১লা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ  । ১৫ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ 

মানুষ আজ সোচ্চার শার্শার মানুষ জুলুম পছন্দ করে না, অন্যায় পছন্দ করে না : আশরাফুল আলম লিটন

বেনাপোল প্রতিনিধি
যশোর জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক বেনাপোল পৌর সভার সাবেক মেয়র আশরাফুল আলম লিটন বলেছেন,বিগত ১৫ টি বছর ধরে শার্শার মানুষের সাথে আমি প্রানবন্ত মিলে মিশে আছি। আপনারা জানেন বিভিন্ন সময়ে আঘাত প্রাপ্ত হয়ে এই আওয়ামী পরিবারের সন্তানেরা মামলা হামলার শিকার হয়ে আমার কাছে এসেছেন। আমি একজন আওয়ামীলীগের কর্মী হিসাবে আপনাদের আমার মন প্রান দিয়ে ভালবেসেছি। কখনো আমি আপনাদের আঘাত করি নাই বেইজ্জতী করি নাই। কখনো আমি অসন্মান করি নাই। আমি এই নির্বাচন করার জন্য আগ্রহ ছিলাম না। আমার কৃষক শ্রমিক নারী সমাজ শিক্ষক সমাজ সকলে বলেছে আপনি নির্বাচন করেন। তখন আমি আপনাদের বলেছিলাম আমাকে দিয়ে নির্বাচন করালে আপনাদের মারধর করবে অসন্মান করবে তারপরও আপনারা আমাকে দিয়ে নির্বাচন করাচ্ছেন। শার্শার মানুষ আজ সোচ্চার শার্শার মানুষ জুলুম পছন্দ করে না। কথাগুলো বললেন শার্শা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে দ্বাদশ জাতিয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে ট্রাক প্রতিকের সতন্ত্র প্রার্থী আশরাফুল আলম লিটন।
বেলা সাড়ে তিনটার সময় শার্শা আওয়ামীলীগের দলীয় কার্য়ালয়ের সামনে মিছিল দেওয়ার আগে এ বক্তব্য রাখেন সতন্ত্র প্রার্থী সাবেক মেয়র আশরাফুল আলম লিটন। এরপর ট্রাক প্রতিকের নেতা কর্মীরা শার্শায় বিশাল একটি মিছিল বের করে প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন শেষে দলীয় কার্যালয়ে ফিরে আসেন। তিনি বলেন কিছু মানুষ আজ এদিক ওদিক করছে। এতে আমি বিচলীত না ভিতু নই। আমি কোন নেতার প্রতি ভরসা করে নির্বাচন করছি না, কোন প্রশাসনের উপর ভরসা করেও নির্বাচন করছি না। আমি ভোটারদের উপর ভরসা করে আপনাদের ওয়াদানুযায়ী নির্বাচনে এসেছি। আমার কথা ছিল আপনারা আমাকে ছেড়ে চলে যাবেন না। আর আমিও কোনদিন এই শার্শার মানুষকে ছেড়ে চলে যাব না। আমি সকল দুঃখী মানুষ এবং নতুন প্রজন্ম এদের উপর ভরসা করে নির্বাচন করছি। কে গেল কে আসল এটা আমার কোন বিষয় নয়। আমার শরীরে যতক্ষন প্রান আছে ততক্ষন আমি আপনাদের ছেড়ে চলে যাব না। আপনারা জানেন এই পৃথিবী চিরস্থায়ী নয়। সকলকে চলে যেতে হবে পৃথিবী ছেড়ে। আর ভাল মন্দের বিচার করবেন আপনারা, কে ভাল ছিল কে মন্দ ছিল ? আমি তাকিয়ে আছি এ্ই নির্বাচনে সব থেকে বড় যে শক্তি সে শক্তি হচ্ছে ভোটাররা। সকলে ভোটের মাঠে ভোট দিতে যাবেন। আপনারা আমাকে ভোট দেন না দেন আপনারা উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট প্রদান করুন। কারন আমি ভিতু কাপুরুষ নই। আমি মাঠ ছেড়ে যাব না। একটি ভোট পেলেও আমি নির্বাচন করব। প্রিয় শার্শা বাসি আপনারা ইজ্জত সন্মান নিয়ে বাঁচেন। পৃথিবীতে একবার এসেছি একবার চলে যাব। কিন্তু প্রতারক বেঈমান ওয়াদাভঙ্গকারী , মোনাফেককারী আর মীরজাফর হিসাবে আমরা পৃথিবী ছেড়ে চলে যেতে চাই না। ইতিহাস দুই রকম মনুষকে জায়গা দেয়। ভাললোককে ও জায়গা দেয় আবার হারামিকে ও জায়গা দেয়। প্রশাসনকে তিনি দাবি রেখে বলেন আপনারা সুষ্ঠু নির্বাচন করবেন। যারা পাড়ায় পাড়ায় মহল্লায় ভোটারদের বাধা দিচ্ছে তাদের আপনারা দমন করবেন। আমরা সুষ্ঠু নির্বাচন চাই। শার্শার মানুষ এর প্রতি কেউ জুলুম করবেন না। আমার নেতা কর্মীরা শান্ত আছে। ভোটারদের কেউ নির্বাচন এর দিন বাধা দিবেন না। শার্শার মানুষ আজ জাগরিত । শার্শার মানুষ আর ঘুমন্ত নয়। শার্শার মানুষকে আর ধোকা দেওয়া যাবে না। শার্শার মানুষ আজ সোচ্চার শার্শার মানুষ জুলুম পছন্দ করে না। টানা হেঁচড়া অত্যাচার কোন দিন আপনার প্রশান্তির কারন হতে পারে না। এসব জুলুম ধ্বংসের কারন হবে । এই অত্যাচার আপনাদের একটি অশুভ ইতিহাসের জন্ম দিবে। এবং সমাজের মানুষ আপনাদের ঘৃনার চোখে দেখবে। এসময় উপস্থিত ছিলেন শার্শা উপজেলা আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক আজিবর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান, বনও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক রবিউল ইসলাম, খতিব ধাবক, সাহেব আলী বেনাপোল ইউপি যবলীগ নেতা সাহেব আলী ,বেনাপোল পৌর সভার সাবেক প্যানেল মেয়র সাহাবুদ্দিন মন্টু, আওয়ামীলীগ নেতা হাফিজুর রহমান সহ আওয়ামী, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও অঙ্গসংগঠনের সকল নেতা কমীরা।

আরো দেখুন

Advertisment

জনপ্রিয়