Thursday, December 1, 2022
হোম আইটিআইবিএমের নতুন কোয়ান্টাম কম্পিউটার অসপ্রে

আইবিএমের নতুন কোয়ান্টাম কম্পিউটার অসপ্রে

Published on

সাম্প্রতিক সংবাদ

পুতিনের রাশিয়ার সঙ্গে যুদ্ধবিরতির সম্ভাবনা দেখছে না ইউক্রেন

বার্তাকক্ষ রাশিয়া ও ইউক্রেনের নেতারা একটি কূটনৈতিক আলোচনার মাধ্যমে ৯ মাস দীর্ঘ যুদ্ধের অবসান...

পাপড়ি-করামত আলী সাহিত্য পুরস্কার পেলেন তানভীর সিকদার

পাপড়ি-করামত আলী সাহিত্য পুরস্কার পেয়েছেন তরুণ কবি তানভীর সিকদার। তার দ্বিতীয় কাব্যগ্রন্থ ‘সেফটিপিনে গেঁথে...

১১২ বছরের রেকর্ড ভেঙে দিলো ইংল্যান্ড

বার্তাকক্ষ সব শঙ্কাকে পাশ কাঁটিয়ে নির্ধারিত সময়েই পাকিস্তানের বিপক্ষে মাঠে নামে ইংল্যান্ড। বৃহস্পতিবার (১...

আইজিপির নেতৃত্বে আইনের শাসনের ক্ষেত্র প্রস্তুতের আশা বিএনপি মহাসচিবের

বার্তাকক্ষ ‘রাজনৈতিক নিপীড়নমূলক বেআইনি, মিথ্যা ও গায়েবি মামলা দায়ের বন্ধ করা এবং দায়েরকৃত সব...

বার্তাকক্ষ অসপ্রে নামে নিজেদের সবচেয়ে শক্তিশালী কোয়ান্টাম কম্পিউটার চালুর ঘোষণা দিয়েছে ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস মেশিনস করপোরেশন (আইবিএম)। ২০২১ সালে যে ইগল কম্পিউটার আনা হয়েছিল সেটির তুলনায় ৪৩৩ কিউবিটের মেশিন তিন গুণ বেশি শক্তিশালী। খবর রয়টার্স।
কোয়ান্টাম কম্পিউটারের সক্ষমতা পরিমাপের একক হলো কোয়ান্টাম বিট বা কিউবিট। আইবিএম ছাড়া এখন পর্যন্ত হাতেগোনা মাত্র কয়েকটি প্রতিষ্ঠান কোয়ান্টাম কম্পিউটার তৈরি করেছে। প্রতিটি প্রতিষ্ঠান তাদের ডিভাইসের সক্ষমতা নিয়ে ভিন্ন দাবি জানিয়েছে। ব্যক্তিগত কাজে বা প্রতিষ্ঠানে যে কম্পিউটার ব্যবহার করা হয়, সেগুলো দিয়ে বড় কাজ করা যায় না। জটিল বা বড় হিসাবের জন্য সুপারকম্পিউটার ব্যবহার করা হয়। তবে এতেও যে খুব কম সময় লাগে তা নয়।
সুপারকম্পিউটারের গণনা ক্ষমতা কয়েক কোটি গুণ বাড়ানোর সম্ভাবনা সামনে নিয়ে এসেছে কোয়ান্টাম কম্পিউটার। প্রযুক্তির বিষয়ে আইবিএমের অগ্রগতি নিয়ে প্রতিষ্ঠানটির গবেষণা বিভাগের পরিচালক ডারিও গিল বলেন, আইবিএম ১ হাজার কিউবিটের কোয়ান্টাম কম্পিউটার নির্মাণে কাজ করছে। সেই সঙ্গে এ লক্ষ্য অর্জনে একটি নতুন কৌশল নিয়েও কাজ চলছে।
গিল বলেন, আমরা যে অসপ্রে চিপের ঘোষণা দিয়েছি তার সক্ষমতা যতটা সম্ভব বাড়ানোর চেষ্টা করেছি। খেয়াল করলে দেখা যাবে এটি আকারে বেশ বড়। আগামী বছর ১ হাজার কিউবিটের চিপ আরো বড় হবে। তাই এর পরের পদক্ষেপ হিসেবে মডুলারিটিকে কেন্দ্র করে কোয়ান্টাম কম্পিউটিংয়ের একেবারে নতুন নকশা প্রণয়ন ও নির্মাণকাজ চলছে বলে রয়টার্সকে দেয়া এক সাক্ষাত্কারে জানান তিনি।
মডুলারিটির মানে হচ্ছে, চিপগুলো একে অন্যের সঙ্গে সংযুক্ত থাকবে। নতুন এ মডুলার নির্মাণ কৌশলকে কোয়ান্টাম সিস্টেম টু নাম দিয়েছে আইবিএম। কোয়ান্টাম সিস্টেম টু কার্যত বিশ্বের প্রথম মডুলার কোয়ান্টাম কম্পিউটিং সিস্টেম, যার মাধ্যমে সময়ের সঙ্গে আরো বড় সিস্টেম বানানো যায়। সম্প্রতি অনুষ্ঠিত আইবিএম কোয়ান্টাম সামিটে গিল এ কথা জানান।
২০২৩ সালের শেষ নাগাদ অসপ্রেকে পুরোপুরি কার্যকর করার লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছে আইবিএম। এছাড়া একাধিক কোয়ান্টাম সিস্টেম টু একে অন্যের সঙ্গে জুড়ে দিয়ে কোয়ান্টাম কেন্দ্রিক সুপারকম্পিউটিং কাঠামো নির্মাণের লক্ষ্যেও এগোচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি।
তিনটি কোয়ান্টাম সিস্টেম টু জুড়ে দিয়ে ১৬ হাজার ৬৩২ কিউবিটের কোয়ান্টাম কম্পিউটার নির্মাণের সুযোগ আছে বলেও আইবিএম জানিয়েছে। বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে ২০টির বেশি সুপারকম্পিউটার আছে আইবিএমের। গ্রাহকরা চাইলে ক্লাউডের মাধ্যমে সুপারকম্পিউটারগুলো ব্যবহার করতে পারেন।

spot_img
spot_img

এধরণের সংবাদ আরো পড়ুন

‘ফলো’ না করা অ্যাকাউন্টের টুইটও দেখা যাবে

বার্তাকক্ষ ইলন মাস্কের হাতে যাওয়ার পর থেকে একের পর এক পরিবর্তন আসছে টুইটারে। বিশ্বের...

৫০ লাখ ইউটিউব চ্যানেল যে কারণে বাতিল হলো

বার্তাকক্ষ ইউটিউব এখন শুধুই বিনোদনের প্ল্যাটফর্ম নয়, অর্থ উপার্জন করার অন্যতম মাধ্যম। বিশ্বে কোটি...

স্মার্টফোনকেই বানিয়ে নিন ডাম্বফোন

বার্তাকক্ষ সবার হাতেই এখন স্মার্টফোন। এটি ছাড়া এক মুহূর্তও চিন্তা করা যায় না। কখনো...