তিন বান্ধবী মিলে পড়েছে বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের ৪ হাজার বই

0
20

প্রতিদিনের ডেস্ক
রাজধানীর হলিক্রস উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী জান্নাতুল মাওয়া, ফাইজা এলাহী প্রজ্ঞা এবং লামিয়া হোসেন রোদেলা। এদের মধ্যে প্রজ্ঞা বাণিজ্য বিভাগের এবং মাওয়া ও রোদেলা মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থী। তিনজনেরই আগ্রহ বই পড়ায়। তিন বান্ধবী মিলে বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র থেকেই পড়েছে প্রায় চার হাজার বই।
শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রে এই প্রতিবেদকের সঙ্গে কথা হয় এই তিন শিক্ষার্থীর। বিদ্যালয়ের অন্য শিক্ষার্থীদের সঙ্গে তারাও এসেছে বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের ৪৫ বছর পূর্তির অনুষ্ঠানে যোগ দিতে।
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়, হুমায়ূন আহমেদ, ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল ও আনিসুল হকের বইয়ের প্রতি আগ্রহ বেশি এই তিন শিক্ষার্থীর।
তিনজনের মধ্যে জান্নাতুল মাওয়া একাই পড়েছে তিন হাজার বই। এত বই কীভাবে পড়া সম্ভব হলো- জানতে চাইলে মাওয়া বলে, ‘ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ার সময় থেকেই বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের বই পড়ি। করোনা মহামারির সময়ে যখন স্কুল বন্ধ ছিল তখন সবথেকে বেশি বই পড়েছি। এত বই পড়ার কারণে তখন বাসায় রাগ করতো। সারাক্ষণ বই নিয়ে বসে থাকতাম। বই পড়া আমার শখ। এরই মধ্যে তিন হাজার বই পড়েছি- এটা ভাবতেই ভালো লাগে।’
ফাইজা এলাহী প্রজ্ঞা পড়েছে পাঁচ শতাধিক বই। ক্লাসের পড়ার পাশাপাশি নিয়মিত বিভিন্ন ধরনের বই পড়ে সে। জাগো নিউজকে প্রজ্ঞা বলে, ‘ক্লাসের পড়ার চাপ রয়েছে। তারমধ্যেও অন্য বই পড়ার চেষ্টা করি। হুমায়ূন আহমেদ স্যার ও ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল স্যারের বই বেশি পড়েছি।’
ভৌতিক ও অতিপ্রাকৃত গল্পের বই পড়ার শখ লামিয়া হোসেন রোদেলার। রোদেলা বলে, ‘ভৌতিক গল্পের বই বেশি পড়েছি। মজার মজার গল্পের বই পড়ার প্রতি আমার আগ্রহ বেশি। অ্যাডভেঞ্চার ও অন্য বইও পড়েছি। ক্লাসের পাড়ার সঙ্গে সঙ্গে নিয়মিত অন্য বইও পড়ি। এরই মধ্যে তিন শতাধিক বই পড়েছি।’
বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের ৪৫তম বছর পূর্তির আয়োজন চলছে আজ। এদিন সকাল ১০টা থেকে বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র শিক্ষার্থী, লেখক, পাঠকের মিলনমেলায় পরিণত হয়েছে। দিনব্যাপী এই আয়োজন চলবে রাত ১০টা পর্যন্ত।