Wednesday, February 8, 2023
হোম বিশেষ প্রতিবেদননজরদারির প্রযুক্তি সাংবিধানিক অধিকার লঙ্ঘনের ভয়ংকর হাতিয়ার: টিআইবি

নজরদারির প্রযুক্তি সাংবিধানিক অধিকার লঙ্ঘনের ভয়ংকর হাতিয়ার: টিআইবি

Published on

সাম্প্রতিক সংবাদ

তুরস্ক ও সিরিয়ায় ভূমিকম্পে নিহত বেড়ে ৭,৮০০

বার্তাকক্ষ: ভূমিকম্পে সিরিয়া ও তুরস্কে থামছে না মৃত্যুর মিছিল। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত দুই দেশে...

তুরস্ক-সিরিয়ায় ভূমিকম্প বেঁচে আছে ধ্বংসস্তূপের নিচে জন্মানো শিশুটি

বার্তাকক্ষ ,,ভয়াবহ ভূমিকম্পে বিধ্বস্ত তুরস্ক-সিরিয়ায় সীমান্ত অঞ্চল। ধসে পড়া ভবনের নিচে চাপ পড়ে মারা...

৩ বিভাগে হালকা বৃষ্টি হতে পারে

বার্তাকক্ষ ,,তিন বিভাগে (রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট) হালকা বা গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হতে পারে...

৩৩ ঘণ্টা পর ৪ বছরের শিশু জীবিত উদ্ধার

বার্তাকক্ষ: তুরস্ক-সিরিয়ার সীমান্তবর্তী অঞ্চলে স্মরণকালের ভূমিকম্পে মৃতের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। এ পর্যন্ত ৮ হাজার ২০০...

