Monday, February 6, 2023
হোম জাতীয়আজ সৈয়দ আশরাফের চতুর্থ মৃত্যুবার্ষিকী

আজ সৈয়দ আশরাফের চতুর্থ মৃত্যুবার্ষিকী

Published on

সাম্প্রতিক সংবাদ

নিপাহ ভাইরাস : সতর্ক হোন

নিপাহ ভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ছে। ইতোমধ্যে দেশের ২৮ জেলায় এই ভাইরাসের সংক্রমণ পাওয়া গেছে বলে...

ফাত্তাহ তানভীর রানার গল্প: প্রেমিকরা-প্রেমিকারা

শিয়া মসজিদ থেকে তাজমহল রোড ধরে একটু সামনে এগোলে রাস্তার ধারে অনেকগুলো বাড়ির মধ্যে...

মাথাপিছু আয় কমে ২৭৯৩ ডলার

বার্তাকক্ষ ,,দেশের মানুষের মাথাপিছু আয় কমে দুই হাজার ৭৯৩ ডলারে নেমে এসেছে। চূড়ান্ত হিসাবে...

৫ মেডিক্যাল কলেজের কার্যক্রম স্থগিত, একটি বাতিল

বার্তাকক্ষ ,,আইন ও নীতিমালা অনুসারে মানসম্পন্ন শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা না করায় পাঁচটি বেসরকারি মেডিক্যাল...

বার্তাকক্ষ:
আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের চতুর্থ মৃত্যুবার্ষিকী আজ। ২০১৯ সালের ৩ জানুয়ারি ব্যাংককের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৮ বছর। ১৯৫২ সালের ১ জানুয়ারি ময়মনসিংহে জন্মগ্রহণ করেন সৈয়দ আশরাফ। তার পিতা সৈয়দ নজরুল ইসলাম ১৯৭১ সালে মুজিবনগর সরকারের অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি ছিলেন। এ ছাড়া তিনি বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে অন্যতম সংগঠক ছিলেন। ছাত্রজীবনে ছাত্র রাজনীতিতে সক্রিয় ছিলেন সৈয়দ আশরাফ। স্বাধীনতার পর তিনি ময়মনসিংহ জেলার ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। এ ছাড়া তিনি ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সহপ্রচার সম্পাদক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন।
আশরাফুল ইসলাম ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতারযুদ্ধে অংশ নেন। তিনি মুক্তিবাহিনীর একজন সদস্য ছিলেন। ভারতের দেরাদুনে প্রশিক্ষণ নেন তিনি।
১৯৭৫ সালের ৩ নভেম্বর কারাগারে পিতা সৈয়দ নজরুল ইসলামসহ জাতীয় চার নেতার নির্মম হত্যাকাণ্ডের পর তিনি যুক্তরাজ্য চলে যান। প্রবাস জীবনে তিনি যুক্তরাজ্যে আওয়ামী লীগকে সংগঠিত করার ব্যাপারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। ১৯৯৬ সালে দেশে ফিরে আসেন আশরাফুল ইসলাম এবং কিশোরগঞ্জ সদর আসন থেকে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী হিসেবে প্রথমবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। এ সময় তিনি বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০০১ সালের ১ অক্টোবরে অনুষ্ঠিত অষ্টম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পুনরায় তিনি নির্বাচিত হন এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০০৮ সালের নির্বাচনেও তিনি সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন এবং স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০১৫ সালের ১৬ জুলাই জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেন। তিনি এক কন্যার জনক। তার স্ত্রী শিলা ইসলাম ২০১৭ সালের অক্টোবরে মারা যান।

spot_img
spot_img

এধরণের সংবাদ আরো পড়ুন

রাষ্ট্রপতি প্রার্থী চূড়ান্ত করতে মঙ্গলবার বৈঠকে বসবে আ.লীগ

বার্তাকক্ষ ,,রাষ্ট্রপতি পদে দলীয় প্রার্থী চূড়ান্ত করতে মঙ্গলবার (৭ ফেব্রুয়ারি) সংসদীয় দলের বৈঠক করবে...

১৯৭১- এর নৃশংতার জন্য পাকিস্তানকে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান

বার্তাকক্ষ ,,১৯৭১-এ বাংলাদেশিদের ওপর চালানো নৃশংসতার জন্য পাকিস্তানকে ক্ষমা চাওয়ার কথা বলেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে...

‘জনশুমারির চূড়ান্ত প্রতিবেদনের জন্য অপেক্ষা কঠিন হয়ে যাচ্ছে’

বার্তাকক্ষ ,,সংসদীয় এলাকার সীমানা পুনর্নির্ধারণে জনশুমারির চূড়ান্ত প্রতিবেদনের জন্য অপেক্ষায় থাকা কঠিন হয়ে যাচ্ছে...