শার্শার গোগা সীমান্তে কোটি টাকার সোনার বারসহ পাচারকারী আটক

0
37

নিজস্ব প্রতিবেদক
যশোরের শার্শা উপজেলার গোগা সীমান্ত থেকে ৯টি স্বর্ণের বারসহ এক পাচারকারীকে আটক করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ বিজিবি সদস্যরা। মঙ্গলবার (০২ জানুয়ারি) দিবাগত রাতে গোগা কলেজ এলাকায় অভিযান চালিয়ে এই স্বর্ণের বারসহ পাচারকারীকে আটক করা হয়। আটক পাচারকারী মনিরুল হোসেন (৪২) শার্শা উপজেলার কালিয়ানি গ্রামের মৃত শামসুর রাহমানের ছেলে। খুলনা ২১ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্ণেল খুরশিদ আনোয়ার পিএসসি জানান, গোগা বিজিবি ক্যাম্পের একটি বিশেষ টহল দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মঙ্গলবার রাতে উপজেলার গোগা কলেজের সামনে অভিযান চালিয়ে পাচারকারী মনিরুল হোসেনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় তল্লাশি চালিয়ে তার গায়ে থাকা জ্যাকেটের মধ্যে কৌশলে লুকিয়ে রাখা ১ কেজি ২২ গ্রাম ওজনের ৯টি সোনার বার উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারকৃত স্বর্ণের বারের আনুমানিক মূল্য এক কোটি ৮০ হাজার টাকা। আটককৃত আসামিকে শার্শা থানার মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হবে এবং উদ্ধারকৃত স্বর্ণ সরকারি কোষাগারে জমা করা হবে। এ ব্যাপারে শার্শা থানায় একটি মামলার করা হয়েছে। সীমান্তের সূত্রগুলো জানায়, গোগা সীমান্ত ঘাট নিয়ন্ত্রণ করে কুখ্যাত সোনা পাচারকারীওে চোরাচালানী তবি-তরিকুল বাহিনী। দীর্ঘ দিন ধরে এই সীমান্ত দিয়ে বিপুল পরিমাণ সোনা ভারতে পাচার করা হয়। একই সাথে নারী পাচাররের পাশাপাশি এই সীমান্ত দিয়ে অস্ত্র-ফেনসিডিলসহ চোরাচালানের বড় বড় চালান পাচার করা হয়। বিপুল পরিমাণ অর্থের বিনিময়ে একজন শীর্ষ জনপ্রতিনিধির আশির্বাদপুষ্ঠ হওয়ায় কেউ টু-শব্দটি করতে পারে না। এমনকি এই সিণ্ডেকেটের সর্দারের শ্বশুর বাড়ির ঘরের মধ্যে তালা দেয়া ট্রাঙ্কের মধ্য হতে ফেনসিডিলের চালান জব্দ করা হলেও তারা রয়েছে ধরা ছোয়ার বাইরে। আর এসব কারনেই এই সীমান্ত দিয়ে প্রতিদিন বিপুল পরিমাণ সোনা ভারতে পাচার করা হচ্ছে। একইভাবে বানের স্রোতের মত আসছে ফেনসিডিলের চান। এসব নেসিডিল তরিকুল এবং বাবুল মেম্বর সিণ্ডিকেটের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ছে দেশময়। পুলিশ এসব জানলেও অদৃশ্য কারণে রয়েছে নিশ্চুপ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here