Wednesday, February 1, 2023
হোম শহর-গ্রামযশোরঅভয়নগরে দপ্তরির বিরুদ্ধে মহিলা স্বাস্থ্যসেবা কর্মকর্তার অভিযোগ

অভয়নগরে দপ্তরির বিরুদ্ধে মহিলা স্বাস্থ্যসেবা কর্মকর্তার অভিযোগ

Published on

সাম্প্রতিক সংবাদ

মিয়ানমারে সেনা শাসনের দুই বছর, জনগণের নীরব প্রতিবাদ

বার্তাকক্ষ ,,দুই বছর হয়ে গেছে মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থানের। সামরিক শাসন, গনতন্ত্রের অধিকার হরণ ও...

৭ দিনের আয়ে ইতিহাস গড়ল ‘পাঠান’

বার্তাকক্ষ ,,সমালোচকদের দাঁতভাঙা জবাব দিয়ে দুর্দান্তভাবে ফিরলেন বলিউড বাদশাহ শাহরুখ খান। দীর্ঘ চার বছরেরও...

ফিফা কাউন্সিলের নির্বাচনে হেরে গেলেন মাহফুজা আক্তার

বার্তাকক্ষ ,,টানা তৃতীয় মেয়াদে ফিফার কাউন্সিল মেম্বার হওয়া হলো না মাহফুজা আক্তার কিরণের। টানা...

আমি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মচারী না : ঢাবি অধ্যাপক

বার্তাকক্ষ ,,পাঠ্যবই সংশোধনী কমিটিতে সদস্য হিসেবে কাজ করার কোনো আগ্রহ নেই বলে জানিয়েছেন ঢাকা...

নিজস্ব প্রতিবেদক, অভয়নগর
যশোরের অভয়নগর উপজেলার ৫০নং গোপিনাথপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরি মো. লিটন সরদারের বিরুদ্ধে শুভরাড়া ইউনিয়ন সিনিয়র স্বাস্থ্যসেবা কর্মকর্তা মমতাজ খাতুন লিখিত অভিযোগ করেছেন। সোমবার (২৮ নভেম্বর) দুপুরে যশোর জেলা প্রশাসক বরাবর এ লিখিত অভিযোগ করেন তিনি। অভিযোগকারী স্বাস্থ্যসেবা কর্মকর্তা মমতাজ বেগম জানান, গত ২৭ অক্টোবর বৃহস্পতিবার সকালে তিনি ৫০নং গোপিনাথপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের করোনা টিকাদানে ব্যস্ত ছিলেন। সকাল আনুমানিক ১১ টার সময় উক্ত বিদ্যালয়ের দপ্তরী লিটন সরদার তার সঙ্গে নোঙরা আচরণ করে কুপ্রস্তাব দেন। যে কারণে সরকারি কাজ বাধাগ্রস্ত ও টিকাদানে সমস্যা হয়। তিনি আরও জানান, ইতোপূর্বে লিটন সরদার ওই স্কুলের এক অভিভাকের শ্লীলতাহানির অপরাধে ৫০ হাজার টাকা জরিমানাও দিয়েছেন। বিভিন্ন দপ্তরে দেওয়া লিখিত অভিযোগের মাধ্যমে দপ্তরী লিটন সরদারের বিরুদ্ধে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থাগ্রহণের দাবি জানান তিনি।এ ব্যাপারে উক্ত বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক পবিত্র কুমার বিশ্বাস জানান, দপ্তরী লিটনের বিরুদ্ধে প্রধান শিক্ষক বরাবর স্বাস্থ্যসেবা কর্মকর্তা মমতাজ খাতুন কোন লিখিত অভিযোগ করেননি। ঘটনার দুই দিন পর তিনি লিটনের বিরুদ্ধে মৌখিক অভিযোগ করেন। বর্তমানে স্কুলের ম্যানেজিং কমিটি নাই। এডহক কমিটি গঠনের প্রক্রিয়া চলছে। এ ব্যাপারে উক্ত বিদ্যালয়ের সাবেক সভাপতি ফারুক খান জানান, দপ্তরী লিটনের বিরুদ্ধে অনেক অভিযোগ। নারী কেলেঙ্কারির সাথে তার জড়িত থাকার প্রমাণ রয়েছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে তার মত কর্মচারি না থাকা উত্তম। অভিযুক্ত দপ্তরী লিটন সরদার সকল অভিযোগ অস্বীকার করে মুঠোফোনে বলেন, ‘আমার বিরুদ্ধে স্থানীয় একটি চক্র ষড়যন্ত্র করছে। আমাকে চাকরিচ্যুত করার জন্য ওই স্বাস্থ্যসেবা কর্মকর্তা বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করছেন। শ্লীলতাহানির অপরাধে জরিমানা দিয়েছেন এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, কোন এক কারণে গ্রামবাসীর চাপে ২০ হাজার টাকা জরিমানা দিয়েছিলাম। তবে সেই টাকা গ্রামের একটি মসজিদের উন্নয়ন কাজে দেওয়া হয়েছিল।উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মাসুদ করিম জানান, অভিযোগ পেয়েছি, তদন্তপূর্বব পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মেজবাহ উদ্দীন জানান, গোপিনাথপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরি মো. লিটন সরদারের বিরুদ্ধে অভিযোগ পাওয়ার পর শিক্ষা কর্মকর্তাকে ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

spot_img
spot_img

এধরণের সংবাদ আরো পড়ুন

খুলনা নগরীর গণশৌচাগারের বেশিরভাগই অস্বাস্থ্যকর

বার্তাকক্ষ ,,খুলনা মহানগরীতে প্রায় ২০টি গণশৌচাগার রয়েছে। এরমধ্যে দুটি আধুনিক ব্যবস্থাপনার হলেও বাকিগুলো সেই...

মোরেলগঞ্জে মৎস্য ঘের দখলে মরিয়া একটি মহল

মোরেলগঞ্জ সংবাদদাতা বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে জিউধরায় একটি মৎস্য ঘের দখলের পায়তারা। জোরপূর্বক মাটি কেটে ভেড়িবাঁধ দেওয়ার...

ফ্রেব্রুয়ারিকে অর্ধ শত কোটি টাকা ফুল বিক্রির টার্গেট গদখালীর চাষিদের

এমামুল হাসান, ঝিকরগাছা মহামারি করোনায় দুই বছরের মন্দাভাব ও গেল বছরের প্রাকৃতিক দুর্যোগের ক্ষতি কাটিয়ে...