Saturday, December 3, 2022
হোম শহর-গ্রামখুলনাউপকূলীয় নদীতে বাড়ছে পানির চাপ, বাঁধে ভাঙন

উপকূলীয় নদীতে বাড়ছে পানির চাপ, বাঁধে ভাঙন

Published on

সাম্প্রতিক সংবাদ

প্রধানমন্ত্রীর জনসভায় মাঠের বাইরে ৮-১০ গুণ মানুষ হবে: তথ্যমন্ত্রী

বার্তাকক্ষ: প্রধানমন্ত্রীর জনসভা চট্টগ্রামে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে, মানুষের মধ্যে উৎসাহ-উদ্দীপনা সৃষ্টি হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন...

“গঠনমূলক সাংবাদিকতা সকলক্ষেত্রে ইতিবাচক দিকনির্দেশনা দিতে পারে”

খুবি সংবাদদাতা খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা ডিসিপ্লিন এবং ডয়চে ভেলে (ডিডব্লিউ) অ্যাকাডেমির যৌথ উদ্যোগে...

সাদ্দামের দুটি কিডনী নষ্ট সহযোগিতার জন্য অসহায় পিতার আকুতি

ঝিনাইদহ সংবাদদাতা সাদ্দামের দুটি কিডনী নষ্ট, ডায়ালিস করে বেঁচে আছে, সহযোগিতা পেলে হয়তো নতুন জীবন...

মহেশপুরে কৃষকের এক বিঘা সিমগাছ কেটে সাবাড় করেছে দূর্বৃত্তরা

মহেশপুর সংবাদদাতা ঝিনাইদহের মহেশপুরে শহিদুল ইসলাম নামে এক কৃষকের ৩৩ শতাংশ (এক বিঘা) জমির সিমগাছ...

