Thursday, December 1, 2022
হোম রাজনীতিসমাবেশস্থলে বাড়ছে ভিড়, পুলিশের হয়রানির অভিযোগ বিএনপির

সমাবেশস্থলে বাড়ছে ভিড়, পুলিশের হয়রানির অভিযোগ বিএনপির

Published on

সাম্প্রতিক সংবাদ

পুতিনের রাশিয়ার সঙ্গে যুদ্ধবিরতির সম্ভাবনা দেখছে না ইউক্রেন

বার্তাকক্ষ রাশিয়া ও ইউক্রেনের নেতারা একটি কূটনৈতিক আলোচনার মাধ্যমে ৯ মাস দীর্ঘ যুদ্ধের অবসান...

পাপড়ি-করামত আলী সাহিত্য পুরস্কার পেলেন তানভীর সিকদার

পাপড়ি-করামত আলী সাহিত্য পুরস্কার পেয়েছেন তরুণ কবি তানভীর সিকদার। তার দ্বিতীয় কাব্যগ্রন্থ ‘সেফটিপিনে গেঁথে...

১১২ বছরের রেকর্ড ভেঙে দিলো ইংল্যান্ড

বার্তাকক্ষ সব শঙ্কাকে পাশ কাঁটিয়ে নির্ধারিত সময়েই পাকিস্তানের বিপক্ষে মাঠে নামে ইংল্যান্ড। বৃহস্পতিবার (১...

আইজিপির নেতৃত্বে আইনের শাসনের ক্ষেত্র প্রস্তুতের আশা বিএনপি মহাসচিবের

বার্তাকক্ষ ‘রাজনৈতিক নিপীড়নমূলক বেআইনি, মিথ্যা ও গায়েবি মামলা দায়ের বন্ধ করা এবং দায়েরকৃত সব...

