৪ঠা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ  । ১৮ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ 

কলারোয়া উপজেলা চেয়ারম্যান লাল্টু ভাইস চেয়ারম্যান ইমরান ও ময়না

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি
৬ষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তৃতীয় ধাপে সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলায় অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। ভোটগ্রহণের পর গণনা শেষে ফলাফল ঘোষণা করেন সহকারী রিটার্নিং অফিসার। এতে উপজেলা চেয়ারম্যান পদে আমিনুল ইসলাম লাল্টু ( ঘোড়া প্রতীক), পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে শেখ ইমরান হোসেন ( তালা প্রতীক) ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে সেলিনা আনোয়ার ময়না (কলস প্রতীক) নিয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। সূত্রমতে, বেসরকারীভাবে নির্বাচিতদের মধ্যে কলারোয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক বর্তমান জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য আমিনুল ইসলাম লাল্টু ঘোড়া প্রতীক নিয়ে ৪৭ হাজার ৮৪ ভোট পেয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বদ্বি আনারস প্রতীকের প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা এস এম আলতাফ হোসেন লাল্টু পেয়েছেন ৪২ হাজার ৭৪১ ভোট। ফলে ঘোড়া প্রতীক ৪ হাজার ৩৪৩ ভোটে জয়লাভ করেছেন। এ ছাড়া চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী আনারুল ইসলাম মোটরসাইকেলের প্রতীক নিয়ে মোট ৭৯৪ ভোট পেয়েছেন।
এদিকে পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে কয়লা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান শেখ ইমরান হোসেন তালা প্রতীক নিয়ে ৪৬ হাজার ৪৯৪ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে নিবার্চিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী যুবলীগ নেতা মফিজুল ইসলাম লাভলু উড়োজাহাজ প্রতীক নিয়ে ২৮ হাজার ৭৫৬ ভোট পেয়ে পরাজিত হয়েছেন। আর মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে উপজেলার দেয়াড়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মরহুম আনারুল ইসলামের সহধর্মীনি সেলিনা আনোয়ার ময়না কলস প্রতীক নিয়ে ৫০ হাজার ৬১৮ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে নিবার্চিত হয়েছেন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রাথী সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শাহানাজ নাজনীন ৩৬ হাজার ৩৬৮ ভোট পেয়ে পরাজিত হয়েছেন। এছাড়া পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রাথী জাহিদুর রহমান খান চৌদুরী জাহিদ মাইক প্রতীক নিয়ে মোট ১২ হাজার ২১৫ ভোট পেয়েছেন এবং আশিকুর রহমান মুন্না বই প্রতীক নিয়ে মোট ৫৯৭ ভোট পেয়েছেন। তবে মুন্না ভোটের মাঠে ছিলেন না। সহকারী রিটার্নিং অফিসার স্বাক্ষরিত প্রকাশিত ফলাফলে জানা যায়, এবার কলারোয়া উপজেলায় ১২টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভায় ৭৮টি কেন্দ্রে মোট ২ লাখ ১২ হাজার ৪২৭ ভোটারের মধ্যে ৯৩ হাজার ৫৬ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন। এর মধ্যে বৈধ ভোট ৯০ হাজার ৬১৯ ভোট এবং বালিকৃত ভোট ২ ৪৩৭ ভোট। প্রদত্ত ভোটের শতকরা হার ৪৩.৮১ ভাগ। কলারোয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. রফিকুল ইসলাম জানান, কলারোয়া উপজেলায় ২৯ মে দিনভর দুই একটি বিছিন্ন ঘটনা ছাড়াই অবাধ,সুষ্ট ও নিরপেক্ষভাবে ভোট সম্পন্ন হয়েছে। এমনকি নিবার্চন কমিশনের নির্দেশে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী কঠোরভাবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

আরো দেখুন

Advertisment

জনপ্রিয়