Friday, December 2, 2022
হোম রাজনীতিগণসমাবেশের দুদিন আগেই কুমিল্লায় বিএনপির লাখো নেতাকর্মী

গণসমাবেশের দুদিন আগেই কুমিল্লায় বিএনপির লাখো নেতাকর্মী

Published on

সাম্প্রতিক সংবাদ

অবশেষে এনডিটিভির মালিকানা গৌতম আদানির হাতে

বার্তাকক্ষ বিশ্বের তৃতীয় ও এশিয়ার শীর্ষ ধনী গৌতম আদানি এখন ভারতের জনপ্রিয় সম্প্রচার মাধ্যম...

বাংলাদেশিদের নিয়ে কটূক্তি, তোপের মুখে বলিউড অভিনেতা পরেশ রাওয়াল

বার্তাকক্ষ বাংলাদেশি ও বাঙালিদের নিয়ে কটূক্তি করে তোপের মুখে পড়েছেন বলিউড অভিনেতা পরেশ রাওয়াল।...

এত নেতা স্টেজে, কর্মী কোথায়: ছাত্রলীগের সম্মেলনে কাদেরের প্রশ্ন

বার্তাকক্ষ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ও উত্তর ছাত্রলীগের যৌথ বার্ষিক সম্মেলনে বক্তব্য দেওয়ার সময় নেতাকর্মীদের...

দ্য ইকোনমিস্টের প্রতিবেদন কার্বন নিরপেক্ষতার প্রতিশ্রুতি ধরে রাখতে পারছে না কাতার

বার্তাকক্ষ ২০০৯ সালে কাতার যখন বিশ্বকাপ ফুটবল স্বাগতিকের খাতায় নাম লিখিয়েছিল তখনই প্রতিশ্রুতি দেয়...

বার্তাকক্ষ কুমিল্লায় বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশের এখনো দুইদিন বাকি। এরইমধ্যে সমাবেশস্থলে অবস্থান নিয়েছেন পার্শ্ববর্তী বিভিন্ন জেলা ও উপজেলা থেকে আসা নেতাকর্মীরা। কুমিল্লার ঐতিহাসিক টাউনহল মাঠে আসাদের বেশিরভাগই যুবক। অধিকাংশের কাঁধে ব্যাগ। সেখানে ছোট ছোট ভাগে বিভক্ত হয়ে মিছিল করছেন তারা। থেমে থেমে চলছে সরকারবিরোধী বিভিন্ন স্লোগান।
বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) দিনগত মধ্যরাতে সরেজমিন এমন চিত্র দেখা গেছে।
বিএনপি সূত্র জানিয়েছে, দেশের অন্যান্য বিভাগে বিএনপির গণসমাবেশ সামনে রেখে পরিবহন ধর্মঘট করেছেন মালিক-শ্রমিকরা। কুমিল্লায় বিএনপির গণসমাবেশ ঘিরেও এমন শঙ্কা রয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে সমাবেশে দুদিন আগেই দলের নেতাকর্মীরা কুমিল্লায় জড়ো হচ্ছেন। পার্শ্ববর্তী জেলা ফেনী, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, চাঁদপুর, ব্রাহ্মণবাড়িয়াসহ আশপাশের জেলা থেকে লক্ষাধিক নেতাকর্মী কুমিল্লা মহানগরীতে এসেছেন।সমাবেশস্থল ঘুরে দেখা গেছে, রাতে কনকনে শীতে অনেকে চট বিছিয়ে মাঠে শুয়ে আছেন। অনেকে আবার জড়ো হয়ে আড্ডা-গল্পে মেতেছেন। কেউ কেউ দীর্ঘপথ পাড়ি দিয়ে সমাবেশস্থলে এসে ক্লান্ত হয়ে ঘুমিয়ে পড়েছেন।আগেই সমাবেশস্থলে হাজির হওয়া নেতাকর্মীরা জানান, পুলিশি হয়রানি ও পরিবহন ধর্মঘটের আশঙ্কায় তারা আগেভাগে কুমিল্লায় চলে এসেছেন। কাল সকাল নাগাদ আরও নেতাকর্মীরা এসে পৌঁছাবেন।
চাঁদপুরের শাহরাস্তি উপজেলা ছাত্রদলের আহ্বায়ক ইঞ্জিনিয়ার পলাশ বলেন, গণগ্রেফতার ও হয়রানি এড়াতে বিভিন্ন মাধ্যমে আমাদের উপজেলার প্রায় ৭০০ নেতাকর্মী আজ সমাবেশস্থলে চলে এসেছি। মাঠেই রাত্রিযাপন করবো। সমাবেশ সফল করতে আমরা সর্বত্মক চেষ্টা করবো।
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলা যুবদলের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মজনু মিয়া বলেন, ‘সব সমাবেশের আগেই সরকার গাড়ি বন্ধ করে দেয়। তাই আগেই চলে এসেছি। একটা ভয় তো কাজ করেই। কারণ সরকার কখন কী কইরা বসে, বলা তো আর যায় না। তবুও আমরা এখান থেকে সমাবেশ শেষ না হওয়া পর্যন্ত যাচ্ছি না। এখানেই থাকবো, এখানেই খাবো।’
ফেনী থেকে আসা আলমগীর নামে এক বিএনপি নেতা বলেন, ‘কুমিল্লার সমাবেশ সফল হবে। পরিবহন বন্ধ করেও আর কোনো লাভ নেই। বর্তমানে কুমিল্লায় দেড় থেকে দুই লাখ নেতাকর্মী আবস্থান করছেন। আমাদের জন্য থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থা করায় কুমিল্লা নেতাদের কাছে কৃতজ্ঞ।’
বিএনপির ত্রাণ ও পুনর্বাসন সম্পাদক এবং কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক হাজী আমিন উর রশিদ ইয়াছিন বলেন, ‘এখনো পরিবহন বন্ধের কোনো খবর আমাদের কাছে নেই। আর বাস বন্ধ করেও লাভ হবে না। নেতাকর্মীরা কুমিল্লায় চলে এসেছেন। বাকিরাও পায়ে হেঁটে হলেও কুমিল্লায় পৌঁছাবেন।’
তবে বিভিন্ন স্থানে নেতাকর্মীদের বাধা দেওয়া হচ্ছে অভিযোগ করে তিনি বলেন, ‘আমাদের কাছে খবর আসছে, নেতাকর্মীদের পথে পথে বাধা দেওয়া হচ্ছে। বর্মমানে যারা কুমিল্লায় আবস্থান করছেন তাদের জন্য জেলা বিএনপির পক্ষ থেকে খাওয়া-দাওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে।’

spot_img
spot_img

এধরণের সংবাদ আরো পড়ুন

এত নেতা স্টেজে, কর্মী কোথায়: ছাত্রলীগের সম্মেলনে কাদেরের প্রশ্ন

বার্তাকক্ষ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ও উত্তর ছাত্রলীগের যৌথ বার্ষিক সম্মেলনে বক্তব্য দেওয়ার সময় নেতাকর্মীদের...

বিএনপির গণসমাবেশ একদিন আগেই সরগরম রাজশাহীর মাদরাসা মাঠ এলাকা

বার্তাকক্ষ রাজশাহীতে বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশ আগামীকাল। এর আগে ডাকা হয়েছে পরিবহন ধর্মঘট। এ কারণে...

আইজিপির নেতৃত্বে আইনের শাসনের ক্ষেত্র প্রস্তুতের আশা বিএনপি মহাসচিবের

বার্তাকক্ষ ‘রাজনৈতিক নিপীড়নমূলক বেআইনি, মিথ্যা ও গায়েবি মামলা দায়ের বন্ধ করা এবং দায়েরকৃত সব...