স্ক্যাম প্রতিরোধে বিদেশী কল ব্লকের উদ্যোগ সিঙ্গাপুরের

0
24

প্রতিদিনের ডেস্ক
সিঙ্গাপুরে স্মার্টফোন ব্যবহারকারীরা এখন থেকে সব আন্তর্জাতিক কল ব্লক করার অপশন চালু হয়েছে। এ উদ্যোগটি মূলত ডিজিটাল স্ক্যাম, প্রতারণা ও জালিয়াতি প্রতিরোধে সহায়তা করবে বলে আশা করছে দেশটির যোগাযোগ ও তথ্য মন্ত্রণালয়। স্মার্টফোন ব্যবহারকারীরা তাদের মোবাইল নেটওয়ার্ক ক্যারিয়ারের সঙ্গে যোগাযোগ পরিষেবাটি চালু করতে পারবেন। খবর টেকটাইমস।
সিঙ্গাপুরে অধিকাংশ সময়ে ফোন কলের মাধ্যমে স্ক্যাম করা ঘটনা ঘটে থাকে। এক্ষেত্রে বেশির ভাগ স্ক্যামকলগুলোয় আন্তর্জাতিক নম্বরগুলো ব্যবহার করে। তাই স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের আন্তর্জাতিক কল ব্লক করার নিয়ন্ত্রণ দেয়ার মাধ্যমে স্ক্যাম করা এখন থেকে বেশ কঠিন হবে বলে মনে করছে প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা। এ নতুন নিরাপত্তা ফিচারটির গুরুত্বের ওপর জোর দিয়ে দেশটির যোগাযোগ ও তথ্যমন্ত্রী জোসেফিন টিও জানান, যেহেতু এখন থেকে ব্যবহারকারীরা কল ব্লক করতে পারবে, এতে করে স্ক্যামের শিকার হওয়ার ঝুঁকি কমে আসবে।
দেশটির যোগাযোগ ও তথ্য মন্ত্রণালয় (এমসিআই) স্ক্যাম মোকাবেলায় চলমান প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে সারা বছর আরো স্ক্যামবিরোধী নিরাপত্তা ব্যবস্থা চালু করতে চায় বলে জানিয়েছে। এ পদক্ষেপগুলোর মধ্যে অ্যান্ড্রয়েড ফোনে অ্যান্টি-ম্যালওয়্যার ফিচার বাড়ানোর জন্য গুগলের সঙ্গে কাজ করার একটি পরিকল্পনা রয়েছে। এর প্রধান কারণ সিঙ্গাপুরের ৬০ শতাংশ স্মার্টফোন ব্যবহারকারী অ্যান্ড্রয়েড ফোন ব্যবহার করে। এছাড়াও তারা একটি টাস্কফোর্সও তৈরি করবে। যা সিঙ্গাপুরের ডিজিটাল নিরাপত্তার জন্য সাইবার হুমকির বিরুদ্ধে কাজ করবে।
২০২৩ সালে সিঙ্গাপুরে ম্যালওয়্যার-ভিত্তিক স্ক্যাম বেশি হয়েছে। স্ক্যামাররা মূলত ম্যালওয়্যার ও ভাইরাস থাকা অ্যাপ স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের ইনস্টল করতে বাধ্য করে। এরপর অ্যাপের মাধ্যমে তারা ব্যবহারকারীর ডিভাইস ও তথ্য অ্যাকসেস নিয়ে থাকে। পুলিশের প্রতিবেদন অনুযায়ী, গত বছর জানুয়ারি থেকে আগস্ট পর্যন্ত প্রায় ১ হাজার ৪০০ ব্যক্তি ম্যালওয়্যার স্ক্যামের শিকার হয়েছিল। যার ফলে মোট ক্ষতির পরিমাণ প্রায় ২ কোটি ডলার ছাড়িয়ে গেছে।
সিঙ্গাপুরে ক্রমবর্ধমান স্ক্যামের ঝুঁকি মোকাবেলায় টেলিযোগাযোগ সংস্থাগুলো ও স্মার্টফোন নির্মাতারা তাদের ডিভাইসে ডিফল্টভাবে অ্যান্টিভাইরাস অ্যাপ অন্তর্ভুক্ত করার মতো কৌশল অবলম্বন করেছে। অন্যদিকে স্যামসাং গ্যালাক্সি ডিভাইসগুলোতে ব্যবহারকারীরা অননুমোদিত অ্যাপ ইনস্টলেশন প্রতিরোধ করতে অটো ব্লকার ফিচার ব্যবহার করতে পারে। যার মাধ্যমে স্ক্যামার ও হ্যাকারদের থামানো যাবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here