Tuesday, February 7, 2023
হোম খেলাসেমিফাইনালে গিয়ে রেফারিকে ধুয়ে দিলেন মেসি

সেমিফাইনালে গিয়ে রেফারিকে ধুয়ে দিলেন মেসি

Published on

সাম্প্রতিক সংবাদ

উন্মুক্ত হোক মালয়েশিয়া শ্রমবাজার

মালয়েশিয়া শ্রমবাজার নিয়ে দীর্ঘসময় জটিলতা চলছে। বারবার উদ্যোগ নিলেও ফলপ্রসূ হচ্ছে না। দুদিনের সফরে...

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রি তৃতীয় বর্ষের ফল প্রকাশ

বার্তাকক্ষ ,,জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে অনুষ্ঠিত ২০২০ সালের ডিগ্রি তৃতীয় বর্ষ চূড়ান্ত পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ...

আশংকাজনক হারে বাড়ছে মুখের ক্যান্সার

বার্তাকক্ষ ,,বিশ্বে ক্যান্সারে মোট মৃত্যুর কারণের মধ্যে মুখের ক্যান্সার নবম। বিশ্বে সকল ক্যান্সারের মধ্যে...

১২ দিনেই শাহরুখের পাঠানের আয় ৮৩২ কোটি রুপি

বার্তাকক্ষ ,,চার বছর পর ফিরেই একের পর এক রেকর্ড গড়ে চলেছেন শাহরুখ খান। তার...

বার্তাকক্ষ:
পেনাল্টি শ্যুটআউটের রোমাঞ্চ শেষে লিওনেল মেসির আর্জেন্টিনা পৌঁছে গেছে বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে। ২-২ গোলে ড্রয়ের পর টাইব্রেকারে মেসিরা ৪-৩ গোলে হারিয়েছেন নেদারল্যান্ডসকে। তবে এই ম্যাচের ফলাফল ছাপিয়ে আলোচনায় উঠে এসেছে ম্যাচের ফেরারিং। পুরো ম্যাচে তিনি এমন কিছু সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, যা নিয়ে অসন্তুষ্ট দুই দলই। বিশেষ করে আর্জেন্টিনা। আন্তনিও পুরো ম্যাচে হলুদ কার্ড দেখিয়েছেন ১৮টি। বিশ্বকাপ ইতিহাসে যা সর্বোচ্চ। ডাচ ও আর্জেন্টাইন ফুটবলারদের কার্ড দেখিয়েছেন সমান ৮টি করে। এমনকি হলুদ কার্ড দেখিয়েছেন আর্জেন্টাইন কোচ লিওনেল স্কালোনি ও সহকারী ওয়াল্টার স্যামুয়েলকেও। হলুদ কার্ডই যদি এতবার দেখাবেন, ফাউলের বাঁশি কতবার বেজেছে লাহোজের? উত্তরটা শুনলে চোখ কপালে উঠে যেতে পারে আপনার। ৪৮ বার! বারে বারে ফাউলের বাঁশি বাজিয়ে খেলার গতি রোধের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছেন স্প্যানিশ এই রেফারি।
বিশ্বকাপের ফুটবল ইতিহাসে সবচেয়ে জঘন্যতম ম্যাচ হিসেবে ধরা হয় ‘ব্যাটল অব সান্তিয়াগো’কে। ১৯৬২ বিশ্বকাপের সে ম্যাচে এতটাই সহিংসতা ছিল যে, সেই ম্যাচের রেফারি কেন অ্যাস্টন বলেছিলেন, ‘আমি কোনো ফুটবল ম্যাচ পরিচালনা করছিলাম না, আমি যেন মিলিটারি অপারেশনে আম্পায়ার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলাম। বিবিসির ডেভিড কোলম্যান সেই ম্যাচটিকে আখ্যা দিয়েছিলেন ফুটবল ইতিহাসের সবচেয়ে অর্থহীন, আতঙ্কজনক, ন্যক্কারজনক এবং মর্যাদাহানিকর প্রদর্শনী হিসেবে। সেই ‘ব্যাটল অব সান্তিয়াগোতে’ও রেফারি ১৮টি হলুদ কার্ড দেখাননি। তাই স্বাভাবিকভাবে এই স্প্যানিশ রেফারির সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।
ম্যাচ শেষে আর্জেন্টাইন অধিনায়ক মেসিও তাই চুপ থাকেননি। ধুয়ে দিয়েছেন এই স্প্যানিশ রেফারিকে, ‘রেফারি সম্পর্কে কথা বলতে চাই না। মানুষ দেখেছে কী হয়েছে। ফিফার এটা পুনর্বিবেচনা করা উচিত। যে নিজের কাজটা ভালোভাবে জানে না, এত গুরুত্বপূর্ণ এক ম্যাচে তাকে দায়িত্ব দেওয়া উচিত না। আমরা খুব একটা ভালো খেলিনি। সঙ্গে রেফারির কারণেই অতিরিক্ত সময়ে খেলা পৌঁছেছে। সে সব সময় আমাদের বিপক্ষে ছিল। এমনকি যে গোলটি দিয়ে সমতায় ফিরেছে ওরা, সেটাও ফাউল ছিল না।’ টাইব্রেকারে পেনাল্টি সেভ করে নায়ক বনে যাওয়া মার্তিনেজও মেসির সুরেই সুর মিলিয়েছেন। তিনি আশা করছেন, সামনের ম্যাচগুলোতে এমন কোনো রেফারিকে দেখা যাবে না, ‘রেফারি ডি বক্সের সামনে কয়েকবার ফ্রি কিক দিয়েছেন। সে চেয়েছিল যেন নেদারল্যান্ডস গোল করে। আশা করছি, এ ধরনের রেফারি সামনে আর পাব না। সে একটা অপদার্থ।’ এ নিয়ে ফিফার কোনো মন্তব্য এখনো পাওয়ার যায়নি।

spot_img
spot_img

এধরণের সংবাদ আরো পড়ুন

১৬ গোল খাওয়া ভুটানকে সমীহ করছে বাংলাদেশ

বার্তাকক্ষ ,,সাফ অনূর্ধ্ব-২০ নারী ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপে বাংলাদেশের সামনে সহজ সমীকরণ। অপেক্ষাকৃত দুর্বল ভুটানের বিপক্ষে...

বোর্ডার-গাভাস্কার ট্রফি নিয়ে জয়াবর্ধনের ভবিষ্যদ্বাণী

বার্তাকক্ষ: কদিন পর শুরু হচ্ছে বহুল প্রতিক্ষীত ভারত-অস্ট্রেলিয়ার মধ্যকার বোর্ডার-গাভাস্কার ট্রফি। এই ট্রফি পেতে ৪...

ভারতে সিরিজ জয় অ্যাশেজ জেতার থেকেও বড়: স্মিথ

বার্তাকক্ষ: ভারতের মাটিতে টেস্ট সিরিজ জয় অ্যাশেসজ জেতার থেকেও বড় বলে মনে করছেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক...