Monday, February 6, 2023
হোম শহর-গ্রামখুলনাবিএনপি সমর্থিতদের বর্জন, খুলনা বারে ভোট পড়েছে ৮৫ শতাংশ

বিএনপি সমর্থিতদের বর্জন, খুলনা বারে ভোট পড়েছে ৮৫ শতাংশ

Published on

সাম্প্রতিক সংবাদ

নিপাহ ভাইরাস : সতর্ক হোন

নিপাহ ভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ছে। ইতোমধ্যে দেশের ২৮ জেলায় এই ভাইরাসের সংক্রমণ পাওয়া গেছে বলে...

ফাত্তাহ তানভীর রানার গল্প: প্রেমিকরা-প্রেমিকারা

শিয়া মসজিদ থেকে তাজমহল রোড ধরে একটু সামনে এগোলে রাস্তার ধারে অনেকগুলো বাড়ির মধ্যে...

মাথাপিছু আয় কমে ২৭৯৩ ডলার

বার্তাকক্ষ ,,দেশের মানুষের মাথাপিছু আয় কমে দুই হাজার ৭৯৩ ডলারে নেমে এসেছে। চূড়ান্ত হিসাবে...

৫ মেডিক্যাল কলেজের কার্যক্রম স্থগিত, একটি বাতিল

বার্তাকক্ষ ,,আইন ও নীতিমালা অনুসারে মানসম্পন্ন শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা না করায় পাঁচটি বেসরকারি মেডিক্যাল...

খুলনা প্রতিনিধি
বিএনপি সমর্থিত প্যানেলের ভোট বর্জনের মাধ্যমে খুলনা জেলা আইনজীবী সমিতির বার্ষিক নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। রোববার সকাল ৮ টা থেকে শুরু হয়ে বিরতীহীনভাবে বিকেল ৩ টা পর্যন্ত চলে। নির্বাচনে ১,৩৮৭ জন ভোটারের মধ্যে ১,১৮৪ জন ভোটার তাদের ভোট প্রয়োগ করেছেন বলে কমিশনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। এর আগে ২০২১ সালে খুলনা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে আইনজীবীদের দুটি প্যানেল অংশ নিয়েছিল। ওই নির্বাচনে ১,৩৭৫ জন ভোটারের মধ্যে ভোট দিয়েছিলেন ১,২৩১ জন।
জানা গেছে, এদিন সকাল ৮ টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে চলে ভোট গ্রহণ। নির্বাচনে প্রতিপক্ষ পরিষদের প্রতিদ্বন্দ্বিতা না থাকায় আদালত পাড়ায় তেমন কোন জাকজমক আয়োজন দেখা যায়নি। দুপুরের পর থেকে আইনজীবী সমিতির সামনে তেমন ভিড়ও পরিলক্ষিত হয়নি। খুলনা জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচন পরিচালনা কমিটির চেয়ারম্যান মোল্লা লিয়াকত আলী বলেন, এবারের নির্বাচনে আইনজীবী সমিতির সদস্যরা স্বতস্ফুর্তভাবে ভোট দিয়েছেন। সকালের দিকে সর্বদলীয় আইনজীবী ঐক্য পরিষদের কিছু সদস্য তাদের ভোট প্রদান করেন। এমনকি তাদের এজেন্ট এড. জিল্লুর রহমান ভোট কেন্দ্রে উপস্থিত ছিলেন। আইনজীবী সমিতির মোট ভোটার হলেন ১৩৮৭ জন। সেখানে ১১৮৪ জন ভোটার তাদের ভোট প্রদান করেছেন। তিনি অভিযোগ করে আরও বলেন, প্রতিপক্ষ পরিষদের সদস্যরা তাদের ভোট বর্জন করে নির্বাচন থেকে সরে গেছেন। রাতে তারা সমর্থিত প্রত্যেক সদস্যকে সকালে ভোট কেন্দ্রে ভোট প্রদান বিরত থাকার জন্য আহবান জানান। কিন্তু কেউ তাদের কথা মনেননি। সকালে ভোটারদের উপস্থিতি ছিল লক্ষণীয়। তবে সর্বদলীয় আইনজীবী ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী এম কে শহিদুল আলম বলেন, সর্বোচ্চ ২০ শতাংশ ভোটার নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন। সকাল থেকে নির্বাচন কেন্দ্র ছিল ফাঁকা। দুপুরের পর থেকে আরও ফাঁকা হয়ে যায়। এ পরিষদের অনেক সদস্য ভোট দিতে কেন্দ্রে আসেনি। প্রতিপক্ষ পরিষদের সদস্যরা আজ্ঞাবহ নির্বাচন কমিশনের সাথে আতাত করে ভোট কেটে ব্যালটবাক্স ভর্তি করেছেন।

spot_img
spot_img

এধরণের সংবাদ আরো পড়ুন

স্ত্রী হত্যা, স্বামীকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের নির্দেশ

আব্দুল আলিম, সাতক্ষীরা সাতক্ষীরায় যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে শ্বাসরোধে হত্যার দায়ে স্বামীকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের...

সরে গেছে বাঘ : স্বস্তিতে বনরক্ষিরা

কামরুজ্জামান হাওলাদার, বাগেরহাট সুন্দরবন পূর্ব বন বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের সুপতি স্টেশনের চান্দেশ্বর অফিস এলাকায় থেকে...

আ.লীগের রাজনীতিতে সক্রিয় পৌরসভার মেয়র সহিদুজ্জামান

মইন উদ্দিন খান, কোটচাঁদপুর মটর সাইকেল শো-ডাউন নিয়ে, দীর্ঘ দুই বছর পর আবারও আওয়ামী...