Monday, February 6, 2023
হোম জাতীয়শাহপরীর দ্বীপে অভিযান, ১৪ আগ্নেয়াস্ত্রসহ ৬ রোহিঙ্গা ডাকাত আটক

শাহপরীর দ্বীপে অভিযান, ১৪ আগ্নেয়াস্ত্রসহ ৬ রোহিঙ্গা ডাকাত আটক

Published on

সাম্প্রতিক সংবাদ

নিপাহ ভাইরাস : সতর্ক হোন

নিপাহ ভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ছে। ইতোমধ্যে দেশের ২৮ জেলায় এই ভাইরাসের সংক্রমণ পাওয়া গেছে বলে...

ফাত্তাহ তানভীর রানার গল্প: প্রেমিকরা-প্রেমিকারা

শিয়া মসজিদ থেকে তাজমহল রোড ধরে একটু সামনে এগোলে রাস্তার ধারে অনেকগুলো বাড়ির মধ্যে...

মাথাপিছু আয় কমে ২৭৯৩ ডলার

বার্তাকক্ষ ,,দেশের মানুষের মাথাপিছু আয় কমে দুই হাজার ৭৯৩ ডলারে নেমে এসেছে। চূড়ান্ত হিসাবে...

৫ মেডিক্যাল কলেজের কার্যক্রম স্থগিত, একটি বাতিল

বার্তাকক্ষ ,,আইন ও নীতিমালা অনুসারে মানসম্পন্ন শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা না করায় পাঁচটি বেসরকারি মেডিক্যাল...

বার্তাকক্ষ ,, কক্সবাজারের টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপে নাফনদীতে নয় ঘণ্টার অভিযান চালিয়েছেন কোস্টগার্ড সদস্যরা। সোমবার রাতের এ অভিযানে মাছ ধরার নৌকা থেকে ১৪টি আগ্নেয়াস্ত্র, মাদকদ্রব্য এবং ছয় রোহিঙ্গা ডাকাতকে আটক করতে সক্ষম হন কোস্টগার্ড।
মঙ্গলবার দুপুরে কেরুনতলী কার্যালয়ে কোস্টগার্ড টেকনাফ স্টেশনের কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট কমান্ডার মহিউদ্দিন জামান এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান।
আটক ব্যক্তিরা হলেন– উখিয়া উপজেলার থ্যাংখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ইব্রাহিম (২৪), একই ক্যাম্পের আরিফ (৩৩), মাহমদুর রহমান(১৮), বালুখালী ক্যাম্পের নবী হোসেন(২৮), হোয়াইক্যং উনচিপ্রাং ক্যাম্পের আমিন(৩৩) এবং একই ক্যাম্পের কানিজ(২৪)।
মহিউদ্দিন জানান, সশস্ত্র ডাকাত দলের ফিশিং বোটে ডাকাতির প্রস্তুতির খবরে কোস্ট গার্ড নাফনদীর মোহনায় অভিযান চালায়। এ সময় ডাকাত দল বোট নিয়ে নাফনদীর মোহনা হয়ে টেকনাফের দিকে পালিয়ে ঢুকে পড়ে। কোস্টগার্ড ধাওয়া করলে ডাকাত দল রঙ্গিখালী এলাকায় খড়ের দ্বীপে কয়েক সদস্যকে নামিয়ে দ্রুত মিয়ানমারে অভ্যন্তরে চলে যায়। এ সময় অন্য ডাকাতরা দ্বীপের বনে লুকিয়ে যায়।
পরে টেকনাফ ও সেন্টমার্টিনের কোস্টগার্ডের যৌথ দল দ্বীপটি চারদিক থেকে ঘিরে অভিযান চালায়। সেখানে ডাকাত দলের মূল আস্তানা থেকে ছয় জন সশস্ত্র রোহিঙ্গা ডাকাত সদস্যকে আটক করা হয়। তাদের স্বীকারোক্তি মতে আস্তানায় তল্লাশি চালিয়ে দুটি বিদেশি পিস্তল, তিনটি একনলা বন্দুক, দুটি এলজি, একটি শটগান, ছয়টি দেশি পিস্তল, চারটি পিস্তলের ম্যাগাজিন, ৪৫০ রাউন্ড তাজা গুলি, ৩৬ রাউন্ড গুলির খোসা, চারটি রামদা, ২০ হাজার পিস ইয়াবা, ২১ বোতল বিদেশি মদ, ৫৫১ ক্যান বিয়ার, ৭ সেট ডাকাতিতে ব্যবহৃত পোশাক, একটি হ্যান্ডকাফ, একটি ল্যান্ড ফোন, চারটি বাটন মোবাইল উদ্ধার করা হয়।
কোস্টগার্ডের এই কর্মকর্তা বলেন, ‘মূলত এ দ্বীপটি টেকনাফ থেকে দূরবর্তী, বিচ্ছিন্ন এবং জনশূন্য। এ সুযোগে একটি সংঘবদ্ধ চক্র দীর্ঘদিন ধরে ডাকাতি, মাদক ও মানবপাচারসহ বিভিন্ন অপকর্ম চালিয়ে আসছিল। দীর্ঘদিনের গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে আমাদের টেকনাফ-সেন্টমার্টিনের দুটি টিম যৌথভাবে দীর্ঘ ৯ ঘণ্টার শ্বাসরুদ্ধকর অভিযান পরিচালনা করে বিপুল পরিমান অস্ত্র, গোলাবারুদ ও মাদকদ্রব্যসহ ৬ জন ডাকাত সদস্য আটক করতে সক্ষম হয়।’
আটক ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে থানায় হস্তান্তরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি।

spot_img
spot_img

এধরণের সংবাদ আরো পড়ুন

১৯৭১- এর নৃশংতার জন্য পাকিস্তানকে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান

বার্তাকক্ষ ,,১৯৭১-এ বাংলাদেশিদের ওপর চালানো নৃশংসতার জন্য পাকিস্তানকে ক্ষমা চাওয়ার কথা বলেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে...

‘জনশুমারির চূড়ান্ত প্রতিবেদনের জন্য অপেক্ষা কঠিন হয়ে যাচ্ছে’

বার্তাকক্ষ ,,সংসদীয় এলাকার সীমানা পুনর্নির্ধারণে জনশুমারির চূড়ান্ত প্রতিবেদনের জন্য অপেক্ষায় থাকা কঠিন হয়ে যাচ্ছে...

সবাইকে কর দেওয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

বার্তাকক্ষ ,,প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশবাসীকে তাদের কর প্রদানের আহ্বান জানিয়ে বিশ্বব্যাপী অর্থনৈতিক সংকট কাটিয়ে...