Tuesday, February 7, 2023
হোম জাতীয়‘দুর্নীতি প্রতিরোধী প্রতিষ্ঠানকে রাজনৈতিক প্রভাবমুক্ত রাখতে হবে’

‘দুর্নীতি প্রতিরোধী প্রতিষ্ঠানকে রাজনৈতিক প্রভাবমুক্ত রাখতে হবে’

Published on

সাম্প্রতিক সংবাদ

উন্মুক্ত হোক মালয়েশিয়া শ্রমবাজার

মালয়েশিয়া শ্রমবাজার নিয়ে দীর্ঘসময় জটিলতা চলছে। বারবার উদ্যোগ নিলেও ফলপ্রসূ হচ্ছে না। দুদিনের সফরে...

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রি তৃতীয় বর্ষের ফল প্রকাশ

বার্তাকক্ষ ,,জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে অনুষ্ঠিত ২০২০ সালের ডিগ্রি তৃতীয় বর্ষ চূড়ান্ত পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ...

আশংকাজনক হারে বাড়ছে মুখের ক্যান্সার

বার্তাকক্ষ ,,বিশ্বে ক্যান্সারে মোট মৃত্যুর কারণের মধ্যে মুখের ক্যান্সার নবম। বিশ্বে সকল ক্যান্সারের মধ্যে...

১২ দিনেই শাহরুখের পাঠানের আয় ৮৩২ কোটি রুপি

বার্তাকক্ষ ,,চার বছর পর ফিরেই একের পর এক রেকর্ড গড়ে চলেছেন শাহরুখ খান। তার...

বার্তাকক্ষ দুর্নীতি প্রতিরোধে সফল হতে দুর্নীতি প্রতিরোধকারী সব প্রতিষ্ঠানকে রাজনৈতিক প্রভাবমুক্ত রাখতে হবে বলে অভিমত ব্যক্ত করেছেন ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের (টিআইবি) নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান।
দুর্নীতি রোধে গোটা সমাজকে রুখে দাড়ানোর পাশাপাশি রাজনৈতিক স্বদিচ্ছা এবং দুর্নীতিবাজদের শাস্তির আওতায় আনাও জরুরি বলে মনে করেন তিনি।
শুক্রবার (৯ ডিসেম্বর) সকালে রাজধানীর ধানমন্ডির মাইডাস সেন্টারে আন্তর্জাতিক দুর্নীতিবিরোধী দিবস-২০২২ উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি তিনি দুর্নীতি প্রতিরোধে এসব করণীয় তুলে ধরেন।‘দুর্নীতি প্রতিরোধে ডেটা সাংবাদিকতা: প্রেক্ষিত বাংলাদেশ’- শীর্ষক আলোচনায় দুর্নীতিবিরোধী অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা পুরস্কার-২০২২ প্রদান করা হয়।ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, বিশ্বে এমন কোন দেশ নেই যেখানে দুর্নীতি হয় না। সব দেশেই কম-বেশি দুর্নীতি হয়। আমাদের মতো উন্নয়নশীল দেশগুলোতে এটার ব্যাপ্তি ও প্রভাব বেশি।
দুর্নীতি প্রতিরোধে সফল হতে মূলত চারটি জিনিসের প্রয়োজনীয়তা উল্লেখ করে তিনি বলেন, এর একটি হচ্ছে রাজনৈতিক স্বদিচ্ছা। এই স্বদিচ্ছা শুধুমাত্র কাগজে-কলমে হলে হবে না। এটাকে বাস্তবে রূপায়ন করে, কাউকে ভয়-পরোয়ানা না করে সেটা করতে হবে। আমাদের দেশে সরকারের বিভিন্ন পর্যায় থেকে দুর্নীতির বিরুদ্ধে নানা ঘোষণা দেওয়া হয়। প্রধানমন্ত্রী দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্সের কথা বলছেন। কিন্তু এগুলো বাস্তবায়নের খুব বেশি পদক্ষেপ দেখা যায় না।
তিনি বলেন, দ্বিতীয়ত হলো যাদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তাদের বিচারের আওতায় আনতে হবে। তৃতীয়টা হচ্ছে যে প্রতিষ্ঠানগুলো দুর্নীতি প্রতিরোধের দায়িত্ব পালন করছে তাদের সক্ষমতা বৃদ্ধি করতে হবে, সেখানে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে হবে। প্রতিষ্ঠানগুলোকে রাজনৈতিক প্রভাবমুক্ত রাখতে হবে। আর চতুর্থ হলো সম্পূর্ণ সমাজকে দুর্নীতির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে।
টিআইবির নির্বাহী পরিচালক আরও বলেন, রাজনৈতিক স্বদিচ্ছার দরকার আছে, দুর্নীতিবাজদের জবাবদিহিতার আওতায় আনা প্রয়োজন, দুর্নীতি প্রতিরোধকারী প্রতিষ্ঠানগুলো কার্যকর করার দরকার আছে। কিন্তু সবার আগে প্রত্যেক মানুষের মাঝে দুর্নীতিবিরোধী চেতনা গড়ে তুলতে হবে। চতুর্থটি নিশ্চিত করার দায়িত্ব সরকার ও রাষ্ট্রের। রাষ্ট্র সেই পরিবেশ নিশ্চিত করবে।

spot_img
spot_img

এধরণের সংবাদ আরো পড়ুন

যমুনা সার কারখানায় ফের উৎপাদন বন্ধ

বার্তাকক্ষ ,,যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে দেশের সর্ববৃহৎ ইউরিয়া উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান যমুনা সারকারখানায় ফের উৎপাদন বন্ধ...

অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ে পঙ্গু হাসপাতালের সাব-কন্ট্রাক্টরের মৃত্যু

বার্তাকক্ষ ,,রাজধানীর শ্যামলীতে অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ে শওকত ফকির (৫৪) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু...

বুধবার এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশ

বার্তাকক্ষ ,,আগামী বুধবার (৮ ফেব্রুয়ারি) এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হবে। সোমবার (৬...