Thursday, December 1, 2022
হোম আইটিবৈশ্বিক সমাধানই রুখতে পারে র‍্যানসমওয়্যার আক্রমণ

বৈশ্বিক সমাধানই রুখতে পারে র‍্যানসমওয়্যার আক্রমণ

Published on

সাম্প্রতিক সংবাদ

পুতিনের রাশিয়ার সঙ্গে যুদ্ধবিরতির সম্ভাবনা দেখছে না ইউক্রেন

বার্তাকক্ষ রাশিয়া ও ইউক্রেনের নেতারা একটি কূটনৈতিক আলোচনার মাধ্যমে ৯ মাস দীর্ঘ যুদ্ধের অবসান...

পাপড়ি-করামত আলী সাহিত্য পুরস্কার পেলেন তানভীর সিকদার

পাপড়ি-করামত আলী সাহিত্য পুরস্কার পেয়েছেন তরুণ কবি তানভীর সিকদার। তার দ্বিতীয় কাব্যগ্রন্থ ‘সেফটিপিনে গেঁথে...

১১২ বছরের রেকর্ড ভেঙে দিলো ইংল্যান্ড

বার্তাকক্ষ সব শঙ্কাকে পাশ কাঁটিয়ে নির্ধারিত সময়েই পাকিস্তানের বিপক্ষে মাঠে নামে ইংল্যান্ড। বৃহস্পতিবার (১...

আইজিপির নেতৃত্বে আইনের শাসনের ক্ষেত্র প্রস্তুতের আশা বিএনপি মহাসচিবের

বার্তাকক্ষ ‘রাজনৈতিক নিপীড়নমূলক বেআইনি, মিথ্যা ও গায়েবি মামলা দায়ের বন্ধ করা এবং দায়েরকৃত সব...