বার্তাকক্ষ ,, স্পিয়ারহেড নামের এই ব্যবস্থার মাধ্যমে আশপাশের প্রায় আধা কিলোমিটারের মধ্যে থাকা এনক্রিপ্টেড হোয়াটসঅ্যাপ বার্তা, ফেসবুক চ্যাট, যোগাযোগের তালিকা, কল ও টেক্সট মেসেজ সংগ্রহ করা যায়স্পিয়ারহেড নামের এই ব্যবস্থার মাধ্যমে আশপাশের প্রায় আধা কিলোমিটারের মধ্যে থাকা এনক্রিপ্টেড হোয়াটসঅ্যাপ বার্তা, ফেসবুক চ্যাট, যোগাযোগের তালিকা, কল ও টেক্সট মেসেজ সংগ্রহ করা যায়ছবি: ভিডিও থেকে নেওয়া
ইসরায়েলের নজরদারির প্রযুক্তি সাংবিধানিক অধিকার লঙ্ঘনের ভয়ংকর হাতিয়ার বলে মনে করে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)। সংস্থাটি বলেছে, জনগণের করের টাকায় এমন ভয়ংকর হাতিয়ার কোন সুনির্দিষ্ট আইন ও নীতি অনুযায়ী কেনা হলো, কী উদ্দেশ্যে, কোন পরিপ্রেক্ষিতে, কার স্বার্থে এর ব্যবহার হবে, এমন মৌলিক প্রশ্নের জবাব জানার অধিকার দেশবাসীর আছে।
আজ বৃহস্পতিবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে টিআইবি আরও বলেছে, সুনির্দিষ্ট নীতিমালার অনুপস্থিতিতে এমন প্রযুক্তির ব্যবহারে ব্যক্তিগত তথ্য ও যোগাযোগের গোপনীয়তা, সুরক্ষা ও মতপ্রকাশের স্বাধীনতাসহ একাধিক সাংবিধানিক মৌলিক অধিকার খর্ব হবে।বিবৃতিতে বলা হয়, ইসরায়েলি সংবাদমাধ্যম হারেৎজের প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, ইসরায়েলের সাবেক এক গোয়েন্দা কমান্ডার পরিচালিত কুখ্যাত কোম্পানি থেকে নজরদারির অত্যাধুনিক প্রযুক্তি কেনে বাংলাদেশ, যা গত বছরের জুনে বাংলাদেশে পৌঁছায়। এ প্রসঙ্গে টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ইফতেখারুজ্জামান বলেছেন, ‘জনগণের ব্যক্তিগত তথ্য ও যোগাযোগের গোপনীয়তা, সুরক্ষা, বাক্‌ ও মতপ্রকাশের স্বাধীনতা খর্ব হয় এবং সর্বোপরি ব্যক্তির জীবন ও জীবিকার জন্য হুমকি হতে পারে, এমন প্রযুক্তি কেনা ও ব্যবহারের বিস্তৃতি ও পরিধি সম্পর্কে সরকারের সুনির্দিষ্ট ব্যাখ্যা জানার অধিকার দেশবাসীর আছে।’
টিআইবির নির্বাহী পরিচালক বলেন, ‘ইসরায়েল থেকে সরাসরি কিছু কেনা হয়নি—সরকারের এমন ব্যাখ্যার অর্থ এই নয় যে এই ইসরায়েলি প্রযুক্তি আমদানি করা হয়নি। প্রকাশিত সংবাদে স্পষ্ট উল্লেখ রয়েছে, ইসরায়েল ও বাংলাদেশের কূটনৈতিক সম্পর্ক না থাকায় সাইপ্রাসের মাধ্যমে প্রায় ৬০ কোটি টাকা ব্যয়ে এই কেনাকাটা সংঘটিত হয়েছে। এমনকি এই প্রযুক্তি পরিচালনা বিষয়ে শিখতে এনটিএমসির কমান্ডার ও অন্য জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তারা ২০২১ ও ২০২২ সালে গ্রিস সফর করেন বলে প্রতিবেদনে বলা হয়। এ তথ্য মিথ্যা হলে তা প্রমাণ করার দায়িত্ব সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ও সরকারের। সর্বোপরি এই প্রযুক্তি যে সরকারের সংশ্লিষ্ট এজেন্সির হাতে ইতিমধ্যে এসেছে, এ ব্যাপারে কোনো সন্দেহের অবকাশ নেই বলে মনে করেন ইফতেখারুজ্জামান।
টিআইবির নির্বাহী পরিচালক বলেন, ‘গত কয়েক বছরে রাজনীতিবিদ, মন্ত্রী, ব্যবসায়ী, গণমাধ্যমকর্মী এবং ভিন্নমতাবলম্বীদের ফোনালাপ ফাঁসের ঘটনায় এটা এক রকম নিশ্চিত করে বলা যায় যে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ এক বা একাধিক বিশেষায়িত সরকারি সংস্থা নজরদারির বিভিন্ন প্রযুক্তি ব্যবহার করে আসছে। কিন্তু সরকারের তরফে কখনোই এ ব্যাপারে সুনির্দিষ্ট কোনো বক্তব্য দেওয়া হয়নি।
আপাতদৃষ্টে এমনটা বলা অত্যুক্তি হবে না যে ক্ষমতাসীন মহল এ ধরনের নজরদারির প্রযুক্তি যথেচ্ছ ব্যবহার করছে এবং সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির নিরাপত্তা, বাক্‌স্বাধীনতা, মতপ্রকাশের স্বাধীনতা ও মানহানিসহ সংবিধানে নিশ্চিত করা অধিকার ক্ষুণ্ন করছে। সুতরাং এ ব্যাপারে রাখঢাক না করে উল্লিখিত প্রশ্নাবলির উত্তরসংবলিত একটি সুনির্দিষ্ট নীতিকাঠামো প্রণয়নের কোনো বিকল্প নেই। তা না হলে জনস্বার্থ পদদলিত করে বাংলাদেশকে অবিলম্বে সম্পূর্ণভাবে নজরদারিভিত্তিক রাষ্ট্রে পরিগণিত করা হবে।’
টিআইবি মনে করে, এ পর্যন্ত নজরদারির প্রযুক্তি ব্যবহারের যেসব উদাহরণ দেশবাসীর সামনে প্রকাশিত হয়েছে, তাতে শুধু রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তার স্বার্থে এ ধরনের কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে বলে দাবি করার কোনো সুযোগ নেই। ব্যক্তির সাংবিধানিক অধিকার নিশ্চিত করতে সব অংশীজনকে সম্পৃক্ত করে একটি সুনির্দিষ্ট নীতিমালা প্রণীত হওয়ার আগে এই প্রযুক্তি ব্যবহার স্থগিত রাখার কোনো বিকল্প নেই।

spot_img
spot_img

এধরণের সংবাদ আরো পড়ুন

হিরো আলমকে নিয়ে আ.লীগ-বিএনপির বক্তব্য শিষ্টাচারবহির্ভূত: টিআইবি

বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) ও বগুড়া-৬ (সদর) আসনের উপনির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা আশরাফুল হোসেন...

গুম ও নির্যাতনের সাম্প্রতিক অভিযোগগুলো তদন্তের আহ্বান এইচআরডব্লিউর

বাংলাদেশে সাম্প্রতিক সময়ে গুম ও ধরে নিয়ে নির্যাতনের যেসব অভিযোগ উঠেছে, সেগুলো তদন্ত করতে...

দ্য ইকোনমিস্টের বিশ্লেষণ ‘বেলুন’ নিয়ে চীন-যুক্তরাষ্ট্রের বাড়াবাড়ি

২০১৮ সালের পর মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর প্রথম চীন সফরের সমস্ত সম্ভাবনা উবে গেছে ‘গুপ্তচর’ বেলুনকাণ্ডের...