Thursday, December 8, 2022
হোম খেলামেসিদের আছে একজন স্কালোনি

মেসিদের আছে একজন স্কালোনি

Published on

সাম্প্রতিক সংবাদ

ব্যাংকিং খাত নিয়ে গুজব

ব্যাংকিং খাত নিয়ে গুজব গ্রাহকের মনে সন্দেহের দানা বেঁধেছে। রটানো হচ্ছে। ফেসবুক, টুইটার, ইনস্টাগ্রাম...

বিএনপির কার্যালয় থেকে বোমা উদ্ধার: পুলিশ

বার্তাকক্ষ রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে বোমা ও ককটেল উদ্ধার করা হয়েছে বলে...

পুরুষের ফুসফুস, নারীর স্তন ক্যানসার বেশি

বার্তাকক্ষ দেশে ক্যানসার আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। রাজধানীর ক্যানসার গবেষণা ইনস্টিটিউট ও...

খুলনার সাবেক ডিসি ও ডুমুরিয়ার ইউএনওকে হাইকোর্টে তলব

বার্তাকক্ষ খুলনার ভদ্রা ও হরি নদীতে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের আদেশ প্রতিপালন না করায় সাবেক...

বার্তাকক্ষ:
২০১৮ সালে সালে যখন দায়িত্ব নিয়েছিলেন সমালোচনা কম হয়নি। স্বয়ং প্রয়াত দিয়েগো ম্যারাডোনা ছিলেন সোচ্চার। কিন্তু লিওনেল স্কালোনি নীরবে সয়ে গেছেন। অপেক্ষায় ছিলেন নিজেকে প্রমাণের। চার বছরের পরিক্রমায় স্কালোনি এরই মধ্যে নিজেকে প্রমাণ করেছেন। গড়েছেন নতুন ইতিহাস। দীর্ঘদিন পর কোপা জিতিয়ে দলকে নিয়ে গেছেন অনন্য উচ্চতায়। টানা ৩৬টি ম্যাচ অপরাজিত থেকে দল এসেছে কাতারে। এসেছে নতুন মিশনে। আজই তাদের মিশন শুরু হচ্ছে। প্রতিপক্ষ সৌদি আরবের সঙ্গে। এই ম্যাচ জিতলেই ইতালির ৩৬ ম্যাচ অপরাজিত থাকার রেকর্ড ছুঁতে পারবে। ধরেই নেওয়া হচ্ছে মেসি ও তার দল সেই কাজটি করতে পারবে সুচারুভাবে। ৪৪ বছর বয়সী কোচ যেভাবে দলকে খেলাচ্ছেন, তাতে করে মরুর বুকে ঝড় উঠলে অবাক হওয়ার মতো কিছু থাকবে না। মাঠে তা প্রমাণের জন্য মেসি-দিবালারা তৈরি। এই দল নিয়ে যে অনেক কাজ হয়েছে, তা কোচের কথাতেই পরিষ্কার। মানসিক দিক থেকে শুরু করে সব বিভাগে দারুণ কাজ করছেন। পুরো দলকে উদ্দীপ্ত করছেন। এখন এই দলটার ওপর সবাই আস্হা রাখছেন। তাইতো স্কালোনি তো বলেই দিয়েছেন, ‘এই দলটার বড় সমস্যা ছিল মানসিকতায়। এই দলটা যে জিততে পারবে, সেই বিশ্বাস হারিয়ে ফেলেছিল। অথচ তারা ভালো খেলোয়াড়। আমি এই জায়গায় কাজ করার চেষ্টা করেছি। কোচের ওপর যে আস্হা রাখা যায়, সেটা প্রমাণ করেছি।’ আর বিশ্বকাপ নিয়ে স্কালোনি মাটিতেই থাকছেন। বাড়তি চাপ নিচ্ছে না। বলেছেন, ‘বড় দলগুলো সব সময় বিশ্বাকপ জেতে না। মাঠে প্রমাণ করতে হয় যে সেরা। ৩৬ ম্যাচ অপরাজিত আছি, এর মানে নয় যে, আমরা বিশ্বকাপ জিতে ফেলেছি। তবে আমরা ভালো ছন্দে আছি। আশা করছি, ভালো কিছু হবে। সমর্থকরা ইতিবাচক কিছু দেখতে পাবে।’ কাতারে যদি সবকিছু ঠিকঠাক থাকে, নিজেদের মতো খেলতে পারে দল— তাহলে হয়তো ইতিহাসে সিজার লুই মেনোত্তি ও কার্লোস বিলার্দোর সঙ্গেই স্কালোনির নাম একই সঙ্গে উচ্চারিত হবে। আর আর্জেন্টিনার সমর্থকরা চাইছেন সেটাই। স্কালোনির কোচিংয়ে লিওনেল মেসির ও তার সতীর্থদের হাতে ট্রফি দেখতে। তা দেখে হয়তো গ্রেট ম্যারাডোনাও অন্যলোক থেকে আনন্দে ভাসবেন।

spot_img
spot_img

এধরণের সংবাদ আরো পড়ুন

৭ বছর পর ভারতের বিপক্ষে আবারও সিরিজ জয় বাংলাদেশের

বার্তাকক্ষ আঙ্গুলের আঘাতে হাসপাতালে গিয়েছিলেন রোহিত শর্মা। ব্যান্ডেজ বেধে আবার মাঠে ফিরেও আসেন। হয়তো...

সাকিবের বলে ফিরলেন ওয়াশিংটন

বার্তাকক্ষ বিরাট কোহলি আর শিখর ধাওয়ানের উইকেট হারানোর পর এমনিতেই বেশ চাপে পড়ে গেছে...

ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস, শেষ বলে ঝোড়ো সেঞ্চুরি মিরাজের

বার্তাকক্ষ ওভার বাকি আর একটা। মিরাজের রান তখন ৭৮ বলে ৮৫। সেঞ্চুরিটা করতে হলেও...