে
তিনি ২১ বছর পর্যন্ত সব ধরনের খাবারই খেতেন। ভাত, মাছ, মাংস, সবজি সবকিছুই। তবে এতে তার কিছু শারীরিক সমস্যা দেখা দেয়। খাওয়ার পরই তার পেট ব্যথা ও বমি হত। অসুস্থ হয়ে পড়তেন এনগন। রক্ত পরীক্ষায় জানা যায় তিনি রক্তের একটি বিরল রোগে ভুগছেন। চিকিৎসকরাও এর কোনো চিকিৎসা করতে পারছিলেন না। ধীরে ধীরে অনেক বেশি অসুস্থ হয়ে পড়তে থাকেন। বাঁচার আশা একরকম ছেড়েই দিয়েছিলেন এনগন।ধীরে ধীরে সব ধরনের শক্ত খাবার খাওয়া বাদ দিয়ে দেন তিনি। শুধু পানিই খেতেন। একজন চিকিৎসক তাকে পানি পান করার পরামর্শ দেন। সামান্য লবণ, চিনি মেশানো পানি পান করতে বলেন। পাশাপাশি ফলের রসও খাওয়ার পরামর্শ দেন তাকে।
অসুস্থতার জন্য ধীরে ধীরে দৃষ্টিশক্তি হারাতে বসেছিলেন এনগন। ওই চিকিৎসক তাকে এই ডায়েট অনুসরণ করতে বলেন। এতে তার দৃষ্টি বাঁচাতে এবং এমনকি তার রক্তের রোগ নিরাময়েও সহায়তা করবে বলে তিনি জানিয়েছিলেন। তবে সেই চিকিৎসকের নাম প্রকাশ করেননি এনগন। তিনি দাবি করেন ওই চিকিৎসক তার নাম প্রকাশ না করতে তাকে অনুরোধ করেছিলেন। তিনি এর কারণ হিসেবে জানিয়েছিলেন, যেহেতু এই চিকিৎসার কোনো বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা নেই তাই তাকে নিয়ে অনেকে সমালোচনা করতে পারে।
সেই চিকিৎসক মারা যাওয়ার পরও এনগন তার কথা রেখেছেন। এভাবে চলতে থাকে কিছুদিন। পানি পান করলে তেমন কোনো অসুবিধা হত না। বরং আগের চেয়ে ভালো অনুভব করেন। এরপর থেকে ৪১ বছর আর কোনো খাবারই মুখে তোলেননি এই নারী। পানির সঙ্গে একটু লবণ, চিনি ও লেবুর রস মিশিয়ে পান করেন তিনি।
প্রথম প্রথম পরিবারের মানুষ এনগনকে খাবার খেতে জোর করতেন। তবে শক্ত খাবার না খেয়ে এনগন ভালো অনুভব করায় খাবার খেতেই চাইতেন না। পরিবারের মানুষ আশঙ্কা করতেন এনগন হয়তো এভাবে বেশিদিন বাঁচতে পারবেন না। তবে শত চেষ্টা করেও তাকে খাবার খাওয়াতে পারেননি তারা। এক সময় হাল ছেড়ে দেন। খেতেও বলতেন না তারা।
তবে এতে এনগনের তেমন কোনো অসুবিধাই হচ্ছিল না। বরং ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠছিলেন তিনি। শুধু চিনি, লবণ মেশানো পানি খেয়ে বিরক্ত হয়ে উঠেছিলেন তিনি। এজন্য কয়েক ফোঁটা লেবুর রস মিশিয়ে খেতে থাকেন। এতে তিনি আরও বেশি প্রাণবন্ত হয়ে ওঠেন।
এসবের পাশাপাশি এনগন নিয়মিত যোগব্যায়াম করতে থাকেন। কঠিন সব ব্যায়াম আয়ত্ত করে ফেলেন। বর্তমানে তিনি লং অ্যান আকুপাংচার অ্যাসোসিয়েশনের সদস্য, একজন যোগব্যায়াম শিক্ষক। তিনি সবাইকে সবাস্থ্যক্র জীবনযাপনের জন্য নানান পরামর্শও দিয়ে থাকেন। এত বয়স হলেও তেমন কোনো শারীরিক জটিলতা নেই এনগনের।
সূত্র: ওডিটি সেন্ট্রাল

spot_img
spot_img

এধরণের সংবাদ আরো পড়ুন

জাপানির কাণ্ড! ৯ দিনে পুলিশকে দুই হাজারবার ফোন, অতঃপর…

এক বয়স্ক জাপানি ঘটিয়েছেন এক আজব কাণ্ড! ৯ দিনে ৯ বার না ২০৬০ বার...

ইঁদুর মারতে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, বেতন ১ কোটি ৭০ লাখ টাকা!

ছোট্ট প্রাণী ইঁদুর মানব সভ্যতায় একাধিকবার প্রাসঙ্গিক হয়ে উঠেছে। মহামারী প্লেগ রোগে গোটা পৃথিবীর...

জনাথনের বয়স হলো ১৯০ বছর!

বলছি ‘জনাথন’-এর কথা। না! সে কোনো মানুষের নয়, বলছি অর্ধশত বছরের বেশি সময় ধরে...