Wednesday, February 8, 2023
হোম খেলামেসিকে নিয়ে ধোঁয়াশা

মেসিকে নিয়ে ধোঁয়াশা

Published on

সাম্প্রতিক সংবাদ

বেসরকারি কলেজ উন্নয়ন প্রকল্প বারবার মেয়াদ বাড়ায় অসন্তোষ, কঠোর হচ্ছে আইএমইডি

বার্তাকক্ষ ,,শিক্ষার মানোন্নয়নে নির্বাচিত দেড় হাজারের বেশি বেসরকারি কলেজকে প্রযুক্তিগত সুবিধার আওতায় আনতে চায়...

এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় পাসের হার ৮৫.৯৫

বার্তাকক্ষ: এবারের উচ্চ-মাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) ও সমমান পরীক্ষায় গড় পাসের হার ৮৫ দশমিক ৯৫ শতাংশ।...

ইতিহাস গড়ে ক্লাব বিশ্বকাপের ফাইনালে আল-হিলাল

বার্তাকক্ষ: সৌদি আরবের ফুটবল যে দিন দিন উন্নতি করছে তার প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে কাতার বিশ্বকাপেই।...

বিচারকের সঙ্গে দুর্ব্যবহার হাইকোর্টে নিঃশর্ত ক্ষমা চাইলেন নীলফামারীর বার সভাপতি

বার্তাকক্ষ ,,আদালতে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি, আইন-আদালতের প্রতি বৃদ্ধাঙ্গুলি প্রদর্শন এবং বিচারকের সঙ্গে অপেশাদার, আক্রমণাত্মক ও...