পরিবহন ধর্মঘটের মুখে বুধবার (৯ নভেম্বর) রাত থেকেই ফরিদপুরে বিএনপির সমাবেশস্থলে আসতে শুরু করেছেন নেতাকর্মীরা। বৃহস্পতিবার (১০ নভেম্বর) সমাবেশস্থল ঘুরে দেখা যায় সাধারণ পরিবহনের পাশাপাশি, পায়ে হেঁটে, বিভিন্ন পরিবহন ভাড়া করে বা নিজস্ব পরিবহনে নেতাকর্মীরা সমাবেশে আসছেন। শহরের উপকণ্ঠে কোমরপুরের আব্দুল আজিজ ইনস্টিটিউট মাঠে শনিবার (১২ নভেম্বর) সমাবেশ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। এদিকে সমাবেশ আয়োজন ভেস্তে দিতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা স্থানীয় নেতাকর্মীদের হয়রানি করছে বলে, দলের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে।
সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, জনসভাস্থল প্রস্তুতের কাজ শেষের দিকে। সেখানে মঞ্চ ও আলোকসজ্জার কাজ চলছে। এছাড়া ব্যানার ও ফেস্টুনে সাজানো হয়েছে সমাবেশের আশপাশের স্থান। বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা সমাবেশস্থলে অবস্থান নিয়েছেন।
সমাবেশে আসা নেতাকর্মীরা জানান, বাস-মিনিবাস মালিক সমিতি শুক্রবার (১১ নভেম্বর) সকাল ৬টা থেকে শনিবার (১২ নভেম্বর) সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ধর্মঘট ডেকেছে। এ সময়ে ফরিদপুরের সব যাত্রীবাহী যান চলাচলও বন্ধ থাকবে। এ কারণে বুধবার রাত থেকেই ফরিদপুরের আশপাশের জেলার নেতাকর্মীরা সমাবেশস্থলে আসতে শুরু করেন।
বিএনপি নেতাকর্মীরা অভিযোগ করছেন, সমাবেশ ভেস্তে দিতে বিএনপি নেতাকর্মীদের বাড়িতে হামলা চালানো হচ্ছে। নেতাকর্মীদের গ্রেফতার এবং তাদের মা-বোনদের সঙ্গে ন্যাক্কারজনক আচরণ করা হচ্ছে।
বুধবার রাতেই নেতাকর্মীদের নিয়ে সমাবেশস্থলে এসে পৌঁছেছেন মাদারীপুর জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সাংসদ এ কে এম নাছিরউদ্দিন কালু। তিনি বলেন, শুক্রবার সকাল থেকে বাস ধর্মঘট শুরু হবে। এ কারণে একদিন আগেই নেতাকর্মীদের নিয়ে সমাবেশস্থলে এসে পৌঁছেছি। যত বাধাই আসুক না কেন আমরা সমাবেশ সফল করবো।
ফরিদপুর জেলা বিএনপির আহবায়ক সৈয়দ মোদাররেস আলী ঈসা বলেন, সমাবেশ সফল করতে ইতোমধ্যে সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। তবে আমাদের নেতাকর্মীদের বাড়িতে পুলিশ গিয়ে হয়রানি করছে। শত বাধা উপেক্ষা করে নেতাকর্মীরা সমাবেশে আসা শুরু করেছে।
বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা জহিরুল হক শাহজাদা মিয়া বলেন, এই সরকার যে বাধা সৃষ্টি করছে, তা জনগণ মেনে নেবে না। মানুষের ঢল নামবে সমাবেশে। ফরিদপুরের সমাবেশ সফলভাবে সম্পন্ন হবে। এই সরকারকে আমরা উচ্ছেদ করবোই।
বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও বিভাগীয় গণসমাবেশের প্রধান সমন্বয়কারী ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন বলেন, গণসমাবেশকে কেন্দ্র করে নেতাকর্মীদের আটক করা হচ্ছে। কতজনকে গ্রেফতার করবেন? দেশের মানুষ জেগে উঠেছে। আপনারা রহিম, নূরে আলম, শাওনকে হত্যা করে দমাতে পারেন নাই।
তিনি বলেন, ১২ নভেম্বর ফরিদপুরের বিভাগীয় সমাবেশ অনুষ্ঠানের জন্য রাজেন্দ্র কলেজের মাঠ চেয়ে চিঠি দিলেও অনেক টালবাহানা করে আব্দুল আজিজ ইনস্টিটিউট মাঠে অনুমতি দেওয়া হয়েছে। আবার বাস-মিনিবাস মালিক সমিতি শুক্রবার সকাল ৬টা থেকে শনিবার সন্ধা ৬টা পর্যন্ত ধর্মঘট ডেকেছে। সমিতির নাম ব্যবহার করে এসব ঘটনার পেছনে সুতা টানছে সরকার।
বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক শামা ওবায়েদ বলেন, সারা দেশে আজ গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। পুলিশ বিএনপি নেতাদের বাড়িতে অভিযানের নামে হয়রানি, দুর্ব্যবহার করছে। এতে আমাদের থামিয়ে রাখা যাবে না। সমাবেশ সফল হবেই।এদিকে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শামীম হক বলেন, ফরিদপুরে কোনও বিশৃঙ্খলা করার চেষ্টা হলে জনগণকে নিয়ে তা প্রতিহত করা হবে। ফরিদপুর বঙ্গবন্ধুর জন্মস্থান, জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মস্থান, এই স্থানে কোনও আগুন সন্ত্রাসীদের ঠাঁই হবে না। সব ধরনের ষড়যন্ত্র রুখে দেওয়া হবে।
ধর্মঘটের বিষয়ে ফরিদপুর জেলা বাস মালিক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক আনিচুর রহমান বলেন, আমরা দীর্ঘদিন ধরে মহাসড়কে থ্রি-হুইলার, মাহেন্দ্র বন্ধের দাবিতে আন্দোলন করে আসছি। এর আগেও আমরা বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছি। তারই ধারাবাহিকতায় শুক্রবার সকাল ৬টা থেকে শনিবার রাত ৮টা পর্যন্ত সকল ধরনের যান চলাচল বন্ধ রাখা হবে।
ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) মোহাম্মদ ইমদাদ হোসাইন বলেন, বিএনপির নেতাকর্মীদের কোনও হয়রানি করা হচ্ছে না। যাদের বিরুদ্ধে মামলা রয়েছে, ওয়ারেন্ট রয়েছে এবং আইনশৃঙ্খলা অবনতি করার রেকর্ড আছে, পুলিশ নিয়মিত কাজের অংশ হিসেবে তাদের বাড়িতে তল্লাশি করেছে।

spot_img
spot_img

এধরণের সংবাদ আরো পড়ুন

আইজিপির নেতৃত্বে আইনের শাসনের ক্ষেত্র প্রস্তুতের আশা বিএনপি মহাসচিবের

বার্তাকক্ষ ‘রাজনৈতিক নিপীড়নমূলক বেআইনি, মিথ্যা ও গায়েবি মামলা দায়ের বন্ধ করা এবং দায়েরকৃত সব...

বাড়াবাড়ি করলে খবর আছে, বিএনপিকে কাদের

বার্তাকক্ষ বিএনপির উদ্দেশে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের...

স্থায়ী কমিটির বৈঠকে সিদ্ধান্ত ১০ ডিসেম্বর নয়াপল্টনেই বিএনপির গণসমাবেশ

বার্তাকক্ষ সব দুরভিসন্ধি, বাধা-বিপত্তি পেরিয়ে রাজশাহী ও ঢাকায় অনুষ্ঠেয় গণসমাবেশ সফল করতে জনগণের প্রতি...