আজ নাজাতের তৃতীয় দিন

0
9

আবু সাঈদ মারুফ
রমজান আল্লাহতায়ালার নৈকট্যলাভের বিশেষ একটা সময়। বিশেষ এ মাসকে আমরা মূলত তিনটি ভাগে ভাগ করে থাকি। প্রথম ১০ দিন ধরা হয় আল্লাহর রহমত নাজিলের, গোনাহ মাফ তথা মাগফেরাতের জন্য ধরা হয় দ্বিতীয় ১০ দিন এবং আল্লাহর আজাব থেকে নাজাতের জন্য নির্ধারিত তৃতীয় ১০ দিন কে বলা হয়ে থাকে। রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, এটা এমন এক মাস, যে মাসের প্রথম ১০ দিন রহমতে পরিপূর্ণ থাকে। মাঝের ১০ দিন ক্ষমা মার্জনা লাভের জন্য নির্ধারিত থাকে এবং শেষ ১০ দিন জাহান্নাম থেকে মুক্তি লাভের উপায় হিসাবে নির্দিষ্ট থাকে। আজ পবিত্র মাহে রমজানের ২৩তম দিন অর্থাৎ নাজাতের তৃতীয় দিন। পবিত্র রমজান মাস জুড়েই রয়েছে মুমিনের জন্য অফুরন্ত রহমত, ক্ষমা ও নাজাত পাওয়ার সুযোগ। এ কারণে ইবাদত-বন্দেগী এবং দোয়া-দরুদের মাধ্যমে মাসটি অতিবাহিত করে থাকেন মুমিনগণ। ইবনে আব্বাস (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ (সা.) রমজান মাসে এই দোয়া পড়তেন। ‘আলবালাদুল আমিন’ ও ‘মিসবাহুল কাফআমি’ নামক গ্রন্থে রয়েছে এই দোয়া। মহান আল্লাহ তা’আলার অপার রহমতের উসিলা লাভে ধন্য হতে রোজার ২৩ তম দিনে একটি দোয়া নিচে তুলে ধরা হলো-
দোয়া : الیوم الثّالث والعشرون : اَللّـهُمَّ اغْسِلْنی فیهِ مِنَ الذُّنُوبِ، وَطَهِّرْنی فیهِ مِنَ الْعُیُوبِ، وَامْتَحِنْ قَلْبی فیهِ بِتَقْوَى الْقُلُوبِ، یا مُقیلَ عَثَراتِ الْمُذْنِبینَ।
উচ্চারণ: আল্লাহুম্মাগ্সিল্-নী ফীহি মিনায্ যুনুব, ওয়া ত্বাহ্হিরনী ফীহি মিনাল্ উয়ুব, ওয়াম্তাহিন ক্বালবী ফীহি বিতাক্বওয়াল্ ক্বুলুব, ইয়া মুক্বিলা আ’সার-তিল মুযনিবীন।
বাংলা অর্থ : হে আল্লাহ! আমার সকল গুনাহ ধুয়ে মুছে পরিস্কার করে দাও। আমাকে সব দোষ-ত্রুটি থেকে পবিত্র কর। তাকওয়া ও খোদাভীতির মাধ্যমে আমার অন্তরকে সকল পরিক্ষায় উত্তীর্ণ কর। হে অপরাধীদের ভুল-ত্রুটি মার্জনাকারী।