বার্তাকক্ষ র‍্যানসমওয়্যার মূলত এক ধরনের বিশেষ ম্যালওয়্যার। সাইবার সন্ত্রাসীরা এর মাধ্যমে ডিজিটাল যেকোনো ডিভাইসের ক্ষতি করতে পারে। ব্যাংকের অর্থ থেকে চুরি হয়ে যেতে পারে ডিভাইসে থাকা গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ও নথি। অর্থ প্রদানের মাধ্যমে এসব তথ্য উদ্ধার সম্ভব হলেও অনেক সময় গ্রাহক ফাইলগুলোয় পূর্ণ প্রবেশাধিকার পায় না। তাই ম্যালওয়্যার সবসময়ই ভয়ংকর। তাছাড়া বর্তমানে র‍্যানসমওয়্যার তৈরিকারক হ্যাকাররা ক্রিপ্টোকারেন্সি, বিটকয়েন কিংবা ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে অর্থের লেনদেন করছে। তাই ক্রমেই এ ধরনের আক্রমণ বাড়ছে।
গত বছর সাইবার সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের জাস্টিস ডিপার্টমেন্ট বড় ধরনের পদক্ষেপ নেয় ও সফল হয়। তারা সফলভাবে ২৩ লাখ ডলার বিটকয়েন উদ্ধার করে। যুক্তরাষ্ট্রের পরিশোধিত তেলের বৃহত্তর পাইপলাইন কলোনিয়াল পাইপলাইন ঘটনায় ডার্কসাইট র‍্যানসমওয়্যার গ্যাংয়ের কাছ থেকেও অর্থ উদ্ধার করে জাস্টিস ডিপার্টমেন্ট। পরের মাসে অন্য একটি র্যানসামওয়্যার গ্যাংকেও শায়েস্তা করে সরকারি সংস্থাটি।
অভিযানের বিপরীতে পাল্টা আঘাত হানতে শুরু করে সাইবার সন্ত্রাসীরা। বিশেষ করে জাস্টিস ডিপার্টমেন্টের পদক্ষেপের প্রত্যুত্তর হিসেবে ডিজিটাল সন্ত্রাসীরা আক্রমণ বাড়িয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। চলতি বছর একের পর এক আক্রমণ করছে তারা। প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুসারে ২০২২ সালেই সবচেয়ে বেশি র‍্যানসমওয়্যার আক্রমণের ঘটনা ঘটেছে। গত বছরের তুলনায় ২০২২ সালে এ আক্রমণের পরিমাণ বেড়েছে ৮০ শতাংশ। খবর টেকক্রাঞ্চ।
সাইবার অপরাধীরা সহজেই র‍্যানসমওয়্যারকে একটি পরিষেবা হিসেবে ব্যবহার করে বা পুনরায় ব্র্যান্ডিংয়ের মাধ্যমে আইন প্রয়োগকারী পদক্ষেপকে ফাঁকি দেয়। ক্লাউডফ্লেয়ারের সিইও ম্যাথিউ প্রিন্স টেকক্রাঞ্চকে বলেন, এটা স্পষ্ট যে র‍্যানসমওয়্যার আক্রমণ বাড়ছে। সেপ্টেম্বরে আমাদের গ্রাহক সমীক্ষায় প্রতি চারজন উত্তরদাতার মধ্যে প্রায় একজন র‍্যানসমওয়্যার আক্রমণ বা হুমকি পাওয়ার কথা জানিয়েছেন।
শুধু পরিসংখ্যানগতভাবেই ২০২২ সালকে র‍্যানসমওয়্যার আক্রমণের শিকার হওয়া অন্যতম বছর বলা হচ্ছে না। পাশাপাশি হ্যাকাররা আক্রমণের ধরনও পাল্টেছে। গত বছর হ্যাকাররা অবকাঠামো ও আর্থিক পরিষেবা খাতগুলোর প্রতি বেশি মনোযোগী থাকলেও চলতি বছর বড় বড় প্রতিষ্ঠানের তথ্য লোপাটেই আগ্রহী।
লস অ্যাঞ্জেলেস ইউনিফায়েড স্কুল ডিস্ট্রিক্টে ম্যালওয়ার আক্রমণের মাধ্যমে ভাইস সোসাইটি হ্যাকাররা ৫০০ গিগাবাইটের সংবেদনশীল তথ্য হাতিয়ে নেয় ও ফাঁস করে। সেখানে শিক্ষার্থীদের মনস্তাত্ত্বিক মূল্যায়নের তথ্য ছিল। তবে অন্যতম বড় ঝাঁকুনিটি ছিল যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিস (এনএইচএস) আক্রমণের ঘটনা। এনএইচএসকে আইটি পরিষেবা প্রদানকারী একটি প্রতিষ্ঠান নিশ্চিত করে আগস্টে র‍্যানসমওয়্যার আক্রমণের সময় এর সিস্টেম থেকে তথ্য চুরি হয়েছে, তবে তা থেকে রোগীর তথ্য চুরি হয়েছে কিনা তা জানাতে অস্বীকার করা হয়। এরপর শোনা যায় যে কর্মীরা কাগজ-কলমে নোট রাখা শুরু করেছেন।
তবে ২০২২ সালের সবচেয়ে বিধ্বংসী আক্রমণটি ছিল অস্ট্রেলিয়ান স্বাস্থ্য বীমা জায়ান্ট মেডিব্যাংকের তথ্যে প্রবেশের ঘটনা। এতে প্রায় ৯৭ লাখ গ্রাহকের ব্যক্তিগত বিবরণ এবং প্রায় অর্ধ মিলিয়ন গ্রাহকের স্বাস্থ্যগত তথ্যে অনুপ্রবেশ করা হয়। এ সময় চুরি করা তথ্যের মধ্যে গর্ভপাত ও অ্যালকোহল সংক্রান্ত অসুস্থতা সম্পর্কিত সংবেদনশীল তথ্যও ছিল।
তবে ২০২১ সালের মে মাসে মেরিল্যান্ডের কলোনিয়াল পাইপলাইনের ঘটনাটি ছিল থমকে দেয়ার মতো। মার্কিন সরকার এটিকে আঞ্চলিক জরুরি অবস্থা ঘোষণা করে কারণ র‍্যানসমওয়্যার হামলার দুদিন পর সবচেয়ে বড় মার্কিন জ্বালানি পাইপলাইন কার্যক্রম মূলত বন্ধ ছিল।
একের পর এক আক্রমণগুলো খারাপ অবস্থার কথাই তুলে ধরে। তাই বিশেষজ্ঞদের অভিমত, র‍্যানসমওয়্যার একটি বিশ্বব্যাপী সমস্যা, সফলভাবে এর বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য বিশ্বব্যাপী পদক্ষেপ প্রয়োজন। এর অংশ হিসেবে নভেম্বরের শুরুতে মার্কিন সরকার তথ্য ও সক্ষমতা ভাগ করে নেয়ার জন্য একটি আন্তর্জাতিক কাউন্টার র‍্যানসমওয়্যার টাস্কফোর্স বা আইসিআরটিএফ প্রতিষ্ঠা করবে বলে ঘোষণা দিয়েছে।

spot_img
spot_img

এধরণের সংবাদ আরো পড়ুন

‘ফলো’ না করা অ্যাকাউন্টের টুইটও দেখা যাবে

বার্তাকক্ষ ইলন মাস্কের হাতে যাওয়ার পর থেকে একের পর এক পরিবর্তন আসছে টুইটারে। বিশ্বের...

৫০ লাখ ইউটিউব চ্যানেল যে কারণে বাতিল হলো

বার্তাকক্ষ ইউটিউব এখন শুধুই বিনোদনের প্ল্যাটফর্ম নয়, অর্থ উপার্জন করার অন্যতম মাধ্যম। বিশ্বে কোটি...

স্মার্টফোনকেই বানিয়ে নিন ডাম্বফোন

বার্তাকক্ষ সবার হাতেই এখন স্মার্টফোন। এটি ছাড়া এক মুহূর্তও চিন্তা করা যায় না। কখনো...