চট্টগ্রামে পুলিশের সঙ্গে হকারদের সংঘর্ষ, আহত অনেকে

0
10

প্রতিদিনের ডেস্ক
চট্টগ্রামে নগরের নিউ মার্কেট এলাকায় পুলিশ ও হকারদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) ৪টার দিকে পুনর্বাসনের দাবিতে আন্দোলনরত হকাররা পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়ান। সর্বশেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত (বিকেল সাড়ে ৫টা) দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ চলছিল। সংঘর্ষে একাধিক ব্যবসায়ী ও পুলিশ আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সোমবার দুপুর ২টা থেকে জহুর হকার্স মার্কেট সংলগ্ন মিউনিসিপ্যাল স্কুলের সামনের রাস্তায় বিক্ষোভ সমাবেশ করছিলেন উচ্ছেদ হওয়া হকাররা। অন্যদিকে একই এলাকায় দখলমুক্ত ফুটপাত ও সড়কে পরিচ্ছন্নতার কাজ করছিলেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের কর্মীরা। এ সময় নিউমার্কেট এলাকায় জড়ো হওয় হকাররা সিটি করপোরেশনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও কর্মকর্তাদের কাজে বাধা দেন। তর্কাতর্কির একপর্যায়ে হকাররা মারমুখী হয়ে ওঠেন।এসময় ঘটনাস্থলে থাকা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল ছুঁড়তে থাকেন হকাররা। পুলিশও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে কাঁদানে গ্যাস ছোড়ে।
চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ দক্ষিণ বিভাগের অতিরিক্ত উপকমিশনার নোবেল চাকমা বলেন, ‘হকারদের ছোড়া ইটপাটকেলের আঘাতে তিন পুলিশ সদস্য সামান্য আহত হয়েছেন। ঘটনাস্থলে পুলিশের বিপুল সংখ্যক সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। বর্তমাণে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে।’
এদিকে চট্টগ্রাম ফুটপাত হকার সমিতির নেতাদের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, পুলিশ তাদের ওপর গুলি চালিয়েছে। একজন হকার গুলিবিদ্ধ হয়েছেন বলেও দাবি করেন তারা। হকারদের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি বানচাল করতে সিটি করপোরেশনের কর্মীরা পরিকল্পিতভাবে ঘটনা উসকে দিয়েছেন। পুলিশের ছোড়া টিয়ারশেলের আঘাতে অন্তত ২০ ব্যবসায়ী আহত হয়েছেন।তবে হকার গুলিবিদ্ধ হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করতে পারেনি পুলিশ।তামাকুমুন্ডি লেন ব্যবসায়ী সমিতির এক নেতা নাম না প্রকাশের শর্তে বলেন, ‘টিয়ারশেলের আঘাতে বেশ কয়েকজন ব্যবসায়ী আহত হয়েছেন। আহত অনেকে বিভিন্ন মার্কেটে আশ্রয় নিয়েছেন। গুলির বিষয়টি নিশ্চিত নই।’
বৃহস্পতিবার নগরের প্রায় দেড় কিলোমিটার সড়কে ফুটপাতের ওপর বসানো অবৈধ দোকান ও স্থাপনা উচ্ছেদ করেছে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন। এ সময় প্রায় ৭০০ থেকে ৮০০ অবৈধ স্থাপনা ও দোকান উচ্ছেদ করা হয়। সড়ক ও ফুটপাতের জায়গা দখল করে এসব স্থাপনা গড়ে উঠেছিল। তবে পুনর্বাসন ছাড়াই উচ্ছেদ শুরু করায় সেদিন থেকেই বিক্ষোভে নামেন হকাররা।