‘শাবনূরের প্রতি মুগ্ধতাটা অন্যরকম’

0
22

প্রতিদিনের ডেস্ক
শাবনূরের ‘আনন্দ অশ্রু’- সিনেমা দেখে আমি মুগ্ধ হয়েছিলাম। তখন মনে হতো তাকে যদি কখনো সামনাসামনি দেখতে পারতাম! তবে পরবর্তীতে ‘মা আমার চোখের মণি’- ছবিতে তার ভাইয়ের চরিত্রে কাজ করতে পেরেছিলাম। এভাবেই কথাগুলো বলছিলেন চলতি প্রজন্মের চিত্রনায়ক নিরব হোসেন। এ নায়ক আরও বলেন, শাবনূর আমার কুর্মিটোলা শাহীন স্কুলের সিনিয়র আপু। আমরা একই স্কুলে পড়তাম। যদিও আমি তখন বেশ ছোট। তার চেয়েও বড় বিষয় হলো আমরা দু’জনই রাজবাড়ীর সন্তান। সবমিলিয়ে শাবনূরের প্রতি মুগ্ধতাটা অন্যরকম। এ অভিনেত্রীর সিনেমায় ফেরার বিষয়টিকে ইতিবাচকভাবে দেখছেন নিরব। তিনি বলেন, দেশের মানুষ আনন্দিত তিনি অভিনয়ে ফিরছেন।আপু দেশে আসার পর দেখা হয়নি। আশা করছি খুব দ্রুতই দেখা হবে। কোনো ভালো প্রস্তাব যদি আসে শাবনূরের সঙ্গে জুটি বেঁধে অভিনয়ের ইচ্ছার কথাও জানান নিরব।
এদিকে এ নায়ক বর্তমানে এফডিসিতে শুটিং করছেন ‘অপারেশন জ্যাকপট’- সিনেমার। মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের তত্ত্বাবধানে এ সিনেমা ১৯৭১ সালের বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সফল গেরিলা যুদ্ধের কাহিনী নিয়ে নির্মিত হচ্ছে। এটি পরিচালনা করছেন বাংলাদেশের দেলোয়ার জাহান ঝন্টু ও কলকাতার পরিচালক রাজীব বিশ্বাস। এ ছবিতে কাজের অভিজ্ঞতা প্রসঙ্গে নিরব বলেন, ছবিটি করতে গিয়ে আমার লম্বা চুল কেটে ফেলতে হয়েছে। প্রথমে কষ্ট লেগেছিল। পরে ভাবলাম চরিত্রের প্রয়োজনে করা যেতেই পারে। এ ছবির জন্য প্রস্তুতিটাও অন্যরকম। কারণ পাঁচ মাস ‘অপারেশন জ্যাকপট’-এর শুটিং হবে। এ সময় লুকটাও পরিবর্তন করা যাবে না। এ সময় অন্য কোনো সিনেমায় অভিনয় করতে গেলে ম্যানেজ করে করতে হবে। আমি নিজেও চাই প্রতিটি সিনেমায় আমার আলাদা লুক থাকুক। তবে খুব ভালোভাবে ছবিটির শুটিং করছি। লুঙ্গি পরে শুটিং করতে হচ্ছে। এটাও অন্যরকম অভিজ্ঞতা। তাছাড়া এটি একটি ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপটের ছবি। আমি একজন নৌ কমান্ডো অফিসার। মূল ঘটনা মোংলা বন্দরকে ঘিরে। সেখানে গিয়ে শুটিং করতে হবে। সবমিলিয়ে লম্বা জার্নি। এ জার্নিটায় নতুন নতুন অভিজ্ঞতা অর্জন করতে চাই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here