খুলনা সংবাদদাতা
ঘূর্ণিঝড় সিত্রাংয়ের প্রভাবে মধ্যরাত থেকে উপকূলে বৃষ্টিপাত অব্যাহত রয়েছে। সেই সঙ্গে বইছে দমকা হাওয়া। খুলনা মহানগরের বিভিন্ন এলাকার ড্রেন ও রাস্তা পানিতে একাকার হয়ে গেছে। সিত্রাংয়ের প্রভাবে উপকূলের নদীগুলোতে পানির চাপ বেড়েছে। এর ফলে কয়রা ও সাতক্ষারীর আশাশুনির বিভিন্ন এলাকায় বাঁধে ভাঙন দেখা দিয়েছে। ধসে গেছে কয়রার হরিণখোলা বেড়িবাঁধ। এতে আতঙ্ক রয়েছেন উপকূলবাসী। কয়রা উপজেলা নাগরিক নেতা ইমতিয়াজ আহমেদ বলেন, ‘হরিণখোলা বেড়িবাঁধে মারাত্মক ভাঙন দেখা দিয়েছে। দুপুরের জোয়ারের আগে কাজ করতে না পারলে সোনার ফসল, ঘরবাড়ি আবারও সব নোনা পানিতে প্লাবিত হবে।’
কয়রা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রোকনুজ্জামান বলেন, ‘কয়রার দেড় হাজার স্বেচ্ছাসেবক প্রস্তুত রয়েছেন। আশ্রয়কেন্দ্রগুলোও প্রস্তুত করা হয়েছে। নদীতে পানির চাপ বাড়ছে। এর ফলে হরিণখোলায় বাঁধে ধস দেখা দিয়েছে। সেখানে লোকজন কাজে লাগানো হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধস প্রতিরোধে পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।’ কয়রা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এসএম শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘কয়রার হ‌রিণ‌খোলা ও গা‌তিরঘেরী‌র বাঁধে ভাঙন দেখা দিয়েছে। স্থানীয়দের নিয়ে মেরামতের কাজের প্রস্তু‌তি‌ চলছে। এছাড়া কয়রায় হোগলা, দশহালিয়া, মদিনাবাদ লঞ্চঘাট, ঘাটাখালী, গাববুনিয়ার, আংটিহারা, ৪নং কয়রা সুতির গেট ও মঠবাড়ির পবনা অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ। প্রত্যেক ইউনিয়নের চেয়ারম্যানদের বলা হয়েছে নিজ নিজ এলাকার বাঁধের দিকে খেয়াল রাখার জন্য। সাইক্লোন শেল্টারগুলো প্রস্তুত রাখা হয়েছে।’ কয়রা আবহাওয়া অ‌ফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাসানুজ্জামান বান্না জানান, ঘূ‌র্ণিঝড়ের প্রভাবে সোমবার ভোর থেকে কয়রায় ৩০-৩৫ কি‌লো‌মিটার বেগে বাতাস প্রবা‌হিত হচ্ছে। মধ্যরাত থেকে বৃ‌ষ্টিপাত শুরু হয়েছে।  খুলনা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান তালুকদার বলেন, ‘সব উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে সার্বিক পরিস্থিতিতে জরুরি পদক্ষেপ গ্রহণের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। আশ্রয় কেন্দ্র, মেডিক্যাল টিম, পর্যাপ্ত শুকনো খাবার ও স্বেচ্ছাসেবক টিম প্রস্তুত রয়েছে।’ খুলনা আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আমিরুল আজাদ বলেন, ‘উপকূলের দিকে ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘সিত্রাং’। মোংলা বন্দর থেকে এটি ৫২৫ কিরোমিটার দূরে অবস্থান করছে। ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৫৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৬২ কিলোমিটার, যা দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়ার আকারে ৮৮ কিলোমিটার পর্যন্ত বাড়ছে। মোংলা বন্দরকে ৭ নম্বর বিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের নিকটবর্তী এলাকায় সাগর বিক্ষুব্ধ রয়েছে।’ তিনি আরও বলেন, ‘অমাবস্যা তিথি ও বায়ুচাপ পার্থক্যের আধিক্যের প্রভাবে উপকূলীয় জেলা সাতক্ষীরা, খুলনা, বাগেরহাট, ঝালকাঠি, পিরোজপুর, বরগুনা, পটুয়াখালী, ভোলা, বরিশাল, লক্ষ্মীপুর, চাঁদপুর, নোয়াখালী, ফেনী, চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার এবং এসবের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরসমূহের নিম্নাঞ্চল স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ৫ থেকে ৭ ফুট অধিক উচ্চতার বায়ুতাড়িত জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে। এ জন্য উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার সব নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়েছে।’ পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) সূত্রে জানা যায়, খুলনা, বাগেরহাট ও সাতক্ষীরা জেলায় বেড়িবাঁধ রয়েছে মোট ১ হাজার ৯১০ কিলোমিটার। ষাটের দশকে মাটি দিয়ে তৈরি এই বেড়িবাঁধ ছিল ১৪ ফুট উঁচু ও ১৪ ফুট চওড়া। এখন এই ২৪০ কিলোমিটার বেড়িবাঁধের উচ্চতা ও চওড়ার অর্ধেকও অবশিষ্ট নেই।

spot_img
spot_img

এধরণের সংবাদ আরো পড়ুন

“গঠনমূলক সাংবাদিকতা সকলক্ষেত্রে ইতিবাচক দিকনির্দেশনা দিতে পারে”

খুবি সংবাদদাতা খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা ডিসিপ্লিন এবং ডয়চে ভেলে (ডিডব্লিউ) অ্যাকাডেমির যৌথ উদ্যোগে...

সাদ্দামের দুটি কিডনী নষ্ট সহযোগিতার জন্য অসহায় পিতার আকুতি

ঝিনাইদহ সংবাদদাতা সাদ্দামের দুটি কিডনী নষ্ট, ডায়ালিস করে বেঁচে আছে, সহযোগিতা পেলে হয়তো নতুন জীবন...

মহেশপুরে কৃষকের এক বিঘা সিমগাছ কেটে সাবাড় করেছে দূর্বৃত্তরা

মহেশপুর সংবাদদাতা ঝিনাইদহের মহেশপুরে শহিদুল ইসলাম নামে এক কৃষকের ৩৩ শতাংশ (এক বিঘা) জমির সিমগাছ...