Monday, February 6, 2023
হোম শহর-গ্রামযশোররাজগঞ্জ অঞ্চলে লাইসেন্স বিহীন অবাধে বিক্রি হচ্ছে গ্যাস সিলিন্ডার

রাজগঞ্জ অঞ্চলে লাইসেন্স বিহীন অবাধে বিক্রি হচ্ছে গ্যাস সিলিন্ডার

Published on

সাম্প্রতিক সংবাদ

নিপাহ ভাইরাস : সতর্ক হোন

নিপাহ ভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ছে। ইতোমধ্যে দেশের ২৮ জেলায় এই ভাইরাসের সংক্রমণ পাওয়া গেছে বলে...

ফাত্তাহ তানভীর রানার গল্প: প্রেমিকরা-প্রেমিকারা

শিয়া মসজিদ থেকে তাজমহল রোড ধরে একটু সামনে এগোলে রাস্তার ধারে অনেকগুলো বাড়ির মধ্যে...

মাথাপিছু আয় কমে ২৭৯৩ ডলার

বার্তাকক্ষ ,,দেশের মানুষের মাথাপিছু আয় কমে দুই হাজার ৭৯৩ ডলারে নেমে এসেছে। চূড়ান্ত হিসাবে...

৫ মেডিক্যাল কলেজের কার্যক্রম স্থগিত, একটি বাতিল

বার্তাকক্ষ ,,আইন ও নীতিমালা অনুসারে মানসম্পন্ন শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা না করায় পাঁচটি বেসরকারি মেডিক্যাল...

উত্তম চক্রবর্তী,রাজগঞ্জ॥
যশোরের মণিরামপুর উপজেলার রাজগঞ্জ বাজারসহ এ অঞ্চলের বিভিন্ন বাজারের সড়কের পাশে দোকানের সামনে ও মোড়ে মোড়ে অবাধে বিক্রি হচ্ছে লাইসেন্স বিহীন পেট্রোলিয়াম এলপি গ্যাসের সিলিন্ডার। বিস্ফোরক অধিদপ্তরের লাইসেন্স ছাড়াই নীতিমালা লংঘন করে শুধু ট্রেড লাইসেন্স নিয়ে এ অঞ্চলের অর্ধশতাধিক দোকানে বিক্রি করা হচ্ছে গ্যাস সিলিন্ডার। ফলে যে কোন সময় বিস্ফোরন ও প্রাণহানীর আশঙ্কা করছে সচেতন মহল। এলপি গ্যাস প্রস্তুত কারক কোম্পানী গুলো বিস্ফোরক অধিদপ্তরের সনদ নিলেও খুচরা ব্যবসায়ীরা সিলিন্ডার মজুদ আইন অনুসরণ করছেনা। ব্যবসা পরিচালনার জন্য সাধারণ ট্রেড লাইসেন্স সংগ্রহ করলেও ১০টির বেশী সিলিন্ডারে আবশ্যকীয় সনদ তাদের নেই। অনুসন্ধানে দেখা যায় মুদি দোকান, হার্ডওয়্যার দোকান, ক্রোকারিজ, কসমেটিক্সসহ বাজারের বিভিন্ন দোকানের মালিকেরা খোলামেলা অবস্থায় গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রি করে আসছেন। এছাড়া ঐসব দোকানে ফায়ার সার্ভিসের অগ্নি নির্বাপক গ্যাস সিলিন্ডার রাখার নিয়ম থাকলেও অধিকাংশ দোকান মালিকরা তা রাখছেন না। আবার কয়েকটি দোকানে এ গ্যাস সিলিন্ডার থাকলেও তা বেশিরভাগই মেয়াদ উত্তীর্ণ। অথচ নিয়ম অনুযায়ী এলপি গ্যাস ব্যবহার, বিপণন ও বাজার জাত করতে হলে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বা ব্যবসায়ীকে বিস্ফোরক অধিদপ্তরের লাইসেন্স ও অগ্নিনির্বাপক গ্যাস সিলিন্ডার বাধ্যতা মূলক সংরক্ষণ করার কথা। দেখা যায় এ অঞ্চলের বিভিন্ন হাটবাজারের প্রায় ব্যবসায়ীদের এলপি গ্যাস বিক্রির কোন বৈধ লাইসেন্স নেই। আইনের তোয়াক্কা না করে ব্যবসায়ীরা দোকানে ও গুদামে গ্যাস সিলিন্ডার মজুদ রেখে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন। এছাড়া ব্যবসায়ীরা দোকানের সামনের ফুটপাত, জনাকীর্ণ এলাকায় যত্রতত্র গ্যাস সিলিন্ডার ছড়িয়ে ছিটিয়ে রেখে বিক্রি করছেন। সচেতন মহলের দাবি, যত্রতত্র অবাধে গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রীর ফলে যে কোন সময় দূর্ঘটনা ঘটে মানুষ মারা যেতে পারে। এ ব্যাপারে যথাযথ ব্যাবস্থা গ্রহনের জন্য প্রশাসন ও বিস্ফোরক অধিদপ্তরের নিকট স্থানীয় জনগণের আহবান।

spot_img
spot_img

এধরণের সংবাদ আরো পড়ুন

স্ত্রী হত্যা, স্বামীকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের নির্দেশ

আব্দুল আলিম, সাতক্ষীরা সাতক্ষীরায় যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে শ্বাসরোধে হত্যার দায়ে স্বামীকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের...

সরে গেছে বাঘ : স্বস্তিতে বনরক্ষিরা

কামরুজ্জামান হাওলাদার, বাগেরহাট সুন্দরবন পূর্ব বন বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের সুপতি স্টেশনের চান্দেশ্বর অফিস এলাকায় থেকে...

আ.লীগের রাজনীতিতে সক্রিয় পৌরসভার মেয়র সহিদুজ্জামান

মইন উদ্দিন খান, কোটচাঁদপুর মটর সাইকেল শো-ডাউন নিয়ে, দীর্ঘ দুই বছর পর আবারও আওয়ামী...