৪ঠা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ  । ১৮ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ 

মেক্সিকোতে মেয়রপ্রার্থীকে গুলি করে হত্যা

প্রতিদিনের ডেস্ক:
মেক্সিকোর দক্ষিণ গুয়েরেরো রাজ্যে একটি নির্বাচনী প্রচারণায় এক মেয়র প্রার্থীকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। আগামী রোববার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। তার আগেই এমন খবর সামনে এলো। আল জাজিরার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়। আলফ্রেডো ক্যাব্রেরা নামের ওই মেয়রপ্রার্থী বুধবার কোইউকা দে বেনিতেজ শহরে খুন হন। স্থানীয় গণমাধ্যমে প্রকাশিত একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, নির্বাচনী প্রচারণা অনুষ্ঠানে এক ব্যক্তি তার কাছে গিয়ে বেশ কয়েকবার গুলি চালান।দেশটিতে এই ঘটনা এবারই প্রথম নয়। আগামী ২ জুন দেশটির প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এখন পর্যন্ত স্থানীয় নির্বাচনে অংশ নেওয়া বেশ কয়েকজন নিহত হয়েছেন। দেশটির সরকার বলছে, গত সেপ্টেম্বর থেকে কমপক্ষে ২২ জনকে হত্যা করা হয়েছে। তারা নির্বাচনে স্থানীয় বিভিন্ন পদে অংশ নিয়েছিলেন।স্থানীয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, গত মঙ্গলবার মোরেলস রাজ্যে এক মেয়রপ্রার্থীকে খুন করা হয়। এছাড়া পশ্চিমাঞ্চলীয় জেলিসকো শহরে অপর এক প্রার্থীকে গুলি করা হলে তিনি আহত হন।স্থানীয় পুলিশকে নিয়ন্ত্রণ করতে বা পৌর সরকারের কাছ থেকে অর্থ আদায় করার জন্য মাদক চক্রগুলো বিভিন্ন সময় বিভিন্ন দলের প্রার্থী এবং রাজনীতিবিদদের হত্যা করছে।দেশটির প্রেসিডেন্ট আন্দ্রেস ম্যানুয়েল লোপেজ ওব্রাদর গত এপ্রিলের শুরুতে স্বীকার করেছিলেন যে, সেখানে মেয়র হিসেবে কে দায়িত্ব পালন করবেন সে বিষয়ে বিভিন্ন মাদক চক্রগুলো হস্তক্ষেপ করতে চায়। তারা নিজস্ব প্রার্থীদের দিয়ে বা সম্ভাব্য প্রতিদ্বন্দ্বীদের নির্মূল করে সফল হতে চাচ্ছে।তিনি বলেন, তারা একটি চুক্তি করে এবং নির্ধারণ করে যে, কোন ব্যক্তি মেয়র হতে চলেছেন। তারা ওই চুক্তিতে এ বিষয়ে একমত হয় যে, তারা চায় না যে অন্য কেউ প্রার্থী হিসেবে অংশ নেবে এবং কেউ অংশ নিলে কি পদক্ষেপ নিতে হবে তারা সে বিষয়ে চুক্তি অনুযায়ীই কাজ করে।এদিকে একের পর এক প্রার্থীর ওপর হামলা এবং খুনের ঘটনায় প্রায় ২৫০ জন প্রার্থীর নিরাপত্তা বাড়ানোর বিষয়ে সরকারের চাপ বাড়ছে। অপরদিকে দেশটির অন্যতম বিরোধী জোট ইনস্টিটিউশনাল রেভোলিউশনারি পার্টি (পিআরআই) অভিযোগ করেছে যে, প্রার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে ন্যূনতম প্রচেষ্টাও চালায়নি সরকার।আগামী রোববারের নির্বাচনে নিরাপত্তা জোরদার করতে প্রায় ২৭,০০০ হাজার সেনা সদস্য এবং ন্যাশনাল গার্ডের সদস্য মোতায়েন করা হবে বলে জানা গেছে।

আরো দেখুন

Advertisment

জনপ্রিয়