Friday, December 2, 2022
হোম রাজনীতিপুলিশের অভিযানে ককটেল বিস্ফোরণ, বিএনপির দাবি ‘সাজানো নাটক’

পুলিশের অভিযানে ককটেল বিস্ফোরণ, বিএনপির দাবি ‘সাজানো নাটক’

Published on

সাম্প্রতিক সংবাদ

শেষ ম্যাচে খেলার সম্ভাবনা কম রোনালদোর, নেপথ্যে রহস্যের গন্ধ!

বার্তাকক্ষ উরুগুয়ের বিপক্ষে প্রথম গোলটি নিয়ে বেশ ঝামেলার মধ্যেই পড়েছে পর্তুগাল ফুটবল দল। রোনালদোর...

রাশিয়ার তেল ব্যারেলপ্রতি ৬০ ডলারে কিনতে একমত ইইউ

বার্তাকক্ষ রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধে টালমাটাল বিশ্ব অর্থনীতি। অস্থিরতা বিরাজ করছে তেলের আন্তর্জাতিক বাজারেও। সস্তায় তেল...

যশোর মনিরামপুরে কাভার্ডভ্যানের চাপায় ৫ জন নিহত:  তিনঘন্টা যান চলাচল বন্ধ 

জি এম ফারুক আলম/শামমি হোসনে,মণিরামপুর যশোর-সাতক্ষীরা সড়কের মণিরামপুর বেগারীতলা নামক বাজারে এক সড়ক দূর্ঘটনায়...

যশোরে অজ্ঞান পার্টির চার সদস্য আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যশোরে অজ্ঞান পার্টির চার সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব-৬ যশোরের সদস্যরা। এ সময় তাদের...

বার্তাকক্ষ পাবনার চাটমোহর উপজেলায় অভিযান চলাকালে পুলিশের ওপর ককটেল বিস্ফোরণের অভিযোগ উঠেছে বিএনপির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার (২২ নভেম্বর) রাতে চাটমোহর পৌর সদরের আফ্রাতপাড়া মহল্লায় এ বিস্ফোরণ ঘটে।
এ সময় উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক হাসাদুল ইসলাম হীরার ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে চারটি তাজা ককটেল উদ্ধার করে পুলিশ। তবে ঘটনাটি ‘সাজানো নাটক’ বলে দাবি করেছে বিএনপি।
চাটমোহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জালাল উদ্দিন বলেন, রাতে আফ্রাতপাড়া মহল্লায় একটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে বিএনপি নেতাকর্মীরা গোপন বৈঠক করছিলেন। এমন সংবাদে সেখানে অভিযানে যায় পুলিশ। এসয় বিএনপির নেতাকর্মীরা দুটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়। পরে পুলিশ ধাওয়া করলে সবাই পালিয়ে যায়।ওসি আরও বলেন, ঘটনাস্থল থেকে চারটি তাজা ককটেল পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা প্রক্রিয়াধীন।
তবে উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান হাসাদুল ইসলাম হীরা বলেন, মঙ্গলবার রাতে আমার ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে বিএনপির কোনো বৈঠকই ছিল না। আমাদের একটি বৈঠক হয়েছিল ২১ নভেম্বর। আর ককটেল বিস্ফোরণ ঘটনাও অবান্তর। বিএনপির নেতাকর্মীদের হয়রানি করতে এটি পুলিশ ও ছাত্রলীগের সাজানো একটি নাটক মাত্র।
পাবনা জেলা বিএনপির সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট মাসুদ খন্দকার বলেন, ৩ ডিসেম্বর বিএনপির রাজশাহী বিভাগীয় সমাবেশ বানচাল করতে সরকার হামলা-মামলা করে হয়রানি করছে। ওই সমাবেশে যাতে চাটমোহর উপজেলা বিএনপির নেতাকর্মীরা অংশ নিতে না পারে এ জন্য নাটক সাজানো হয়েছে। এখন এ ঘটনায় উপজেলা বিএনপি নেতাকর্মীর নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করা হবে। তারপরও গণতান্ত্রিক আন্দোলনের মাধ্যমে এ সরকারকে হঠানো হবে।

spot_img
spot_img

এধরণের সংবাদ আরো পড়ুন

আইজিপির নেতৃত্বে আইনের শাসনের ক্ষেত্র প্রস্তুতের আশা বিএনপি মহাসচিবের

বার্তাকক্ষ ‘রাজনৈতিক নিপীড়নমূলক বেআইনি, মিথ্যা ও গায়েবি মামলা দায়ের বন্ধ করা এবং দায়েরকৃত সব...

বাড়াবাড়ি করলে খবর আছে, বিএনপিকে কাদের

বার্তাকক্ষ বিএনপির উদ্দেশে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের...

স্থায়ী কমিটির বৈঠকে সিদ্ধান্ত ১০ ডিসেম্বর নয়াপল্টনেই বিএনপির গণসমাবেশ

বার্তাকক্ষ সব দুরভিসন্ধি, বাধা-বিপত্তি পেরিয়ে রাজশাহী ও ঢাকায় অনুষ্ঠেয় গণসমাবেশ সফল করতে জনগণের প্রতি...