বার্তাকক্ষ:
কাতার বিশ্বকাপের শ্রেষ্ঠত্বের লড়াইয়ে রবিবার মাঠে নামছে শিরোপা প্রত্যাশী আর্জেন্টিনা ও বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স। আর্জেন্টিনার মানুষের কাছে বরাবরের মতো ফুটবলের ‘ঈশ্বর’ ডিয়েগো ম্যারাডোনা। তার যোগ্য উত্তরসূরি হিসেবে লিওনেল মেসির নামও বলা হয়। ১৯৮৬ সালের পর ফের বিশ্বকাপ ট্রফি জেতার পথে আর্জেন্টিনা। তবে শেষ লড়াইয়ে জিতলেই কেবল মিলবে সেই সোনার ট্রফি। যেখানে হারাতেই হবে ফ্রান্সকে। সেই লড়াইয়ে দলের প্রাণভোমরা মেসি। তাকে কি ফাইনালে পুরো ফিট পাওয়া যাবে? সেমিফাইনালে ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে জয়ের পর লিওনেল মেসিকে পা ধরে বসে থাকতে দেখা গিয়েছিল। এরপর গত বৃহস্পতিবার তিনি দলের অনুশীলনেও যোগ দেননি। তাতে করে গুঞ্জন ওঠে মেসি কি তাহলে ইনজুরিতে পড়েছেন? তিনি কি তাহলে ফাইনালে খেলতে পারবেন না? আর্জেন্টিনার ৩৬ বছরের শিরোপা খরা কাটাতে ফ্রান্সের বিপক্ষে ফাইনালে লিওনেল মেসির জ্বলে ওঠার কোনো বিকল্প নেই। আর্জেন্টাইন অধিনায়ক এবারের বিশ্বকাপে দারুণ খেলছেন। ইতোমধ্যে পাঁচ গোল করে কাতার বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ গোলদাতাদের তালিকায় কিলিয়ান এমবাপ্পের সঙ্গে যৌথভাবে শীর্ষে আছেন।
পাঁচটি গোল করার পাশাপাশি তিনটি গোলে অ্যাসিস্টও করেছেন। গ্রুপ পর্ব থেকে সেমিফাইনাল পর্যন্ত ছয় ম্যাচ খেলে চারবারই হয়েছেন ম্যাচসেরা। তার পারফরম্যান্সে ভর করে উজ্জীবিত আর্জেন্টিনা ষষ্ঠবারের মতো বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠেছে। ক্রোয়েশিয়াকে ৩-০ ব্যবধানে হারিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করার ম্যাচে মাঠে বেশ কবার পায়ে হাত দিতে দেখা গেছে মেসিকে। তাতে স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে, পায়ে কিছুটা সমস্যা অনুভব করছেন আর্জেন্টাইন সুপারস্টার। আর তারপরই ভক্তদের মনে শঙ্কা দানা বাঁধতে থাকে, ফাইনালে পাওয়া যাবে তো? ম্যাচের পর অনেক গণমাধ্যমে দাবি করা হয়, কৌশলগত কারণেই মেসির চোটের বিষয়টি অনেকটা চেপে গেছে আর্জেন্টাইন টিম ম্যানেজমেন্ট। ম্যাচ জয় নিশ্চিত জেনে আলভারেজ, মলিনাদের দ্বিতীয়ার্ধে মাঠ থেকে তুলে নিয়েছেন আর্জেন্টাইন কোচ লিওনেল স্কালোনি। কিন্তু পায়ে ব্যথা নিয়েও খেলে গেছেন আর্জেন্টিনার অধিনায়ক। বড় ইনজুরির ঝুঁকি থাকা সত্ত্বেও তাকে উঠিয়ে নেননি কোচ। শুধু এ ম্যাচ নয়, পুরো বিশ্বকাপেই প্রতিটি ম্যাচে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত খেলে গেছেন আর্জেন্টাইন বরপুত্র। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কাতার বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন নম্বর মাঠে আর্জেন্টিনার অধিনায়ককে ছাড়াই লিওনেল স্কালোনি ফাইনালের প্রস্তুতি শুরু করায় হঠাৎ করেই উদ্বেগ বাড়তে শুরু করে। অনুশীলন করেননি ক্রোয়েশিয়ার বিরুদ্ধে প্রথম একাদশে খেলা অধিকাংশ ফুটবলারও। তা নিয়ে অবশ্য কারো মাথাব্যথা নেই। সবার চিন্তা মেসিকে নিয়েই। ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে সেমিফাইনাল ম্যাচের শেষ দিকে আর্জেন্টিনার অধিনায়ককে দেখা গেছে পায়ের পেছনে হাত দিয়ে নুয়ে থাকতে। তার মুখে ছিল অস্বস্তির ছাপ। সেমিফাইনাল শেষে আর্জেন্টিনা কোচ লিওনেল স্কালোনিকে এ নিয়ে প্রশ্নও করা হয়েছিল। সাংবাদিকরা তার কাছে জানতে চেয়েছিলেন মেসির হ্যামস্ট্রিংয়ে কোনো সমস্যা আছে কিনা। স্কালোনি তখন সমস্যার কথা উড়িয়ে দিয়েছেন। প্রশ্নটা আবার সামনে এসেছে বৃহস্পতিবার। আর্জেন্টিনা দল পরশু ফাইনালের অনুশীলন শুরু করেছে। সেই অনুশীলনে মেসি ছিলেন না। তবে আর্জেন্টাইন সমর্থকদের জন্য সুখবর হচ্ছে মেসিকে নিয়ে কোনো শঙ্কা নেই। তিনি যথারীতি খেলবেন ফাইনালে। মূলত আগের ম্যাচে কিছুটা চোট পেয়েছিলেন তিনি। সে কারণে অনুশীলনে যোগ দেননি। ইনডোরে ‘রিকভারি সেশন’ করেন। ফাইনালের আগেই তার হ্যামস্ট্রিংয়ের সামান্য সমস্যা সেরে যাবে। জানা গেছে, ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে চোটের অবনতি না হলে অর্ধেক ফিটনেস নিয়ে হলেও মেসি খেলবেন ফ্রান্সের বিপক্ষে ফাইনালে। এজন্য জিম করেছেন তিনি। ক্যারিয়ারের শেষ বিশ্বকাপ এটি তার। এমনকি আর্জেন্টিনার জার্সিতে শেষ ম্যাচও। অধরা ট্রফি জেতার জন্য প্রাণ বাজি রাখতেও যেন রাজি মেসি!মেসিকে নিয়ে ধোঁয়াশা
বার্তাকক্ষ:
কাতার বিশ্বকাপের শ্রেষ্ঠত্বের লড়াইয়ে রবিবার মাঠে নামছে শিরোপা প্রত্যাশী আর্জেন্টিনা ও বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স। আর্জেন্টিনার মানুষের কাছে বরাবরের মতো ফুটবলের ‘ঈশ্বর’ ডিয়েগো ম্যারাডোনা। তার যোগ্য উত্তরসূরি হিসেবে লিওনেল মেসির নামও বলা হয়। ১৯৮৬ সালের পর ফের বিশ্বকাপ ট্রফি জেতার পথে আর্জেন্টিনা। তবে শেষ লড়াইয়ে জিতলেই কেবল মিলবে সেই সোনার ট্রফি। যেখানে হারাতেই হবে ফ্রান্সকে। সেই লড়াইয়ে দলের প্রাণভোমরা মেসি। তাকে কি ফাইনালে পুরো ফিট পাওয়া যাবে? সেমিফাইনালে ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে জয়ের পর লিওনেল মেসিকে পা ধরে বসে থাকতে দেখা গিয়েছিল। এরপর গত বৃহস্পতিবার তিনি দলের অনুশীলনেও যোগ দেননি। তাতে করে গুঞ্জন ওঠে মেসি কি তাহলে ইনজুরিতে পড়েছেন? তিনি কি তাহলে ফাইনালে খেলতে পারবেন না? আর্জেন্টিনার ৩৬ বছরের শিরোপা খরা কাটাতে ফ্রান্সের বিপক্ষে ফাইনালে লিওনেল মেসির জ্বলে ওঠার কোনো বিকল্প নেই। আর্জেন্টাইন অধিনায়ক এবারের বিশ্বকাপে দারুণ খেলছেন। ইতোমধ্যে পাঁচ গোল করে কাতার বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ গোলদাতাদের তালিকায় কিলিয়ান এমবাপ্পের সঙ্গে যৌথভাবে শীর্ষে আছেন।
পাঁচটি গোল করার পাশাপাশি তিনটি গোলে অ্যাসিস্টও করেছেন। গ্রুপ পর্ব থেকে সেমিফাইনাল পর্যন্ত ছয় ম্যাচ খেলে চারবারই হয়েছেন ম্যাচসেরা। তার পারফরম্যান্সে ভর করে উজ্জীবিত আর্জেন্টিনা ষষ্ঠবারের মতো বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠেছে। ক্রোয়েশিয়াকে ৩-০ ব্যবধানে হারিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করার ম্যাচে মাঠে বেশ কবার পায়ে হাত দিতে দেখা গেছে মেসিকে। তাতে স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে, পায়ে কিছুটা সমস্যা অনুভব