৬ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ  । ২১শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ 

বর্ষসেরা ওয়ানডে ক্রিকেটারের পুরস্কারদৌড়ে চারজনের তিনজনই ভারতীয়

প্রতিদিনের ডেস্ক
আইসিসি বর্ষসেরা ওয়ানডে ক্রিকেটার (পুরুষ) ২০২৩ পুরস্কারে মনোনয়ন পেয়েছেন তিন ভারতীয় ক্রিকেটার বিরাট কোহলি, শুবমান গিল ও মোহাম্মদ শামি। বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়ার কেউ নেই এ তালিকায়। ভারতের তিনজনের সঙ্গে আছেন নিউজিল্যান্ডের ড্যারিল মিচেল।
বর্ষসেরা নারী ওয়ানডে ক্রিকেটারের মনোনয়নে অবশ্য ভারতের কেউই নেই। মেয়েদের ক্রিকেটে বর্ষসেরা পুরস্কারের জন্য মনোনয়ন পেয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার অ্যাশলেই গার্ডনার, শ্রীলঙ্কার চামারি আতাপাত্তু, ইংল্যান্ডের স্কিভার-ব্রান্ট ও নিউজিল্যান্ডের অ্যামেলিয়া কের।
অক্টোবর-নভেম্বরে বিশ্বকাপ থাকায় ২০২৩ সালের বেশির ভাগজুড়ে হয়েছে ওয়ানডে ক্রিকেট। দল হিসেবে সবচেয়ে বেশি ৩৫টি ম্যাচ খেলেছে ভারত, বছরের সেরা পারফরম্যান্সেও যার ছাপ পড়েছে। ওপেনার শুবমান গিল বর্ষসেরায় মনোনয়ন পেয়েছেন ২৯ ম্যাচে ১৫৮৪ রান তুলে। এটিই ২০২৩ সালে কোনো ব্যাটসম্যানের সর্বোচ্চ রান। ঘরের মাঠে হওয়া বিশ্বকাপে ৪৪.২৫ গড়ে ৩৫৪ রান তুলেছিলেন গিল। টুর্নামেন্টে কোনো শতক না থাকলেও চারটি অর্ধশতক ছিল তাঁর ব্যাটে।
বিশ্বকাপেই স্বপ্নের মতো এক টুর্নামেন্ট কাটিয়েছেন কোহলি। টুর্নামেন্ট-সেরা হওয়ার পথে ৭৬৫ রান তোলেন তিনি, যা বিশ্বকাপের এক আসরে সর্বোচ্চ রান। বিশ্বকাপে ১১ ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ৯টিতেই পঞ্চাশের ঘর পার করেন কোহলি, এটিও বিশ্বকাপ রেকর্ড। সব মিলিয়ে বছরজুড়ে ২৭ ওয়ানডেতে ১৩৭৭ রান আসে কোহলির ব্যাট থেকে। এর মধ্যে শচীন টেন্ডুলকারের দুই যুগের বেশি সময় টিকে থাকা সর্বোচ্চ ৪৯ ওয়ানডে শতকের রেকর্ড ভেঙে ৫০তম শতকও তুলে নেন কোহলি।
বর্ষসেরার লড়াইয়ে কোহলি ও গিলের সঙ্গে থাকা অপর ভারতীয় মোহাম্মদ শামি। মাত্র ১৯ ওয়ানডেতে ৪৩ উইকেট নেন এই পেসার, যার মধ্যে বিশ্বকাপেই নেন টুর্নামেন্ট-সর্বোচ্চ ২৪ উইকেট।
তিন ভারতীয়ের বাইরে বর্ষসেরায় মনোনয়ন পাওয়া মিচেল ২৬ ম্যাচে করেন ১২০৪ রান। নিউজিল্যান্ডের ব্যাটসম্যানদের মধ্যে এক পঞ্জিকাবর্ষে তৃতীয় সর্বোচ্চ রান এটি। এর মধ্যে বিশ্বকাপে ভারতের বিপক্ষে দুটি শতকসহ করেন ৫৫২ রান। কেইন উইলিয়ামসনের চোটজনিত অনুপস্থিতিতে নিউজিল্যান্ডের ব্যাটিংয়ের মূল ভরসা হয়ে ছিলেন মিচেল।
নারী ওয়ানডেতে শ্রীলঙ্কার আতাপাত্তু মনোনয়ন পেয়েছেন ৮ ম্যাচে ৪১৫ রান তুলে। ১টি উইকেটও আছে তাঁর। বর্ষসেরা ওয়ানডে ক্রিকেটারের মনোনয়ন পাওয়ার আগে বর্ষসেরা টি-টোয়েন্টির তালিকায়ও জায়গা করে নেন শ্রীলঙ্কান অধিনায়ক। আতাপাত্তুর সঙ্গে মনোনীত হওয়া বাকি তিনজনও অলরাউন্ডার। নিউজিল্যান্ডের অ্যামেলিয়া কের ৯ ম্যাচে ব্যাট হাতে তোলেন ৫৪১ রান, লেগ স্পিনে নেন ৮ উইকেট। ২০২২ সালেও বর্ষসেরা ওয়ানডে ক্রিকেটারের মনোনয়ন পেয়েছিলেন কের।
অস্ট্রেলিয়ার অ্যাশলেই গার্ডনারও ছিলেন বছরজুড়ে দারুণ ছন্দে। ১৩ ম্যাচে অফ স্পিনে ২৪ উইকেট নেওয়ার পাশাপাশি ব্যাট হাতে ১৮৮ রান করেন তিনি। গত বছরের বর্ষসেরা ইংল্যান্ডের ন্যাট স্কিভার-ব্রান্ট ২০২৩ সালে খেলেছেন ৬টি ম্যাচ। এর মধ্যে তিনটি শতকসহ করেন ৩৯৩ রান, ডানহাতি পেস বোলিংয়ে নেন ৩ উইকেট।
মনোনয়ন তালিকায় জায়গা পাওয়া চারজনের মধ্যে একজন বর্ষসেরার স্বীকৃতি পাবেন গণমাধ্যম প্রতিনিধিদের প্যানেল, আইসিসি ভোটিং একাডেমি এবং সমর্থকদের ভোটে। আইসিসির ওয়েবসাইটের মাধ্যমে সমর্থকেরা ভোট দিতে পারবেন।

আরো দেখুন

Advertisment

জনপ্রিয়