অলিম্পিক নিয়ে ইন্সটাগ্রামে মেসির পোস্ট

0
11

প্রতিদিনের ডেস্ক
প্যারিস অলিম্পিক শুরু হয়ে বাকি আরও বেশ কয়েকটা মাস। তবে অলিম্পিকের বড় ইভেন্ত ফুটবল নিয়ে এখন থেকেই শুরু হয়েছে গুঞ্জন। দীর্ঘ ১৬ বছর পর আর্জেন্টিনার অলিম্পিক ফুটবল দলে ফিরতে পারেন লিওনেল মেসি, এমনটাই খবর ফুটবল পাড়ায়। সেই স্বপ্নের পথে প্রাথমিক ধাপটাও পূরণ করেছে আর্জেন্টিনা। কনমেবল অঞ্চলের বাছাইপর্বের শেষ দিনে লুসিয়ানো গুন্দোর একমাত্র গোলে ব্রাজিলকে হারিয়েছে আর্জেন্টিনা। এরপরেই আর্জেন্টিনার অধিনায়ক থিয়াগো আলমাদা এবং কোচ হ্যাভিয়ের মাশ্চেরানো জানিয়েছেন, লিওনেল মেসিকে দলে পেতে আগ্রহী তারা। মেসির জন্য দরজা খোলা বলেও মন্তব্য করেছেন আলমাদা। কিন্তু মেসি নিজে এখন পর্যন্ত এই বিষয়ে নীরব। অবশ্য নিজের অংশগ্রহন নিয়ে নীরব থাকলেও দলের সাফল্যে বেশ খুশি আর্জেন্টাইন মহাতারকা। ২০০৮ সালে নিজে অলিম্পিক স্বর্ণপদক জিতেছিলেন। ২০২১ পর্যন্ত সেটিই ছিল তার একমাত্র অর্জন। তরুণদের সেই মঞ্চে যেতে দেখে উচ্ছ্বসিত মেসি। ইন্সটাগ্রামের ম্যাচের ফলাফলের স্ক্রিনশট দিয়ে লিখেছেন ‘ভামোস’। নিচে চারটি হাততালির ইমোজি এবং আর্জেন্টিনার পতাকা। লিও মেসি নিজে অলিম্পিক শিরোপা জিতেছেন ১৬ বছর আগে। সেই দলে তার সঙ্গী ছিলেন অ্যানহেল ডি মারিয়া, সার্জিও আগুয়েরোর মত তারকা। ছিলেন আর্জেন্টিনা যুবদলের বর্তমান কোচ হ্যাভিয়ের মাশ্চেরানো। ২০২৪ সালের অলিম্পিকে মাশ্চেরানো দলে যান ডি মারিয়া এবং মেসি দুজনকেই। ব্রাজিলের বিপক্ষে জয়ের পর তিনি বলেন, ‘মেসির সঙ্গে আমার বন্ধুত্ব কেমন তা ইতোমধ্যে সবাই জানে। তার মতো খেলোয়াড় আমাদের সঙ্গী হওয়ার জন্য দরজা খোলা রয়েছে। অবশ্যই এটা তার ওপর এবং তার প্রতিশ্রুতির ওপর নির্ভর করে।’ মাশ্চেরানো আরও যোগ করেন, ‘সে আমাদের অভিনন্দন জানিয়েছে এবং খুবই খুশি হয়েছে। আমরা সবাই জানি লিও জাতীয় দলের বড় ভক্ত এবং যুব দলগুলোর দিকেও তার চোখ তাকে। অলিম্পিক গেমসে আমাদের সঙ্গে যোগ দিলে আনন্দিতই হবো।’