করছেন আর্জেন্টাইন সুপারস্টার। আর তারপরই ভক্তদের মনে শঙ্কা দানা বাঁধতে থাকে, ফাইনালে পাওয়া যাবে তো? ম্যাচের পর অনেক গণমাধ্যমে দাবি করা হয়, কৌশলগত কারণেই মেসির চোটের বিষয়টি অনেকটা চেপে গেছে আর্জেন্টাইন টিম ম্যানেজমেন্ট। ম্যাচ জয় নিশ্চিত জেনে আলভারেজ, মলিনাদের দ্বিতীয়ার্ধে মাঠ থেকে তুলে নিয়েছেন আর্জেন্টাইন কোচ লিওনেল স্কালোনি। কিন্তু পায়ে ব্যথা নিয়েও খেলে গেছেন আর্জেন্টিনার অধিনায়ক। বড় ইনজুরির ঝুঁকি থাকা সত্ত্বেও তাকে উঠিয়ে নেননি কোচ। শুধু এ ম্যাচ নয়, পুরো বিশ্বকাপেই প্রতিটি ম্যাচে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত খেলে গেছেন আর্জেন্টাইন বরপুত্র। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কাতার বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন নম্বর মাঠে আর্জেন্টিনার অধিনায়ককে ছাড়াই লিওনেল স্কালোনি ফাইনালের প্রস্তুতি শুরু করায় হঠাৎ করেই উদ্বেগ বাড়তে শুরু করে। অনুশীলন করেননি ক্রোয়েশিয়ার বিরুদ্ধে প্রথম একাদশে খেলা অধিকাংশ ফুটবলারও। তা নিয়ে অবশ্য কারো মাথাব্যথা নেই। সবার চিন্তা মেসিকে নিয়েই। ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে সেমিফাইনাল ম্যাচের শেষ দিকে আর্জেন্টিনার অধিনায়ককে দেখা গেছে পায়ের পেছনে হাত দিয়ে নুয়ে থাকতে। তার মুখে ছিল অস্বস্তির ছাপ। সেমিফাইনাল শেষে আর্জেন্টিনা কোচ লিওনেল স্কালোনিকে এ নিয়ে প্রশ্নও করা হয়েছিল। সাংবাদিকরা তার কাছে জানতে চেয়েছিলেন মেসির হ্যামস্ট্রিংয়ে কোনো সমস্যা আছে কিনা। স্কালোনি তখন সমস্যার কথা উড়িয়ে দিয়েছেন। প্রশ্নটা আবার সামনে এসেছে বৃহস্পতিবার। আর্জেন্টিনা দল পরশু ফাইনালের অনুশীলন শুরু করেছে। সেই অনুশীলনে মেসি ছিলেন না। তবে আর্জেন্টাইন সমর্থকদের জন্য সুখবর হচ্ছে মেসিকে নিয়ে কোনো শঙ্কা নেই। তিনি যথারীতি খেলবেন ফাইনালে। মূলত আগের ম্যাচে কিছুটা চোট পেয়েছিলেন তিনি। সে কারণে অনুশীলনে যোগ দেননি। ইনডোরে ‘রিকভারি সেশন’ করেন। ফাইনালের আগেই তার হ্যামস্ট্রিংয়ের সামান্য সমস্যা সেরে যাবে। জানা গেছে, ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে চোটের অবনতি না হলে অর্ধেক ফিটনেস নিয়ে হলেও মেসি খেলবেন ফ্রান্সের বিপক্ষে ফাইনালে। এজন্য জিম করেছেন তিনি। ক্যারিয়ারের শেষ বিশ্বকাপ এটি তার। এমনকি আর্জেন্টিনার জার্সিতে শেষ ম্যাচও। অধরা ট্রফি জেতার জন্য প্রাণ বাজি রাখতেও যেন রাজি মেসি!

spot_img
spot_img

এধরণের সংবাদ আরো পড়ুন

ইতিহাস গড়ে ক্লাব বিশ্বকাপের ফাইনালে আল-হিলাল

বার্তাকক্ষ: সৌদি আরবের ফুটবল যে দিন দিন উন্নতি করছে তার প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে কাতার বিশ্বকাপেই।...

ভয়াবহ ভূমিকম্পে মারা গেছেন তুর্কি গোলরক্ষক আহমেত ইয়ুপ

বার্তাকক্ষ ,,তুর্কি গোলরক্ষক আহমেত ইয়ুপ তুর্কাসলান মারা গেছেন। গত ৬ ফেব্রুয়ারি তুরস্কে ভয়াবহ ভূমিকম্পের...

নারী ‘আইপিএলের’ নিলামে বাংলাদেশের ৯ ক্রিকেটার

বার্তাকক্ষ ,,ভারতে প্রথমবারের মতো আয়োজন করা হচ্ছে আইপিএলের আদলে উইমেন্স প্রিমিয়ার লিগ (ডব্লিউপিএল)। পাঁচ...