Friday, December 9, 2022
হোম শহর-গ্রামঝিনাইদহঝিনাইদহে থোকায় থোকায় ঝুলছে রসালো চায়না কমলা

ঝিনাইদহে থোকায় থোকায় ঝুলছে রসালো চায়না কমলা

Published on

সাম্প্রতিক সংবাদ

সমাবেশ ঘিরে ঢাকায় ৭ লাখ মানুষ এসেছে কি না খোঁজ চলছে: ডিবি

বার্তাকক্ষ বিএনপিকে রাজধানীর গোলাপবাগ মাঠে শনিবার (১০ ডিসেম্বর) সমাবেশ করার অনুমতি দিয়েছে ঢাকা মহানগর...

মার্কিন রাষ্ট্রদূতকে কৃষিমন্ত্রী এ ধরনের বিবৃতি ভবিষ্যতে আর দেবেন না

বার্তাকক্ষ গত ৭ ডিসেম্বর নয়াপল্টনের ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিবৃতি দেওয়ায় ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূতকে...

ঢাবিতে বিশ্বকাপ খেলা দেখানো ১২ ডিসেম্বর পর্যন্ত স্থগিত

বার্তাকক্ষ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়(ঢাবি) ক্যাম্পাসের তিনটি স্থানে বড় পর্দায় খেলা দেখানো স্থগিত করেছে আয়োজক প্রতিষ্ঠান...

শুরু থেকেই মাঠে নামতে পারেন ডি মারিয়া, বাদ পড়বেন কে?

বার্তাকক্ষ কাতার বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিতর আর্জেন্টিনা শিবিরে গেলে সংবাদমাধ্যমের এখন একটাই জিজ্ঞাসা, স্কালোনি কি নেদারল্যান্ডসের...

ঝিনাইদহ সংবাদদাতা
সারি সারি গাছের সবুজ পাতার ফাঁকে ফাঁকে ঝুলছে সবুজ ও হলুদ রংয়ের চায়না কমলা। কাঁচা অবস্থায় গাঢ় সবুজ ও পেকে ধারণ করেছে গাঢ় হলুদ রং। শীতের শুরুতে গাছভর্তি এমন ফল বাগানের সৌন্দর্য বৃদ্ধির সাথে সাথে কৃষকের স্বপ্ন যেনো দোল খাচ্ছে। ঝিনাইদহ সদর উপজেলার মহিষাকুন্ডু গ্রামের মাঠে গেলে দেখা মিলবে চায়না কমলার এই বাগান। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কমলা চাষ দেখে ঝিনাইদহ সদর উপজেলার মহিষাকুন্ডু গ্রামের মাঠে ৫০ শতক জমিতে চায়না ৩ জাতের কমলার বাগান করেন ওই গ্রামের রান্নু শেখ। ২০১৯ সালের এপ্রিল মাসে তার জমিতে ১৪০ টি গাছ লাগান তিনি। গত বছর কিছুটা ফলন এলেও এবার গাছভর্তি ফল এসেছে। আকারে চায়না কমলা থেকে বড় আর স্বাদ ভালো হওয়ায় রয়েছে ব্যাপক চাহিদা। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ব্যবসায়ীরা বাগান থেকে ফল কিনে নিয়ে যাচ্ছে। পুষ্টিগুণে ভরপুর ও রোগীদের পথ্য হিসেবে পরিচিত চায়না কমলা স্বাদ ভালো হওয়ায় বেড়েছে চাহিদাও। ঝিনাইদহের বিভিন্ন উপজেলাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে যাচ্ছে এই বাগানের কমলা। এছাড়াও শহরসহ বিভিন্ন স্থানে বিক্রিও হচ্ছে। ফলন আর লাভ ভালো হওয়ায় অনেক বাগানী আসছেন পরামর্শ নিতে। কমলা বাগানের মালিক রান্নু শেখ বলেন, ফলন ভালো হচ্ছে। দামও ভালো পাচ্ছি। ঢাকা ও ঝিনাইদহের স্থানীয় ক্রেতারা এসে এসব কমলা ক্রয় করে নিয়ে যাচ্ছে। পাকার সাথে বিক্রয় হয়ে যাচ্ছে। ফলে আয় ও বেড়ে যাচ্ছে। চলতি মৌসুমে এই বাগানে ২শত মন কমলার ফলন হবে বলে তিনি আশা করছেন।
ব্যবসায়ীরা বলেন, স্থাণীয়ভাবে ক্রয় করার ফলে কমলা কয়েকদিন ধরে বিক্রয় করা যাচ্ছে। দ্রুত নষ্ট হচ্ছেনা ফলে বিক্রয় করতে সুবিধা হচ্ছে। পরিবহন খরচ কম হওয়ায় কম দামে বিক্রয় করা যাচ্ছে। এতে ভোক্তারা ক্রয় করতে আগ্রহী হচ্ছে। ঝিনাইদহ সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ জাহিদুল করিম বলেন, বাগানে সারের সুষম ব্যবহারের মাধ্যমে চায়না কমলার ভালো ফলন পাওয়া সম্ভব হচ্ছে। রসও ভালো হচ্ছে। ঝিনাইদহে চায়না কমলা চাষ দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।

spot_img
spot_img

এধরণের সংবাদ আরো পড়ুন

মোরেলগঞ্জে মিথ্যা মামলায় হয়রানীর প্রতিবাদে মানববন্ধন

মোরেলগঞ্জ সংবাদদাতা বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে মিথ্যা মামলায় হয়রানী থেকে বাঁচার জন্য মানবন্ধন করেছেন ভূক্তভোগী পরিবারের সদস্যরা।...

কোটচাঁদপুরে বেগম রোকেয়া দিবস পালিত

মঈন উদ্দিন খান, কোটচাঁদপুর মানববন্ধন ও আলোচনা সভার মধ্যদিয়ে কোটচাঁদপুরে আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ...

মণিরামপুরে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে শীতবস্ত্র বিতরণ করলেন এস এম ইয়াকুব আলী

নিজস্ব প্রতিবেদক মণিরামপুরে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার পক্ষে নিম্ন আয়ের মানুষের মাঝে...