Thursday, February 2, 2023
হোম আইন আদালত১৫৮ কোটি টাকা লোপাটে ইউএফএস-এর এমডির বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা: হাইকোর্ট

১৫৮ কোটি টাকা লোপাটে ইউএফএস-এর এমডির বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা: হাইকোর্ট

Published on

সাম্প্রতিক সংবাদ

গণফোরাম ও পিপলস পার্টির সাথে বিএন‌পির বৈঠক

বার্তাকক্ষ ,,বিএন‌পির সরকার পত‌নের চলমান আন্দোল‌নের অংশ হি‌সে‌বে বিএন‌পি লিয়া‌জোঁ ক‌মি‌টির স‌ঙ্গে গণফোরাম ও...

বার ও বেঞ্চ একই পরিবারের দুটি সন্তান: আইনমন্ত্রী

বার্তাকক্ষ ,,আইনজীবীদের উদ্দেশে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, বার এবং বেঞ্চ একই পরিবারের দুটি সন্তান।...

হজ কার্যক্রমে অংশ নেওয়ার অনুমতি পেলো ৭৪৭ এজেন্সি

বার্তাকক্ষ ,,চলতি বছর হজ কার্যক্রমে অংশ নিতে প্রাথমিকভাবে ৭৪৭টি এজেন্সিকে অনুমতি দিয়েছে সরকার। বুধবার...

জীবননগরে পাওয়ার টিলারের চাকায় পিষ্ট হয়ে ব্যবসায়ীর মৃত্যু

জীবননগর সংবাদদাতা চুয়াডঙ্গার জীবননগরে পাওয়ার টিলারের চাকায় পিষ্ট হয়ে প্রাণ গেছে গরু ব্যবসায়ীর । বৃহস্পতিবার...

বার্তাকক্ষ ,, শেয়ারবাজারে চার মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ১৫৮ কোটি ৩৭ লাখ টাকা নিয়ে ইউনিভার্সাল ফাইন্যান্সিয়াল সলিউশনের (ইউএফএস) ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) সৈয়দ আলমগীরের দুবাই পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে তা জানানোর নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। আগামী ৩০ দিনের মধ্যে সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) ও আইসিবিকে এ বিষয়ে ব্যাখ্যা দাখিল করতে বলা হয়েছে।
এছাড়াও এ বিষয়ে প্রকাশিত প্রতিবেদনের সত্যতা নিয়ে জানানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে এই ব্যক্তির (সৈয়দ আলমগীর) বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে কর্তৃপক্ষের নিষ্ক্রিয়তা কেন অবৈধ হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করা হয়েছে।
এ বিষয়ে পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদনের ওপর শুনানি নিয়ে সোমবার (২ জানুয়ারি) বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি খিজির হায়াতের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এসব আদেশ দেন। আদালতে দুদকের জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন। এসময় রাষ্ট্রপক্ষে শুনারিতে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক।
এর আগে গত ৩১ ডিসেম্বর দৈনিক যুগান্তরে ‘১৫৮ কোটি টাকা নিয়ে দুবাই পালিয়েছেন এমডি’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদনে বলা হয়, শেয়ারবাজারে চার মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ১৫৮ কোটি ৩৭ লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছে ইউনিভার্সাল ফাইন্যান্সিয়াল সলিউশন (ইউএফএস) নামের একটি অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি।
এই টাকা নিয়ে ১৩ অক্টোবর দুবাই পাড়ি জমিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) সৈয়দ হামজা আলমগীর। বর্তমানে তিনি সিঙ্গাপুরে রয়েছেন। ২০১৮ সাল থেকে তহবিল সরানোর প্রক্রিয়া শুরু করে চক্রটি। এক্ষেত্রে ব্যাংকের প্রতিবেদন জালিয়াতি এবং ভুয়া এফডিআর (ফিক্সড ডিপোজিট রেট) দেখিয়ে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনকে (বিএসইসি) অন্ধকারে রাখা হয়। কিন্তু রহস্যজনক কারণে চার বছর নিষ্ক্রিয় ছিল ফান্ডের ট্রাস্টি ও কাস্টডিয়ান (গ্যারান্টি দেওয়া প্রতিষ্ঠান) আইসিবি। অডিট কোম্পানিও ভুয়া রিপোর্টকে বৈধতা দিয়েছে। বিএসইসির প্রাথমিক তদন্তে উঠে এসেছে এ তথ্য।ইতোমধ্যে কোম্পানিটির সঙ্গে কোনও ধরনের আর্থিক লেনদেন না করার নির্দেশ দিয়েছে কমিশন। বিএসইসি সূত্র বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। অর্থনীতিবিদরা বলছেন, ‘এ ধরনের ঘটনা নজিরবিহীন। এর ফলে মানুষের আস্থা নষ্ট হয়ে যাবে।’

spot_img
spot_img

এধরণের সংবাদ আরো পড়ুন

বার ও বেঞ্চ একই পরিবারের দুটি সন্তান: আইনমন্ত্রী

বার্তাকক্ষ ,,আইনজীবীদের উদ্দেশে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, বার এবং বেঞ্চ একই পরিবারের দুটি সন্তান।...

হজ কার্যক্রমে অংশ নেওয়ার অনুমতি পেলো ৭৪৭ এজেন্সি

বার্তাকক্ষ ,,চলতি বছর হজ কার্যক্রমে অংশ নিতে প্রাথমিকভাবে ৭৪৭টি এজেন্সিকে অনুমতি দিয়েছে সরকার। বুধবার...

সংসদে শিক্ষামন্ত্রী বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে টিউশন ফি যৌক্তিক পর্যায়ে রাখা হবে

বার্তাকক্ষ ,,শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের টিউশন ফি যৌক্তিক পর্যায়ে রাখা হবে।...